সাহিত্য কথা

জ্বীন সমাচার – সত্য ঘটনা অবলম্বনে গল্প- পর্ব ২য়

ঘটনাটি আমার সাথে ঘটেছে । আপনাদের কাছে হয়তো ফালতু , বানানো গল্প মনে হতে পারে । কিন্তু আমি আপনাদের বলতে চাই আমার এই সিরিজে আমার সাথে অথবা আমার পরিবার , আত্মীয় স্বজনদের সাথে ঘটে যাওয়া কিছু ঘটনা বলবো । আসলে যার সাথে এমন কিছু ঘটে সেই বলতে পারবেন ঘটনা সত্য নাকি মিথ্যা । আমি আপনাদের কাছে সত্য বা মিথ্যা প্রমাণ করতে আসিনি । শুধু কিছু ব্যাখ্যা হীন সত্য অবলম্বনে গল্প শেয়ার করতে এসেছি ।

ঘটনাটি সাক্ষী ছিলাম আমি নিজে । আমার দূর সম্পর্কের এক আত্মীয়ৰ বাড়ি কুমিল্লা ।ইন্ডিয়ার বর্ডারের সাথে বাড়ি । তাদের প্রাইভেসি এর স্বার্থে জায়গার সম্পূর্ণ বিবরণ দিতে বিরত থাকলাম । আমাদের পরিবারের সাথে আমিও ছিলাম সেখানে । সেখানে ছিলেন আমার দূর সম্পর্কের এক নানী । যার সাথে আমার আবার খুব মিল । সারা দিন দুষ্টামি করি । তিনিও আমাকে খুব আদর করেন । আমার সেই নানীর বাবার বাড়ি ছিল তাদের বাড়িতে থেকে কিছুটা দূরে । তাদের বাড়ি থেকে নানীর বাপের বাড়ির দূরত্ব হবে ৩৫ মিনিট বা এর কিছু বেশি । প্রতিদিনের মতো একদিন বিকেলে আমরা সবাই বসে গল্প করছিলাম । হঠাৎ করে নানু বলে উঠলো , তোমার সবাই গল্প করো আমি একটু আবার বাপের বাড়ি থেকে আসতেছি । আমাকে গতকাল বলে গিয়েছিলো যাতে আমি তাদের বাড়ি যাই ।আমরা আর তার কথায় মনোযোগ দিলাম না । উনি উঠে চলে গেলেন । আমরা যে যার মতো আড্ডা দিছিলাম । তিনি যাওয়ার ঠিক ১ ঘণ্টা পরে আবার চলে আসেন । তখন মাগরিবের আযান দিচ্ছে । এর মানে উনি আজানের কিছুক্ষণ আগে বের হয়েছে । যায় হোক । আমাকে ডাক দিলো । বলল এই নাও ভাই তোমার জন্য পিঠা এনেছি । তেলের পিঠ । আমি একটি পিঠা খেয়ে বললাম অনেক ভালো হয়েছে ।
যেহেতু সন্ধ্যা হয়েছে আমরা সবাই ঘরের মধ্যে চলে আসলাম । নানু এসে খাটের উপর শুয়ে পড়লেন । আমি , আমার কিছু মামা তার সামনে বসে কথা বলছিলাম । কথা বলার সময় তিনি বলে বসলেন , তার নাকি শরীর ভালো লাগছে না । আমরা জিজ্ঞেস করলাম কি হয়েছে ? উনি বললেন উনার নাকি শরীর খারাপ লাগছে । যাই হোক আমরা আবার আড্ডা দেয়া শুরু করলাম । হঠাৎ তিনি কথার মাঝে খুব বাজে ভাবে একটা গালি দিয়ে বসলেন । আমরা সবাই অবাক , এখানে গালি দেয়ার কোনো কথাই ছিল না । গালি দেয়ার সাথে সাথে উনি উঠে বসলেন । বসে উল্টা পাল্টা কথা বলছেন । আমি প্রথম একটু অবাক হয়ে যাই । আমার পাশে তার বড় ছেলে ও মেঝো ছেলে বসা ছিল । আমি তাদের দিকে তাকিয়ে প্রশ্ন করি
মামা নানুর হঠাৎ করে কি হলো ?
বড় মামা আমার দিকে তাকিয়ে উত্তর দেয়ার আগে তার মানে নানুর হাতের আঙ্গুল চেপে ধরলো । তখন আমি বুঝতে পারছিলাম না আসলে ঘটনা কি !
একটু পর তার মেঝো ছেলে বলে উঠলো তোমার নানুকে জ্বীনে ধরেছে । আমি অনেকটা অবাক হয়ে যাই । এই মহিলাটার সাথে আমি কিছুক্ষণ আগেও দুষ্টামি করছিলাম , যে আমাকে পিঠা এনে খাইয়েছে , তাকে জ্বীনে ধরলো ! আমি আবার নিজেকে বিশ্বাস করার জন্য তাকে প্রশ্ন করলাম – মামা আপনি কি বলছেন ? নানুকে জ্বীনে ধরেছে ?
তিনি বললেন হ্যাঁ , তোমার নানুকে জ্বীনে ধরেছে । এই ব্যাপারটা অনেকটা ক্লিয়ার হয়ে গেলো যখন দেখলাম আমার পাশে বসে বড় মামা নানুর শেষের দিকে আঙ্গুল ধরে ছিল আর কি যেন এক সূরা পড়ছিল আসতে আসতে । হঠাৎ নানু বলে উঠলো আমার আঙ্গুল ছাড় , এই কথা বলে এক অদ্ভুত হাসিতে মেতে ছিলেন । আমি প্রথম দিকে অনেক ভয় পাই । আমি মামা কে বললাম মামা এইটা কি নিয়মিত ঘটনা নাকি ? উনি বলল না , কিন্তু মাঝে মাঝে উনাকে জ্বীনে ধরে । আমরা যেই রুমে বসা ছিলাম. মামা সেই রুম থেকে তাকে আরেক রুম নিয়ে ভেতরে থেকে দরজা বন্ধ করে দিলেন । যাতে করে তিনি উঠে দৌড়ে পালিয়ে যেতে না পারেন , একবার নাকি উনাকে এমন অবস্থা রেখে মামা পাশের রুম গিয়েছিলো , এসে দেখে উনি নেই । পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করে একটি বট গাছের নিচে পাওয়া গিয়েছে । যাই হোক , উনাকে প্রশ্ন করা হচ্ছিলো ।মামা জিজ্ঞেস করলেন
তুই কে , কেন আমার মা কে ধরেছিস ?
সে উত্তর দিলো আগে তুই সূরা পড়া বন্ধ কর , আমার আঙ্গুল ছাড় তাহলে আমি সব বলবো ?
না আঙ্গুল ছাড়বো না , সূরা পড়া বন্ধ করলাম এইবার তুই বল
তোর মা সন্ধ্যার সময় মাথার চুল ছেড়ে হাতে পিঠা নিয়ে যাচ্ছিলো , এই সময় আমি ওরে ধরেছি । আমি তোদের বাসার আসে পাশে বেশ কিছু দিন ঘরে ঘুরছিলাম কিন্তু তোর মা কে সুবিধা মতো পাচ্ছিলাম না বলে ধরতে পারিনি , এই কথা বলে উনি হাসা শুরু করলেন ।
মামা বলল আমার মা কে ছেড়ে দে । তা না হলে সূরা পরে তোর শরীরে আগুন লাগিয়ে দিবো ।
উনি বলল না আমি যাবো না , তুই আমার আঙ্গুল ছাড় ,
এই রকম কথা বার্তা চলছিল তাদের মধ্যে । এক পর্যায় মামা বলল তোর বাসা কোথায়? আর তুই কি করলে মা কে ছেড়ে দিবি?
উনি বলল আমার বাসা ওই দিন যে বট গাছে ওরে পেয়েছিলো ওখানে । আমরা ৭ ভাই ২ বোন । আমাকে যদি মিষ্টি পান এনে দিস তাহলে আমি চলে যাবো ।
মামা বলল ঠিক আছে পান এনে দিচ্ছি তুই চলে যা ।
না , আগে এনে দে তার পর ।
এই বলে মামা উঠে চলে গেলেন আর আমাকে বললেন যেন আমার তার হাতের শেষের আঙ্গুল চাপ দিয়ে ধরি । আমি খুব ভয় পাচ্ছিলাম । মামা বলল ভয় নাই তুমি আঙ্গুল ধরে রাখলে কিছু করতে পারবে না । আমি আঙ্গুল জোরে চাপ দিয়েই ধরলাম । উনি তখন আমার দিকে তাকিয়ে হাসছিল । আর কি ভাষায় যেন কথা বলছিলো আমি ঠিক বুঝতে পারছিলাম না ।
মামা বেশ কিছুক্ষণ পর পান নিয়ে আসলো । মামা বলল তুই যে যাবি এর প্রমাণ কি ?
তখন বলল যখন আমার মুখে পান ঢুকবে তখন তোরা আমার সামনে থেকে সরে যাবি , আর যাওয়ার সময় আমি তোদের গাছের একটা কাঁঠাল ফেলে দিয়ে যাবো ।
তখন আবার ছিল গ্রীষ্ম কাল । গাছে প্রচুর কাঁঠাল ।
নানু মুখে পান দিলো আর কিছুক্ষণ পর উনার শরীর ঘাম দিয়ে একদম ঠাণ্ডা হয়ে গেলো । আর উনি অজ্ঞান হয়ে পড়লেন । আর কিছুক্ষণ পর নিচে একটা কাঁঠাল পড়ার শব্দ পেলাম । বুঝতে পারলাম নানুকে জ্বীন ছেড়ে দিয়েছে । বেশ কিছুক্ষণ পর উনার জ্ঞান আসলে আমি উনাকে প্রশ্ন করি নানু কি হয়েছিল ? উনি বলে কোথায় কি হয়েছিল , পরে উনাকে সব ঘটনা খুলে বলা হয়েছিল ।

এই ছিল আমার ঘটনা । যার সাক্ষী আমি নিজে । হয়তো আপনাদের অনেকের সাথে আমার ঘটনা মিলবে । কারো নানু , দাদু বা মায়ের সাথে এমন ঘটনা ঘটতে পারে ।

চলবে

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

রবীন্দ্রমানসজাত বাংলাসাহিত্যের এক আগন্তুক কারুশিল্পী

Abdul Mueez

হাওর এক্সপ্রেস – পর্ব 2

Rohit Khan fzs

জীবন যেখানে বন্দি (শেষ পর্ব)

Pritom pallav

2 comments


Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208

Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208

Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208

Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208
Ashraful Kabir June 13, 2017 at 12:22 pm

Osthir kahini


Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208

Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208

Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208

Warning: trim() expects parameter 1 to be string, object given in /nfs/c12/h08/mnt/215533/domains/footprint.press/html/wp-includes/class-wp-user.php on line 208
Mohammad Johirul Islam June 14, 2017 at 8:20 pm

dhonobad

Login

Do not have an account ? Register here
X

Register

%d bloggers like this: