Now Reading
মানুষকে যেন আমরা মানুষই মনে করি।



মানুষকে যেন আমরা মানুষই মনে করি।

আমাদের দেশে বিত্তের বন্টন অসম। উন্নয়নশীল এই দেশের সিংহভাগ মানুষ চোখের সামনে দেখতে পায় গ্রামের,পাড়ার কিংবা পাশের ফ্ল্যাটের আরেকজন সম্পদশালী মানুষ দুইহাত ভরে খরচ করছে। আজ টিভি তো কাল ফ্রিজ তো পরশু পাকা বাড়ি করছে। ছেলে মেয়ের জন্যে ইচ্ছেমতো জামা কাপড় কিনছে। কিন্তু অধিকাংশ মানুষের পক্ষেই সম্ভব হচ্ছে না এমন স্বাচ্ছন্দ পূর্ণ জীবন যাপন করা। আমার গাড়ির জানালায় টোকা দিয়ে মলিন মুখে সাহায্য চাওয়া বর্ষীয়ান মানুষটার চোখের দিকে সরাসরি তাকাতে পারিনা আমি অনেক দিন হলো। তাকালেই নিজেকে মনে হয় অন্যায় রকম ভালো আছি আমি। মোড়ে মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকা বিভিন্ন বয়সের হাত পেতে থাকা মানুষদের আমি খুব গভীরভাবে দেখি। শ্রদ্ধার চোখেই দেখি। প্রায়ই ভাবি আমার অতীত কিছুটা অন্যভাবে লিখা হলে হয়তো আজ আমিও এভাবে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আমার পরিবার এর স্বাচ্ছন্দের জন্যে মানুষের কাছে হাত পেতে দাঁড়িয়ে থাকতাম। খুব বেশি ড্রামাটিক মনে হলেও এমনটা কিন্তু হতেই পারতো। আমি ভাগ্যবান যে তা হয়নি। ব্যক্তি পর্যায় থেকে এই বিশাল সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। একার পক্ষে হাজার হাজার মানুষকে সাহায্য করা অসম্ভব। দেশের অর্থনীতির উন্নতি নাহলে কখনোই এতো বিশাল জনগোষ্ঠীকে আর্থিক নিরাপত্তা দেয়া সম্ভব নয়। রাষ্ট্রকে এর দায়িত্ব নিতেই হবে। একটা ষাট বছর বয়সী অসুস্থ নারী বা একটা ৪ বছর বয়সী শিশু দুপুরে কড়া রোদে শহরের রাস্তায় দাঁড়িয়ে মানুষের কাছে হাত পেতে যাচ্ছে কয়েকটা টাকার জন্যে ,স্যার দেন না কয়েকটা টেকা দেন না বলে বলে গলা শুকিয়ে কাঠ করে ফেলছে, বারবার প্রত্যাখ্যাত হচ্ছে, তারপরও হাত পেতে যাচ্ছে। পেটের দায়ে হয়তো ভুয়া অপারেশন এর সনদ দেখাচ্ছে কিংবা অন্য কোনো অজুহাত দেখাচ্ছে, কিন্তু অনেকেই সেটা করছে নিরুপায় হয়ে। আমাদের অর্থনীতি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্যে যথেষ্ট কর্মসংস্থান করতে পারেনি বলেই তারা আজ রাস্তায় দাঁড়িয়ে অন্যের করুণা চাইছে। দূর দূর করে তাড়িয়ে না দিয়ে শ্রদ্ধার চোখে একবার হাসি দিয়ে বললেই ওদের অনেকটা কষ্ট কমে যাবে। একটা মানুষ আরেকটা মানুষের কাছে করুণা চাওয়ার আগে নিজের আত্মসম্মানের শেষ অংশটুকুও ফেলে আসে দূরে কোথাও। আমরা যারা এমন অসম বিত্তের দেশে আর্থিক ভাবে ভালো আছি তাদের প্রতি একটাই অনুরোধ আমার যারা এখনো সামান্যতম আর্থিক মুক্তি পাননি তাদেরকে যেন অন্তত শ্রদ্ধার চোখে দেখি আমরা। মানুষকে যেন মানুষই মনে করি আমরা।

About The Author
Tanbir A. Ador
Tanbir A. Ador
1 Comments
Leave a response

You must log in to post a comment