Now Reading
ঢাকার মধ্যে একদিনের আনন্দ ভ্রমণ – পর্ব ২য়



ঢাকার মধ্যে একদিনের আনন্দ ভ্রমণ – পর্ব ২য়

মানুষের জীবনের সবচেয়ে আনন্দের সময় গুলো কাটে যখন সে তার পরিবার কে সময় দেয় । সময়টা তখন আরো আনন্দের হয় যখন সেই পরিবার কে নিয়ে বাহির থেকে ঘুরে আসে । ব্যস্ততার জীবনে সময় বের করা খুব কষ্টের হয়ে পড়ে । যত টুকু সময় বের করা হয় সেই সময় যদি পরিবারের সাথে কাটানো যায় তাহলে নিজে মধ্যে রিফ্রেশ একটা ভাব আসে ।

আমি আগের পর্বে ঢাকার মধ্যে কিছু জায়গা দেখিয়ে ছিলাম , যেখানে আপনি চাইলে এক দিনের মধ্যে আপনার প্রিয় মানুষ বা পরিবার কে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন । আজ আমি আপনাদের আরো কিছু জায়গা এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো । সামনে ঈদ আসছে , ইচ্ছে করলে আপনি ঘুরে আসতে পারেন এই জায়গা গুলো ।

 

সাফারি পার্ক

গাজীপুরের সাফারি পার্ক – ঢাকার অদূরে অবস্থিত এই সাফারি পার্ক । ঢাকা থেকে যেতে আপনার সময় লাগবে মাত্র ১ ঘণ্টা । ঢাকা থেকে ৪০ কিলো মিটার দূরে অবস্থিত । বাংলাদেশের অন্যতম বিশাল সাফারি পার্ক হচ্ছে এটি । মোট ১২২৫ একর জমির উপর তৈরি করা হয়েছে এই পার্কটি । আন্তর্জাতিক মানের একটি পার্ক যেখানে বন্যা প্রাণীদের সংরক্ষণ করা হয়েছে । বন্যা প্রাণীরা খোলা মেলা পরিবেশ বেড়ে উঠছে । খাঁচার প্রাণী সব উন্মুক্ত করা হয়েছে । ভেতরে প্রবেশ করলে আপনি বাস পাবেন । সেখান করে ঘুরে দেখতে পারেন সম্পূর্ণ পার্কটি । বাস আপনাকে ঘুরে দেখাবে তাদের এই পার্ক । এখানে প্রবেশ মূল্য একটু অন্য রকম । মানে বড়দের জন্য প্রবেশ ফি ৫০ টাকা আর ছোট দের জন্য ২০ টাকা । আর আপনি যদি বাসে করে ঘুরতে চান তাহলে আপনাকে গুনতে হবে ১০০ টাকা । আপনি যদি ক্রাউন এভিয়ারি ঘুরতে চেনা তাহলে আপনাকে গুনতে হবে ১০ টাকা মানে আপনি যেকোনো এভিয়ারি প্রবেশ করলে আপনাকে ১০ টাকা করে দিতে হবে । আপনি শ্রীপুর গামী যেকোনো বাসে উঠে যেতে পারেন । বাস আপনাকে নামিয়ে দিবে বাঘের বাজারে । সেখান আপনি অটো পাবেন ।অটো কে বললেই হবে তারা আপনাকে পার্কে নামিয়ে দিবে । অটো তে করে যেতে সময় লাগবে ২০ মিনিট ।

নুহাস পল্লী

 

গাজীপুরের নুহাশ পল্লী – বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদ এর নুহাশ পল্লীর নাম শুনেন নাই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল ।সামনে ঈদ আসছে । আপনি ইচ্ছা করলে আপনার পরিবার কে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন নুহাশ পল্লী থেকে । ঢাকা থেকে আপনাকে প্রথমে গাজীপুর যেতে হবে । ভালো হবে আপনি যদি গুলিস্তান থেকেই রওনা দেন । তা ছাড়া আপনি অন্য যে কোনো জায়গা থেকে যেতে পারেন । আপনি যেখান থেকে যান না কেন আপনাকে নামতে হবে গাজীপুরের পাড়াবাজারে । ড্রাইভার কে বললে ড্রাইভার আপনাকে নামিয়ে দিবে । সেখান থেকে আপনি সি এন জি বা অটো তে করে চলে আসুন নুহাশ পল্লী । আপনাকে প্রবেশ মূল্য পরিশোধ করে ভেতরে ঢুকতে হবে । প্রবেশ মূল্য ধরে হয়েছে ২০০ টাকা । ভেতরে আপনার জন্য অপেক্ষা করছে সবুজে ঘেরা পরিবেশ । সেই সাথে পুকুর , পিকনিক স্পোর্ট । হরেক রকমের গাছ আপনি দেখতে পাবেন । তাছাড়া আপনি আরো দেখবেন গাছের উপরে বাসা বানানো । বৃষ্টি বিলাস নামের একটি সুন্দর বাড়ি ।

 

আহসান মঞ্জিল

আহসান মঞ্জিল – পুরান ঢাকার ইসলামপুরে ঠিক বুড়িগঙ্গা নদীর পাশে রয়েছে নবাবদের বাড়ি আহসান মঞ্জিল । নবাব আহসান এর নাম । পুরান ঢাকার একটি ঐতিহ্যবাহী একটি জায়গা ।এই বন্ধে আপনি ঘুরে আসতে পারেন এখন থেকে । আহসান মঞ্জিল যেতে হলে আপনাকে আসতে হবে সদরঘাট । সদরঘাট বা ভিক্টোরিয়া পার্ক গামী যেকোনো বাসে উঠলে আপনাকে নামিয়ে দিবে কোর্টকাছারি । সেখান থেকে আপনি ইচ্ছা করলে হেঁটে যেতে পারবেন অথবা ইচ্ছা করলে আপনি রিকশা করতে যেতে পাবেন । আহসান মঞ্জিল প্রবেশ করতে হলে আপনাকে টিকিট কিনতে হবে । টিকিট এর মূল্য ২০ টাকা । আর অপ্রাপ্তদের জন্য প্রবেশ মূল্য ১০ টাকা । প্রবেশের মুখে আপনাকে জমা দিতে হবে আপনার ব্যাগ । আপনি ভেতরে কোনো ধরনের ক্যামেরা ব্যবহার করতে পারবেন না । ভেতরে আপনার জন্য অপেক্ষা করছে নবাব দের ব্যবহার করা বিভিন্ন জিনিস পত্র । বিশেষ করে আপনাকে অবাক করবে বিশাল হাতির মাথা । অনেক বছর আগের এই হাতির মাথা কে সংরক্ষণ করে রেখেছে তারা । তা ছাড়া আপনি দেখতে পাবেন তাদের খাবার রুম সহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ।

 

লালবাগ কেল্লা

লালবাগ কেল্লা – পুরান ঢাকার আরেকটি ঐতিহ্যবাহী জায়গা হলো লালবাগ কেল্লা । মোগল আমলের তৈরি একটি দুর্গ । পরীবিবির মাজার এখানে অবস্থিত । আপনাকে প্রথম আসতে হবে গুলিস্তানে । সেখান থেকে আপনি রিকশা অথবা লেগুনা যোগে চলে যেতে পারেন পুরান ঢাকার লালবাগে । কেল্লার নাম অনুসারে রাখা হয় এই জায়গার নাম । আপনি ভেতরে বাগান ও বিশাল বড় একটি দীঘি দেখতে পাবেন । বর্তমানে সেখানে পানি নেই । এই দীঘিকে পরীবিবির দীঘি বলা হয় । আপনি ভেতরে একটি সুড়ঙ্গ দেখতে পাবেন । এই সুড়ঙ্গ কে নিয়ে আছে অনেক রকমের গল্প ।তাছাড়া ভেতরে জাদুঘর ও আছে । সকাল ১০ টা থেকে খোলা থাকে । প্রবেশ মূল্য বড় দের জন্য ২০ টাকা আর ছোটদের জন্য ১০ টাকা । সাপ্তাহিক বন্ধ রবিবার ।

চলবে

About The Author
Rohit Khan fzs
Rohit Khan fzs
বি.এস.সি করছি ইলেকট্রনিক এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং। লিখতে ভালবাসি। নতুন নতুন মানুষদের সাথে পরিচিত হতে পছন্দ করি।

You must log in to post a comment