খেলাধূলা

সৌম্য সরকার জলন্ত আগুন

বাংলাদেশের ওপেনিং ক্রিকেটার সৌম্য সরকারের নতুন চমক । বাংলাদেশ ক্রিকেটার সৌম্য সরকার ১৯৯৩ সালের ২৫ শে ফেব্রুয়ারি সাতক্ষীরা আশাল্তনি উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার মশিয়াডাংগা গ্রামে জন্মগ্রহন করেন । সৌম্য সরকারের বাবা কিশোরী মোহন সরকার ,তিনি জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন । সৌম্য সরকারের পুরো নাম সৌম্য শান্ত সরকার । ছোটবেলা থেকে সৌম্য সরকার খেলাধুলার প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং লেখাপড়ার প্রতি বিরুপ অনিহা স্থাপন করেন । সৌম্য সরকারের খেলার প্রতি মনোযোগ দেখে ,বাবা কিশোরী মোহন সরকার তাকে জেলা ক্লাবে ভর্তি করেন । জেলা ক্লাবে কিছুদিন খেলার পর , সৌম্য সরকারের বাবা সৌম্য সরকারকে ঢাকা নিয়ে ‘বিকেএসপি’ ক্লাবে ভর্তী করেন । সেখান থেকেই সৌম্য সরকার আজ বাংলাদেশ ক্রিকেটের নতুন মুখ হিসেবে দেখা দেয় । সৌম্য সরকার বাংলাদেশের উদিয়মান ক্রিকেটারদের মধ্য একজন । সৌম্য সরকার তার ব্যাট থেকে বাংলাদেশকে অনেক জয় এনে দিয়েছে এবং বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমী দর্শকদের মনে শ্রেষ্ঠ স্থান দখল করে রয়েছেন । সৌম্য সরকার তার খেলায় শুধু মাত্র বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমীদের মনে স্থান করে নিয়েছেন তা নয় , বিশ্বের অনেক দর্শকের মনে সৌম্য সরকার বাংলা বাঘ । তার গর্জনে ভয় পায় সকল কিছু ।গত কয়েকটি টুনামন্টে সৌম্য সরকারের ভাল না খেলার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ,ফেসবুক,টুইটার ও বিভিন্ন গনমাধ্যমে সৌম্য সরকারের প্রতি বিরুপ আচারন দেখা যায় । ক্রিকেট প্রেমী দর্শকা যোগাযোগ মাধ্যমে লেখেন যে, সৌম্য সরকারকে বাংলাদেশ ক্রিকেট থেকে সরিয়ে রাখা হোক । ক্রিকেট প্রেমীরা জানেন এবং বুঝেন যে , সব সময় ভালো যায় না । আজ ভালো তো কাল খারাপ হতে পার । তবে কেন মেনে নেই না ।
গত কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তজা বলেন , সৌম্য আমাদের অনেক ম্যাচ জিতিয়েছেন । দেখা গেছে যে ম্যাচে সৌম্য রান করেছে সেই ম্যাচে আমরা জয় পেয়েছি , তাছাড়া বাংলাদেশের প্রত্যেক ক্রিকেটার নিজ নিজ দায়িত্ব নিয়ে খেলে । এমন খেললে অবশ্যয় আমরা সফল হবো । তাছাড়া যে ছেলেটির স্ট্রাইক রেট ১০২.০৬ এবং এই পর্যন্ত এখনেো ৪০ এর বেশি একনমি ।
ক্রিকেট প্রেমীরা ক্রিকেট দেখে ভালো কথা তবে ক্রিকেটে জয়-পরাজয , ভালো-মন্দ আছে এটা তো মেনে নিতে হবে । বিশ্বের বিভিন্ন ক্রিকেটার তার ছন্দ হায়িয়েছে আবার ছন্দ ফিরেও পেয়েছে তবে কিছু সময়ের তাগিদে । বিশ্বের চাম্পিয়ান দল ভারত বাংলাদেশের কাছে পরাজিত হয়েছে তাই এই নয় যে ,তারা চাম্পিয়ানত্ব হারিয়েছে । শুধু মাত্র ভারত নয় বিশ্বের ভাল ভাল দল বাংলাদেশের কাছে পরাজিত হয়েছে এবং জয় পেয়েছেন । সৌম্য সরকার ঠিক তেমনি আবার তার ছন্দে ফিরে আসতে কতক্ষন !
এটা হয়তো বিশ্বাস করা কঠিন হবে , তবুও বিশ্বাস করতে হবে । বাংলাদেশের গ্রাম ও শহরের ক্রিকেট প্রেমী লোকজন সৌম্য সরকারের ব্যাটের দিকে তাকিয়ে থাকে । আমি আনেক খেলা দেখেছি গ্রামের ছোট ছোট চায়ের দোকানে , সেখানে শুধুমাত্র সৌম্য সরকারেরে দিকেই দর্শকরা তাকিয়ে থাকে । সৌম্য সরকার বড় শট খেললে দর্শকরা তাকে বলে সৌম্য বাংলাদেশরে একমাত্র প্লেয়ার । সৌম্য ছাড়া কেউ ছয় মারতে পারেনা , সৌম্য ব্যাটে থাকলে ছয় হওয়ার তাকে না থাকলে না । গ্রামের লোকজন ক্রিকেট দেখে তবে সৌম্য সরকার যে পর্যন্ত মাঠে থাকে । সৌম্য সরকার যে কোন কারণে আউট হয়েগেলে , চায়ের দোকানে অন্ধকার নেমে আসে । তারা মনে করেন সৌম্য- তামিম জুটি মানে বাংলাদেশের জয় ।
যাহারা ক্রিকেটারদের নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন , তাদের বলছি খেলা দেখেন শেষ পর্যন্ত দেখেন , খেলার আবস্থা যে কোন সময় পরিবর্তন হতে পারে । তবে খেলা দেখার আগে এটা মেনে নিয়ে খেলা দেখতে বসবেন যে, খেলায় জয়- পরাজয় আছে । আমি সৌম্য সরকারের ভক্ত তাই এই নয় যে , সৌম্য সরকার আউট হয়েগেলে খেলা দেখা বাদ দিই । যদি এক ওভারে ৫০ রান দরকার হয় বাংলাদেশের জয় ছিনিয়ে আনতে তবুয়ো আমি খেলা দেখি ।
নিউজিল্যান্ডরে সঙ্গে খেলে সৌম্য তেমন কোন সফলতা পায় নি । কেননা, সৌম্য সরকার নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে খেলায় ওয়ানডে ভাল করতে পারেনি ব্যর্থ হয়েছেন , টেস্টে ভালই খেলেছেন , টি২০ মোটামুটি ভালই খেলেছেন । সৌম্য সরকারের এই রানের খরা এখনো সৌম্য সরকারের কাটিয়ে উঠতে পারিনি । যাইহোক ভালো তো সব সময় ভালো থাকেনা , ভালো খারাপে পরিবর্তন হয় ।
সৌম্য সরকারের আইসিসি ‘তে বর্তমান অবস্থান নিম্নে দেওয়া হলো ।
মোট টেস্ট ম্যাচ ৭ টা, ইনিংস ১৩ ,রান ৪৮১ ,এভারেজ ৩৭ ,স্ট্রাইক রেট ৬২.১৪
মোট ওয়ানডে ম্যাচ ৩১ টা, ইনিংস ৩০ ,রান ৯৫৯, এভারেজ ৩৫, স্ট্রাইক রেট ৯৭.০৬
মোট টি২০ ম্যাচ ২৪ টা ,ইনিংস ২৪, রান ৪৪৩, এভারেজ ১৮.৪৬ ,স্ট্রাইক রেট ১২৩.০৪
সৌম্য সরকারের স্ট্রাইক রেট, এভারেজ ,রান তুলনামুলক ভাবে অনেক এগিয়ে রয়েছে । বাংলাদেশের খুব কম খেলোয়ারি আছেন যাদের খেলার নকশা এমন সফলতম ।এত অল্পদিনে এত কোন খেলোয়ার এত এগিয়ে আসতে পারেনি , যেটা সৌম্য সকরার পেরেছে । ব্যাটিং যে সফলতা সৌম্য সরকারের বোলিংও ঠিক তেমনি সফলতা অনতে পারে । গত বেশকিছু ম্যাচে বোলিং করে সৌম্য সরকার ভালই সফলতা পেয়েছেন । সৌম্য সরকার শুধুমাত্র ব্যাটিং নয় বোলিংও । তবে কেন সৌম্য সরকারকে বোলিং করানো হয় না । সৌম্য সরকারকে দিয়ে বোলিং ব্যাটিং করালে বাংলাদেশ ভালো মানের একটা অলরাউন্ডার পেতে পারে । বিশ্বের বড় বড় দল গুলো যেমন অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড , নিউজিল্যান্ডের দিকে তাকালে দেখা যাবে তাদের একমাত্র অস্ত্র ফার্স্টবলিং অলরাউন্ডার । তবে কেন বাংলাদেশে ফার্স্টবলিং অলরাউনাডার হবে না ? বর্তমানে সৌম্য সরকারের টেকনিকে মুগ্ধ ও’নিল । সৌম্য সরকারের শারীরিক চর্চা এমন অবস্থানে রয়েছে যে, যে কোন সময় সৌম্য সরকার গোলাবারুদ্দের মত ফাঁটতে পারে । সৌম্য সরকারকে নিয়ে নতুন করে ভাবছেন টিম পরিচালকরা । সৌম্য সরকারের কাছে টিম পরিচালকের যে পাওয়ার তা হয়তো এবারি সুদে- আসলে পরিশোধ করবেন সৌম্য । সৌম্য সরকারকে নিয়ে সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে আলোচনার ঝড় উঠেছে তার অবসান ঘটানার সময় এসেছে বা আসছে । এই সময়কে কাজে লাগাতে পারলেই সৌম্য সরকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নায়ক হয়ে উঠবেন । সৌম্য সরকারের আগামী দিন গুলো, বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য সোনালী সকালে পরিনত হোক । সৌম্য সরকার এবং পুরো বাংলাদেশ ক্রিকেটার ও বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য আমার শুভ কামনা রইল ।

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

ফিনিশারঃমাইকেল বেভান

Atikur Rahman Titas

ধ্বংসস্তূপ থেকে বের হয়ে আসলো বাংলার বাঘ

Rohit Khan fzs

দিনে দিনে বহু বাড়িয়াছে দেনা,শুধিতে হইবে ঋণ!

AH Arman

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy