Now Reading
বিশ্বাস করো



বিশ্বাস করো

” বিশ্বাস করো, তোমায় নিয়ে এখন আমি রীতিমতো চমকে আছি। কিছুক্ষন আগে এক অদ্ভুত ব্যাপার আবিষ্কার করেছি।কোন গাছের গুড়িতে, বাসের ভাঙ্গাচোরা সিটে, পোড়াবাড়ির পেছনের দেয়ালে, ছাদের ছোট কার্নিশে কিংবা চিকা মারা নিষেধ বিবিধ যুক্ত দেয়ালে যেভাবে তুমি এবং আমির নাম লেখা থাকে পাশাপাশি, খুব ভালোবাসা নিয়ে। সেভাবে আমার হৃদয়েও তোমার নাম লেখা আছে । কিন্তু অদ্ভুত অদ্ভুস্যতায় তোমার নামের পাশের অপর আমিটা এই আমি নই। অন্য কোন তৃতীয় সত্ত্বা!
বিশ্বাস করো, আমার খুব চিন্তা হচ্ছে! ”

আনির্বানের লাগাম ছাড়া অদ্ভুত কথায় অমিত্রা হেসে হেসে লুটিপুটি খাচ্ছে। আমিত্রার এই হাসি অনির্বানের কাছে এখন নিরর্থক মনে হচ্ছে। পুরোপুরি নিরর্থক! প্রেমিকার হাসি প্রেমিকের কাছে সব সময় মধুর হয় না। মাঝে মাঝে নিরস প্রেমিক, প্রেমিকার সরস হাসিতে বিরস হয়। তবু প্রেমিক সত্ত্বা চুপ থাকে। তার প্রেমিকাকে বুঝতেও দিতে চায় না, তার হাসি এখন শহরের লোকাল বাসের হর্নের মতো লাগছে। তবু, অনির্বানের নিশ্চুপতা অমিত্রার চোখ এড়ায়নি। আমিত্রা হাসি থামিয়ে খুব একটা কঠিন বৃদ্ধ মেজাজে বললো,

” অনির্বান শোন, অবুঝ কিশোরের প্রগলভতা তোমার মুখে মানায় না। তুমি এখনো সেই কিশোর মতো ভাবো। বড়দের মতো ভাবতে শেখো, নইলে এই কারনেই তোমাকে আমি ত্যাজ্য প্রেমিক বানাতে পারি। আমি জানি, নিশ্চই তুমি আমার ক্ষমতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল! ”

কথিত হয় প্রেমিকার মুখ এক পাশে এবং জাগতিক রহস্য অন্য পাশে। অনির্বান এই কথার সাথে এখন চোখ বন্ধ করে একমত। কারনটাও বেশ অদ্ভুত । কারন অনির্বান মনে মনে অমিত্রাকে এমনটাই অবুঝ কিশোরি ভাবে। যেমনটা অমিত্রা অনির্বানকে কিছুক্ষন আগে বলেছে । অনির্বান মনে মনে যা ভাবে অমিত্রা তাই বলে দেয় । অদ্ভুত কিংবা অদ্ভুস্যময়! আনির্বান অমিত্রার দিকে তখন নির্বাক শ্রোতার মতো তাকিয়ে থাকে!

কিছুক্ষন আগে প্রচন্ড বৃষ্টি শুরু হয়েছে, মুষলধারায় বৃষ্টি । অমিত্রা সেই বৃষ্টিতে একা একা ভিজছে । অনির্বান ভিজতে পারছে না, এ তার শাস্তি । অমিত্রা বলেছে সে কোন কিশোরের সাথে ভিজতে চায় না ।অর্নিবান করুন করুনধারার অপূর্বময় বৃষ্টিতে অমিত্রায় পাগলামি দেখছে । অমিত্রা পাগলের মতো ভিজছে, লাফাচ্ছে , মাঝে মাঝে চুপ চাপ চোখ বন্ধ করে ঠায় দাঁড়িয়ে অনূভব করছে বৃষ্টির প্রতিটি ফোটা। অনির্বান অমিত্রার দিকে মায়াময় দৃষ্টিতে তাকিয়ে ; মুচকি হাসিতে মনে মনে বলছে,

“অদ্ভুস্য তুমি এক অবুঝ কিশোরী ,
আমি দৃশ্য সত্য অবুঝ বালক ;
যখন তোমায় না বোঝাটাই আমার এক দৃশ্য অপরাধ। “….

About The Author
Salman Nuhash
Salman Nuhash
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment