Now Reading
ফ্রিল্যান্সিং বা অনলাইনে কিভাবে টাকা আয় করবেন? ফুটপ্রিন্ট স্পেশাল (শেষ পর্ব)



ফ্রিল্যান্সিং বা অনলাইনে কিভাবে টাকা আয় করবেন? ফুটপ্রিন্ট স্পেশাল (শেষ পর্ব)

ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে এটাই আমার শেষ আর্টিকেল। এই পর্বে থাকবে কিভাবে ফেসবুক, ইউটিউব এবং ফুটপ্রিন্টে কাজ করে আপনি অনলাইনে টাকা উপার্যন করবেন তা নিয়ে বিস্তারিত। যদিও আমার দ্বিতীয় আর্টিকেল এ এই সম্পর্কে অল্প আলোচনা করেছি। তবে আজ বিস্তারিত ভাবে বর্ণনা করব। তার আগে আপনাদের দ্বিতীয় পর্ব ভালো ভাবে পড়া থাকতে হবে। যারা পড়েন নি তাদের জন্য দ্বিতীয় আর্টিকেল এর লিংক দেয়া হল।

কথা না বাড়িয়ে মূল টপিক নিয়ে লিখা শুরু করলাম। প্রথমেই শুরু করতে চাই ফেসবুক দিয়ে। বর্তমান সময়ের অতি জনপ্রিয় সাইট ও সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক। সামাজিক যোগাযোগ ছাড়াও ফেসবুকে যাতে মানুষ অর্থ আয় করতে পারে তার জন্য ফেসবুক কোম্পানী কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে তারা একটি ফিচার চালু করেছে যার মাধ্যমে ফেসবুকে অর্থ আয় করা শুরু করেছে অনেকেই। ফিচারটির নাম  ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল। ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে টাকা উপার্যন করতে হলে কিছু জিনিস আবশ্যক। সেগুলো হলঃ

  • একটি নিজস্ব ওয়েবসাইট
  • একটি নিজস্ব ফেসবুক পেইজ

আপনার ফেসবুক পেইজ এ যদি লাইকের সংখ্যা লক্ষের ঘরে থাকে তবে সেক্ষেত্রে এই উপায়ে আপনার ভালো পরিমাণ টাকা আয়ের সম্ভাবনা থাকবে। আপনি আপনার ওয়েবসাইটে আপনার বিভিন্ন লেখা প্রকাশ করবেন এবং সেসব লেখা ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনার পেইজ এ শেয়ার করে অর্থ আয় করতে পারবেন। ঐ শেয়ারকৃত ইন্সট্যান্ট আর্টিকেল আপনার পেজের মানুষ যতবার দেখবে বা যত বেশি বেশি পড়বে আপনার টাকা আয়ের পরিমাণ তত বেড়ে যাবে। এছাড়াও ইউটিউবের মত ফেসবুকও চালু করতে যাচ্ছে ভিডিওর মাধ্যমে টাকা আয়। আর অচিরেই ফেসবুক এই নতুন ফিচারটি লঞ্চ করবে। তখন আপনি ইউটিউবের মত ফেসবুকেও ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করতে পারবেন।

এবারে আসুন ইউটিউব নিয়ে কথা বলা যাক। ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করা যায় এ কথা এখন প্রায় সবাই জানে। ইউটিউবে কাজ করার জন্য প্রথমেই আপনাকে একটি চ্যানেল খুলতে হবে। তারপর সেই চ্যানেল এ ভিডিও আপলোড করতে হবে। অবশ্যই ভিডিওগুলো আপনার নিজস্ব কন্টেন্ট এর হতে হবে। তারপর সেই ভিডিও যত বেশি দর্শক দেখবে তত আপনার টাকা আয়ের সম্ভাবনা বাড়বে। এক্ষেত্রে আপনার চ্যানেল এর অবশ্যই হাজার খানেক সাবস্ক্রাইবার থাকতে হবে। আপনাকে ভালো শিক্ষামূলক  ভিডিও আপলোড করতে হবে যাতে করে বেশি মানুষ আপনার ভিডিও দেখে। তবে অন্যের ভিডিও আপনি কপি করে ইউটিউবে কখনোই আপলোড করবেন না।

আপনাকে আপনার নিজস্ব টপিক বেছে নিতে হবে। কোন ধরণের দর্শক আপনার চ্যানেল এর ভিডিও দেখছে সে সম্পর্কে আপনার ভালো ধারণা থাকতে হবে। তাহলে আপনি তাদের চাহিদা অনুযায়ী ভিডিও আপলোড  করতে  পারবেন যা ইউটিউবে টাকা উপার্যনের জন্য অনেক কার্যকরী। ফটোগ্রাফির মাধ্যমেও আপনি ইউটিউবে টাকা আয় করতে পারেন। আপনি অনেক গুলো ছবির সমাবেশে বিভিন্ন স্লাইড তৈরি করে তা ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। তবে স্লাইড গুলো অবশ্যই ভালো কোন গল্প নিয়ে গঠিত থাকতে হবে। ছবি দিয়ে ভালো স্টোরি গঠন করতে পারলেই কেবল তা দর্শককে আকর্ষণ করবে। এছাড়াও আপনি দেশের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ডকুমেন্টারি বানিয়ে তা ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। তবে কারেন্ট ইস্যু নিয়ে আপলোড করা ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আপনার ভিডিও যদি একবার ভাইরাল হয়ে যায় তবে যেন আপনার ভাগ্য খুলে গেল। আপনি জার্নালিজম নিয়েও বিভিন্ন ছবির স্লাইড বানিয়ে তা ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। তবে ইউটিউব বর্তমানে তাদের এলগোরিদম হারিয়ে ফেলেছে। কারণ ঠিক কোন এলগোরিদম এ তারা ইউটিউবের ভিডিও মেইনটেইন করছে তা তারা নিজেরাও হয়ত জানে না।

আমাদের দেশের নতুন একটি ফ্রিল্যান্সিং সাইট মাত্র অল্প কিছুদিন আগে আত্মপ্রকাশ করেছে। সাইটটির নাম ফুটপ্রিন্ট (www.footprint.press)। অল্প কিছু দিনের মধ্যেই সাইটটি দেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। যা  আমি আপনাদের গত আর্টিকেল এ দেখিয়েছি। ফুটপ্রিন্টে কিভাবে টাকা আয় করবেন হয়ত এখনও অনেকের অজানা। চলুন ফুটপ্রিন্ট সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

ফুটপ্রিন্টে লেখালেখির মাধ্যমে টাকা আয় করা শুরু করেছে অনেকেই। যারা লেখালেখি করেন বা টাইপিং এ বেশ পারদর্শী তাদের জন্য এটি অনেক ভালো একটি প্লাটফর্ম টাকা আয় করার জন্য। এখানে যারা লেখালেখি করে তাদেরকে ফুটপ্রিন্টার বলা হয়।

আপনাকে যেকোন টপিকের উপর ৭০০ শব্দ বা তার বেশি শব্দ নিয়ে একটি আর্টিকেল লিখতে  হবে। তবে অবশ্যই তা আপনার নিজস্ব লেখা হতে হবে। আপনি কোন কপি করা বা অন্যের লেখা এখানে ব্যবহার করতে পারবেন না। যদি করেন তাহলে আপনাকে সাইট থেকে চিরতরে নিষিদ্ধ করা হবে।

৭০০ শব্দের আর্টিকেলটির সাথে আপনাকে একটি ফিচার ছবি দিতে হবে। আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে ছবিটি যেন অবশ্যই এইচ ডি কোয়ালিটির হয়। তা না হলে আপনার আর্টিকেলটি সাইটে পাবলিশ নাও হতে পারে। তাই এ ক্ষেত্রে অবশ্যই সচেতন থাকতে হবে।

বানান ভুলের জন্য এখানে অনেক ধরণের পেনাল্টি আছে। তাই আপনাকে বানানের ক্ষেত্রেও সতর্ক হতে হবে। কারণ একই আর্টিকেল এ তিনটির বেশি বানান ভুল হলে ঐ আর্টিকেল এ বরাদ্দকৃত টাকার অর্ধেক টাকা কেটে নেয়া  হবে। আর পরপর তিনটি আর্টিকেল এ  পেনাল্টি পেলে পূর্বরর্তী দুটি আর্টিকেল এর পুরো টাকা কেটে নেয়া হবে। অনেক ধরণের category বা বিভাগ আছে যেগুলোতে আপনি বিভিন্ন টপিক নিয়ে লিখতে পারবেন। এছাড়াও সাইটে আপনার আর্টিকেল প্রকাশ হলে তা ফেসবুকের একটি পেইজ এ শেয়ার করা হবে যেন অনেক মানুষ আপনার আর্টিকেলটি পড়তে পারে।

নতুন যারা ফুটপ্রিন্টে আসছেন তাদের জন্য এই আর্টিকেলটি হয়ত অল্প হলেও কাজে লাগবে বলে আশা করি। অবশেষে যারা ফুটপ্রিন্টে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন তাদের জন্য বলছি আপনারা প্রথমে সাইটে দেয়া সম্পুর্ণ নির্দেশাবলী ভালো ভাবে পড়ুন। তাহলেই আশা করি সব সমস্যা সমাধান হবে। এখনকার মানুষ এতটাই  অলস যে সামান্য কিছু লেখা পড়তেও তাদের অনেক কষ্ট হয়। এছাড়াও আপনি ফেসবুকের ফুটপ্রিন্ট গ্রুপে যোগ দিন। সেখানে পুরোনো ফুটপ্রিন্টারদের আপনার সমস্যার কথা জানান। আপনি  সমাধান অবশ্যই  পাবেন। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন, ধন্যবাদ। Happy Footprinting, Happy Earning.

About The Author
Ashraful Kabir
Want to be learn how to write..... also trying.....
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment