Now Reading
ঢাকার ঐতিহ্যবাহী কিছু মসজিদ !



ঢাকার ঐতিহ্যবাহী কিছু মসজিদ !

ঢাকা কে মসজিদের নগরী বলা হয় ।ঢাকার মতো এতো মসজিদ বাংলাদেশের কোথাও নেই । আপনি যদি সত্যিকার অর্থে মসজিদের নগরী দেখতে চান থামলে আপনাকে যেতে হবে পুরান ঢাকায় । আপনি কিছু দূর যাওয়া মাত্র একটি করে মসজিদ দেখতে পাবেন । পুরান ঢাকার যখন এক সাথে সব মসজিদ আজান দেয়া শুরু করে , আপনি দ্বিধায় পরে যাবেন এইভাবে যে কোনটা কোন মসজিদের আজান ।

আজ আমি সেই রকম ঢাকার মধ্যে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী কিছু মসজিদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো । যদি কখনো সময় হয় আপনাদের ইচ্ছে করলে সেখানে গিয়ে নামাজ পড়ে আসতে পারেন ।

১- তাঁরা মসজিদ – পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় অবস্থিত তাঁরা মসজিদ । ঢাকা শহরে যত গুলো ঐতিহ্যবাহী মসজিদ আছে তার মধ্যে আরমানিটোলার তাঁরা মসজিদ অন্যতম । ইন্টারনেট ও স্থানীয় লোকদের থেকে জানা যায় এই মসজিদটি নির্মাণ করা হয় আঠারো শতকের দিকে মানে ইংরেজদের আমলে । লোক মুখে শুনা যায় মির্জা গোলাম পীর এই মসজিদটি নির্মার করেন । এই মসজিদের নাম তাঁরা মসজিদ হওয়ার কারণ হলো , এই মসজিদের সাদা মার্বেল পাথরের গায়ে অসংখ্য তাঁরা আঁকা রয়েছে । আর এর থেকে তার নাম করুন করা হয় তাঁরা মসজিদ । মসজিদের প্রবেশ পথে আপনার চোখে পর্বে বিশাল আকৃতির একটি তাঁরা । মূলত এই ঝর্ণা । বিকেল বেলা ঝর্ণা ছাড়া হয় । মাঝে মাঝে মানুষ নামাজ পড়ে এসে এখানে বসে । প্রথম দিকে তিনটি গম্বুজ থাকলেও পরবর্তী কালে আরো ২টি গম্বুজ নির্মাণ করা হয় । এখন সর্বমোট ৫টি গম্বুজ আছে । প্রথম দিকে মসজিদটি অনেক সারা মাটা ছিল । পরবর্তী কালে এই সংস্করণ করুন করে বর্তমান রূপ দেয়া হয় । মসজিদের পিছনের বাম সাইডে রয়েছে একটি কবরস্থান । মির্জা সাহেবকে এখানে করব দেয়া হয়েছিল . লোক মুখে জানা যায় মসজিদের প্রথম ইমাম কে এখানে কবর দেয়া হয়েছিল । প্রথম অবস্থায় মসজিদ এর আকার ছোট থাকলো পরবর্তী কালে এর আকৃতি বড় করা হয়েছে । প্রতিদিন এখানে হাজারো দেশি ও বিদেশী দর্শনার্থী ঘুরতে আসেন । আপনি ও ইচ্ছে করলে ঘুরে আসতে পারেন তাঁরা মসজিদ থেকে , আর পুরান ঢাকার খাবার খেতে ভুলবেন না । তাঁরা মসজিদ থেকে একটু সামনে এগিয়ে গেলে আপনি পাবেন ফুচকার দোকান । ঢাকার অন্যতম বিখ্যাত ফুচকার দোকান ।

তাঁরা মসজিদ

২- লালবাগ শাহী মসজিদ – লালবাগ যেমন লালবাগ কেল্লার জন্য বিখ্যাত , ঠিক অপর দিকে লালবাগ শাহী মসজিদ এর জন্য বিখ্যাত ।প্রায় ৩০০ বছর আগের এই মসজিদ । এর নির্মল কাল ১৭০৩ সাল। ১৭০৩ সালের দিকে ফারুক এই মসজিদটি নির্মার করে থাকেন । ঢাকার মধ্যে যেসব বড় মসজিদ আছে তার মধ্যে এটি অন্যতম , এই মসজিদে এক সাথে প্রায় ১৫০০ লোক নামাজ পড়তে পারে । এই মসজিদের মূল নকশা ঠিক রেখে বহুবার সংস্করণ করা হয় । এই মসজিদের কিবলার উপর দিকে একটি গম্বুজ আছে । যা সচরাচর দেখা যায় না । এর মসজিদের আয়তনের দিক থেকে অনেক বড় । প্রতিবার সংস্করণের সময় মসজিদের আয়তন বৃদ্ধি করা হচ্ছিলো । এই মসজিদের প্রত্যেকটা মিহবারের দিকে ৩ টি করে প্রবেশ পথ রাখা হয়েছে । আপনি যখন লালবাগ কেল্লা ঘুরতে যাবেন তখন ইচ্ছে করলে এই জায়গা ঘুরে আসতে পারেন । আর লালবাগ কেল্লার বিখ্যাত খেতে পুরি আপনি এখানে পাবেন । ঘুরে ঘুরি শেষে ইচ্ছে করলে খেতে দেখতে পারেন ।

লালবাগ শাহী মসজিদ

৩- বিনত বিবির মসজিদ – বিভিন্ন তথ্যমতে ঢাকার সবচেয়ে পুরাতন মসজিদ হিসেবে বিনত বিবির মসজিদ কে ধরা হয় । বিনত বিবির মসজিদ তার নির্মাতা বিনত বিবির নাম অনুসারে রাখা হয়ে । পুরান ঢাকার নারিন্দায় এই মসজিদের দেখা পাওয়া যায় । ১৪৫৭ সালে মারহামাতের মেয়ে মুসাম্মাত বখত বিনত বিবি এটি নির্মাণ করেন । প্রায় ৬০০ বছর পুরাতন এই মসজিদ । আগে যখন মানুষ বাংলায় ব্যবসা করতে আসতো তখন এই মসজিদে নামাজ পড়তো । কারণ নারিন্দায় ছিল বুড়িগঙ্গা নদীর শাখা । বিভিন্ন বার এই মসজিদকে সংস্করণ করা হয়ে । বিনত বিবি কে মসজিদের পাশে শায়িত করা হয় । প্রথম দিকে দুইতলা থাকলেও পরবর্তী কালে সংস্করণ করে উপরের দিকে ৩ তলা করা হয় । নারিন্দা গেলে আপনি ভুলেও বিউটির লাচ্ছি খেতে ভুল করবেন না । ঢাকার যত লাচ্ছি আছে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো এই বিউটির লাচ্ছি ।

বিনত বিবির মসজিদ

৪- চক বাজার শাহী মসজিদ – এটি বাংলার এমন একটি মসজিদ যা উদ্বোধন করেছিলেন বাংলার শেষ নবাব শায়েস্তা খাঁ । চক বাজার শাহী মসজিদ চক বাজারে অবস্থিত । বর্তমানের এর আয়তন আগে থেকে বৃদ্ধি করে দ্বিগুণ করা হয়েছে ।এটি প্রায় চারশো বছর আগের মসজিদ । আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য যে এটি তার আগের যে নির্মাণ হারায় । মানে আগে যেভাবে নির্মাণ করা হয়েছিল , বর্তমানে সংস্কার করে তা পরিবর্তন করে দেয়া হয়েছে । প্রথম দিকে তিনটি গম্বুজ নিয়ে মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছিল । মসজিদের আয়তন ছোট হওয়ার কারণে সামনের দিকে যে জায়গা রাখা হয়েছিল , পরবর্তী কালে সেই জায়গায় মসজিদ এর কিছু অংশ নির্মাণ করা হয় ।

 চক বাজার শাহী মসজিদ

 

তথ্যসূত্র :

১- https://bn.wikipedia.org/wiki/

২-http://bn.banglapedia.org

৩- http://parjatan.portal.gov.bd/site/page/2e69b14b-6f96-4606-9fba-dbc70fc411b5

৪- https://bn.wikipedia.org/wiki/

About The Author
Rohit Khan fzs
বি.এস.সি করছি ইলেকট্রনিক এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং। লিখতে ভালবাসি। নতুন নতুন মানুষদের সাথে পরিচিত হতে পছন্দ করি।
3 Comments
Leave a response

You must log in to post a comment