Now Reading
বৃত্ত



বৃত্ত

“বৃত্ত”
-চলে যাচ্ছেন?
-হুম দেখতেই তো পাচ্ছেন
-তা যাচ্ছেন কেনো?
-এখানে আর মন টানছেনা
-নাকি কেউ বিরক্ত করছে?
-হুম ঠিক ধরেছেন
-তাহলে আমার sorry বলা দরকার
-কেনো?
-আপনাকে তো আমি ছাড়া আর কেউ বিরক্ত বলে আমার জানা নেই
-সবই কি আপনার জানার মধ্যে থাকতে হবে?
-থাকলে কি সমস্যা আছে?
-সমস্যা না থাকলেও অভ্যাস নেই
-তা কোথায় যাচ্ছেন?
-বাধা পড়তে চাইনা
-বুঝলামনা
-তাহলে না বুঝার চেষ্টা করাটাই ভালো
-আপনার সব অভ্যাস আমার জানা তবুও আপনাকে বুঝতে পারিনা।আপনার কথাগুলো তারও আগে বুঝিনা
-বললামনা বুঝার চেষ্টাটা না করতে
-কেনো কি এমন রহস্য আপনার?
-আপনি কি আমাকে আটকাতে এসেছেন,তাহলে এই চেষ্টাটা করতে পারেন
-নাহ্ করবোনা
-কেনো?
-এতটুকু বুঝতে পারছি আপনি কোনো বৃত্তের মধ্যে থাকতে চাননা।আপনি অবাধ্য তবে দুষ্টু না।
-হে হে তা যা বলেছেন।
-আচ্ছা আসি।
-ভালো থাকতে বলবেন না?
-যে ভাল থাকতে চায়না তাকে বলতে নেই।আচ্ছা আমি যাই দেরী হয়ে যাচ্ছে।বিদায়।
বিদায় কথাটা আমার বলার ছিলো।কিন্তু তুমি বললে।চলে যাচ্ছি আমি কিন্তু তার আগেই চলে গেলে তুমি।আমি কোনো বৃত্তের মধ্যে থাকতে চাইনা আর তুমি বৃত্তটা ভেঙে দিলে।সবই তুমি করে দিলে আমার জন্যে কি বাকী রাখলে????
ঐ ছোট্ট একটা কুটিরে এসে উঠেছিলাম।বড়ই অগোছালো হয়ে থাকতাম।তুমি আস্তে আস্তে আমার দিকে এগোতে থাকলে।আস্তে আস্তে আমাকে পুরোটাই তোমার বৃত্তের মধ্যে পুরে নিয়েছো।
যে আমি শুধু চলা ছাড়া কিছু বুঝতামনা।আর মাঝে মাঝেই ডুব দেয়া আর কিছুদিন ডুব দিয়ে থেকে আবার চলা শুরু করা।তাই লুকিয়ে লুকিয়ে ঐখানে ডুব দিতে এসেছিলাম আবার লুকিয়ে লুকিয়েই পালাতে যাচ্ছিলাম।কিন্তু না তখন পেরেছি তোমার চোখ এড়াতে না এখন পারলম।
আমি সত্যিই তোমার বৃত্তের মধ্যে থাকতে পারবোনা।আমি এক বৃত্তের মধ্যে চলতে পারবোনা।এটা আমার সত্ত্বা চাইলেও আমি পারবোনা।তাই আজ তোমার বৃত্তের পরিধি পেড়োতে যাচ্ছিলাম।কিন্তু তার আগেই তুমি আমাকে মুক্ত করে দিলে।সত্যিই তুমি আমার থেকেও বেশী “রহস্যময়ী”।
ভালো থেকো আর পারলে কখনও অন্য কাউকে এই বৃত্তের পরিধির সীমানায় আসতে দিওনা।আমার চলা শেষ হলে আমি ফিরব এই বৃত্তের পরিধিতেই…………..
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment