অন্যান্য (U P)

গুগল এবং ফেসবুক দিয়ে নতুন কি কি করা যায়

ইন্টারনেট জগতে গুগল এবং ফেসবুক হচ্ছে সবচেয়ে জনপ্রিয়, মজার কিছু জিনিস শেয়ার করা হলো যা খুবই গুরুত্বপূর্ন এবং মজাদার একটি ব্যাপার। প্রথমে আসি গুগলের কথায়। সার্চ এর দিক দিয়ে গুগল বিখ্যাত। গুগল.কম এ যেয়ে আপনি

যেকোন বিষয়ে সার্চ দিলেই সঙ্গে সঙ্গে আপনি যেকোন বিষয় সম্পর্কে তথ্যাদী পেয়ে যাবেন।

google vs facebook.jpg

ইচ্ছাকরলে যেটা সার্চ দিয়েছেন সেটার ছবি অথবা ভিডিও আপনি খুব সহজে সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে দেখতে পারবেন।

গুগলের ইমেইল সার্ভিস ও অনেক জনপ্রিয় এবং বাংলাদেশের ৯০% মানুষ গুগলের ইমেইল ব্যাবহার করে এবং ইমেইল এর বাম দিকে যে গুগল টেক্স থাকে সেটা ব্যাবহার করে আবার এই টেক্স ম্যাসেজ সম্পর্কে অনেকে এখনও হয়তবা জানেই না। আপনার যদি কয়েকটি মোবাইল ফোন থাকে তাহলে আপনি আপনি কয়েকটি ইমেইল এড্রেস খুলে রাখতে পারেন কিন্তু পাসওয়ার্ড মনে রাখতে হবে বা ডায়েরীতে লিখে রাখতে পারেন। অনেকের আবার ৩০ বা ৪০ টা ইমেইল ঠিকানাও আছে যা শুনলে আশ্চর্য লাগে। কোন কারন ছাড়াই অনেকগুলো ইমেইল ঠিকানা করে রাখে।

গুগল ড্রাইভ একটি খুব জনপ্রিয় গুগলের সার্ভিস কিন্তু এই ব্যাপারটা এখনও অনেকে জানে না। এটা একটা পেন ড্রাইভের মত কাজ করে। বর্তমানে গুগল ১৫ জিবি পর্যন্ত ফ্রি স্পেস দিচ্ছে যা অনেক কার্যকরী একটি ব্যাপার। গুগল ড্রাইভে যেকোন ফাইল, ফটো, ভিডিও রাখা যায়। যার ফলে গুরুত্বপূর্ণ ফাইল গুলো এখন আপনি আপনার ড্রাইভে পাবেন। এটা অনেকটা কপি পেষ্টের মত ব্যাপার।

ওকে গুগল দিয়ে খুব সহজে মোবাইল দিয়ে আপনি যেকোন নির্দিষ্ট বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন। সেটা হতে পারে যেকোন বিখ্যাত ব্যাক্তির নাম, কোন অজানা বিষয় সম্পর্কে তথ্য ইত্যাদী সম্পর্কে আপনি জানতে পারবেন। সেক্ষেত্রে গুগলের এসিটেন্ট আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করে থাকে। তবে আপনার বলা যদি ভুল হয় তাহলে গুগল  এসিষ্টেন্ট ভুল উত্তর দিয়ে থাকে।

https://www.google.com/photos/about/   এ গেলে আপনি গুগলের খুব সুন্দর গ্যালারী পাবেন আবার যারা এন্ড্রয়েড ফোন ব্যাবহার করেন তারা মোবাইলে কোন ছবি তুললে স্বয়ংক্রিয় ভাবে তা ফটো গ্যালারীতে সেভ হয়।  তবে ইচ্ছা করলে বাছাই করা ছবিও গুগলের  একাউন্টে ফটো গ্যালারী করা যায়। সেক্ষেত্রে শুধু ভাল ছবি গুলোই আসে।

গুগলে আপনি আপনার কাঙ্খিত লোকেশন দেখতে পারবেন এমনকি রাস্তাঘাটসহ দেখা সম্ভব হয়। গুগল ম্যাপে আপনি আপনার বাসা, যেকোন গন্তব্য যেখানে আপনি যেতে চান সেই জায়গার ঠিকানা ছবিসহ দেখা যায়। গুগলের ম্যাপ দিয়ে লোকেশন ট্রাক করা যায়।

 

গুগলের ক্যালেন্ডার ও অনেক সুন্দর এবং সেখানে অনেক ফিচার আছে। ক্যালেন্ডার থেকে আপনি আপনার প্রতিদিন এর কাজের তালিকাও লিখতে পারেন এই ক্যালেন্ডারের মাধ্যমে।

আগে মোবাইল হারিয়ে গেলে কোন নম্বর খুজে পাওয়া যেত না কিন্তু এখন ব্যাপারটি অনেক সহজ হয়ে গেছে।  গুগলে আপনার সব নম্বর সেভ থাকবে এবং তার জন্য আপনাকে গুগলে সাইন ইন করে নিতে হবে।

গুগল যেকোন ভাষাকে এক ভাষা থেকে অন্য ভাষায় পরিবর্তন করার জন্য  ট্রান্সলেট করে থাকে। এ জন্য আপনাকে যেতে হবে গুগল ট্রান্সলেটরে যা গুগলে সার্চ দিলেই পেয়ে যাবেন। যেমন বাংলা থেকে ইংরেজী এবং ইংরেজী থেকে বাংলা ইত্যাদী।

গুগল অনেককে ডলারে পেমেন্ট করে শুধুমাত্র এড এর মাধ্যমে। আপনার যদি একটি সমৃদ্ধ ওয়েবসাইট থাকে তাহলেও আপনি গুগলের সাহায্য নিয়ে আপনি টাকা ইনকাম ও করতে পারেন। তার জন্য বেশী কষ্টও করার দরকার হয় না। তাছাড়াও ইউটিউব ভিডিও গুগলের এডসেন্স এর সাথে এড করে অনেকে ভাল টাকা ইনকাম করছে।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনে গুগলের ভুমিকা অপরিসীম। গুগল দিয়ে কোন একটি প্রোডাক্ট বা জিনিস কতবার দেখা হয়েছে সেটা দেখা যায়।

বর্তমান বাজারে গুগলের মোবাইলও আছে। তবে দাম একটু বেশি কিন্তু জিনিস ভাল মানের।

ফেসবুক দিয়ে অনেককিছু করা যায় যা অনেকে জানেন না। ফেসবুক ওপেন করে আপনি যদি আপনার আঙ্গুলের ছোঁয়া বাম থেকে ডান দিকে নেন অথবা ক্যামেরায় ক্লিক করেন, তাহলে আপনি দেখতে পাবে একটি ক্যামেরা এবং এই ক্যামেরা একটি খুব মজার একটি ক্যামেরা।

বর্তমানে অনেক ছেলে মেয়েকেই দেখতে পাবেন মোবাইলের দিকে তাকিয়ে মুখ হা করে আছে। অথবা হাসছে এবং সেই দৃশ্য আসলেই খুব ইন্টারেষ্টিং। ধরেন আপনার দাড়ি নাই কিন্তু ক্যামেরায় আপনি দেখতে পাবেন আপনার মুখে দাড়ি বা মোছ। এর জন্য আপনি ক্যামেরার বামদিকে একটি জাদুর কাঠির মত দেখতে পারবেন যাকে বলে ইফেক্ট এবং এই জাদুর কাঠি বা ইফেক্ট থেকে বিভিন্ন ফিচার ডাউনলোড হয়ে গেলে আপনি দেখতে পাবেন অদ্ভুত ধরনের ছবি।

প্রথমে যখন আপনি ফেসবুকে ক্যামেরা অপেন করবেন এবং ইফেক্ট এ ক্লিক করবেন তখন প্রাথমিক অবস্থায় ইফেক্ট এ ক্লিক করলেই ইফেক্টগুলো আসবে না কারন প্রথমে ইফেক্টগুলো ইনষ্টল হবে এবং এটা আপনি স্কিনে দেখতে পারবেন কিছু একটা ঘুরছে।

ফেসবুক দিয়ে যে কোন কোম্পানীর প্রোডাক্টের এড দেওয়া যায় এবং সেখান থেকে ইনকাম ও করার একটি সুযোগ থাকে। ফেসবুক শুধু যে লাইক, কমেন্টস, ছবি বা ভিডিও এর জন্য ব্যাবহ্রত হয় তা কিন্তু না ফেসবুক দিয়ে আপনি কিন্তু আপনি আপনার রিসার্চ এর কাজও করতে পারবেন। অনেক প্রোগ্রামাররা বর্তমানে ফেসবুকে বিগ ডাটা টেকনোলজীর ব্যাবহার করে বড় রিসার্সের কাজগুলো করে থাকে।

 

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

বিশ্বাস করো

Salman Nuhash

চোখ নষ্ট হবার জন্য কে দায়ী ?

Abir Hasan

ঈদে ঢাকাই সিনেমার হালচাল

Khalequzzaman Emon

Login

Do not have an account ? Register here
X

Register

%d bloggers like this: