রাজনীতিতে আসা নিয়ে যা ভাবছেন সাকিব আল হাসান

Please log in or register to like posts.
News

নিদাহাস ট্রফির আগে সাকিব আল হাসান স্বপরিবারে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে দেখা করেছেন। এই টুর্নামেন্ট শেষে সপরিবার বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতির দাওয়াত ও রক্ষা করেছিলেন। ঠিক তখন থেকেই অনেকেরি ধারণা হতে থাকে তাহলে কি সাকিব রাজনীতিতে জড়াচ্ছেন?

ভারতের এক সংবাদ সম্মেলনে জবাবটা নিজেই দিয়েছেন। তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল অবসরের পর রাজনীতিতে আসার কোন চিন্তা আছে কিনা। দুই ফর্মেটে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব জানিয়েছেন- ‘ভবিষ্যৎ নিয়ে কেউ কিছু বলতে পারে না। আমি বর্তমান নিয়েই থাকতে চাই। কিন্তু কোনো কিছুই উড়িয়ে দিচ্ছি না। এ ব্যাপারে (রাজনীতি) এখনো ভাবিনি, তাই এটা নিয়ে এখন কথা বলাও কঠিন। ক্রিকেট আমার জীবন এবং মনোযোগটা শুধু এখানেই (ক্রিকেট) থাকবে। (প্রধানমন্ত্রীর গণভবনে সপরিবার যাওয়া প্রসঙ্গে সাকিবের ব্যাখ্যা) এটা ছিল সৌজন্যসাক্ষাৎ। তিনি ক্রিকেট খুব পছন্দ করেন এবং খেলোয়াড়দের সব সময় উৎসাহ দেন।’

 

 

এবারের আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ২ উইকেট নেয়। তাছাড়া মুম্বাইয়ের বিপক্ষেও ১টি উইকেট নেন তিনি। তার দল হায়দ্রাবাদ দুটিতেই জয় পেয়েছে। তাছাড়া শুরু থেকেই রাজস্থান ও হায়দ্রাবাদের সাকিবকে নিয়ে দর কষাকষি করেন দুই টিম। আইপিএলে তার ব্যাটিং কেরিয়ার তামন একটা ভালো দেখা যায় নি। তবে যাই হোক টিম এবং দর্শকদের প্রিয় হয়েছেন বোলিং এর দিকে। এদিকে হায়দ্রাবাদের রাশিদ খান ও অনেক প্রিয় হয়ে উঠছেন।

স্পিনারদের নিয়ে সাকিবের মন্তব্য, ‘স্পিনারদের সবাই খেলতে অভ্যস্ত নয়, তাই ব্যাটসম্যানদের জন্য এটা সামলানো কঠিন। তারা (লেগ স্পিনার) যেকোনো উইকেটে বল ঘোরাতে পারে, এটা একটা সুবিধা। কিন্তু তাদের যত বেশি খেলবেন ততই অভ্যস্ত হয়ে ওঠা যায়। (রাশিদ খান প্রসঙ্গ) সে অনেক দিন ধরেই দলের জন্য ভালো পারফর্ম করছে। রশিদের মতো বোলারকে দলে পাওয়া সত্যিই বড় ধরনের সুবিধা। তাছাড়া তার সাথে বোলিং এর জুটি অনেক ভালোই হয়েছে।’

Reactions

0
0
0
0
0
0
Already reacted for this post.

Reactions

Nobody liked ?

Leave a Reply