কারেন্ট ইস্যু স্যোশাল নেটওয়ার্কে ভাইরাল

পাকি প্রধানমন্ত্রীর প্যান্ট খুলে দিল আমেরিকা

অবিশ্বাস্য হলেও ঠিক এই বিষয়টি ঘটেছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী  শাহিদ খাকন আব্বাসির সাথে। ছয় দিনের সফরে আমেরিকা গেছেন আব্বাসি, তিনি  আমেরিকার জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরে নামলে ইউএস ইমিগ্রেশন তার পোশাক খুলে তল্লাশি চালিয়েছে। একটি ভিডিও ফুটেজকে ভিত্তি করে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমগুলি এ তথ্য সামনে নিয়ে এসে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। যদিও আমেরিকা প্রশাসনের তরফ থেকে এ ঘটনাকে তাদের রুটিন তল্লাশি বলেছে। প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকন আব্বাসির পোশাক খুলে তল্লাশি চালানোতে ক্ষুব্ধ গোটা পাকিস্তান, তারা কোনভাবেই বিষয়টি মেনে নিতে পারছেনা। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জানায়, নিজের বোনকে দেখতে আমেরিকা গিয়েছেন শাহিদ খাকন আব্বাসি। ব্যক্তিগত সফর হলেও তিনি আমেরিকার উপ-রাষ্ট্রপতির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন।

ডিপ্লোম্যাটিক পাসপোর্টধারী শাহিদ খাকন আব্বাসির পোশাক খুলে তল্লাশি করায় হতবাক পাকিস্তান। তাদের সংবাদমাধ্যমগুলো প্রশ্ন তুলছে পাকিস্তানের প্রতি বৈরি আচরণ করেছে আমেরিকা যা অভদ্রতার মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে । এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরে শাহিদ খাকন আব্বাসির পোশাক খুলে তল্লাশি চালানোর ভিডিওটি।  এতে দেখা যাচ্ছে, জামা ও বেল্ট পরছেন আব্বাসি এরপর কাউন্টারে রাখা নিজের কোট গায়ে দিয়ে হেঁটে চলন্ত সিঁড়ি বেয়ে উপড়ে উঠে যাচ্ছেন। স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে আমেরিকা কেমন বন্ধু পাকিস্তানের? একজন প্রধানমন্ত্রীর যদি প্যান্ট খুলে তল্লাশি করা হয় তবে একজন পাকিস্তানি নাগরিকের ক্ষেত্রে এই আচরণ কেমন হতে পারে? সত্যিকার অর্থে পাকিস্তানিদের সহ্য করতে পারছেনা বিশ্ব। জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের উত্থানে সামনে থেকে আর্থিক সহযোগিতা করে যাচ্ছে এই পাকিস্তান। বিশ্বের অনেক দেশেই পাকিস্তানের এজেন্টরা সাম্প্রদায়িকতা উত্থানের মিশন নিয়ে নিয়োজিত। প্রায় প্রতিটি জঙ্গি কর্মকাণ্ডে তাদের সম্পৃক্ততার প্রমাণ মিলছে। তাই তাদের প্রতি সারা বিশ্বের দৃষ্টিভঙ্গি একটু ব্যাতিক্রম। তাদেরকে সহজেই বিশ্বাস করতে পারেনা কেউ, পাকিস্তানি শুনলেই অনেকেইভাবে দেহে হয়ত বোমা নিয়েই ঘুরছে।

সেই সন্ধেহ থেকে বাদ গেলনা স্বয়ং তাদের প্রধানমন্ত্রীও, শাহিদ খাকন আব্বাসিকে এই তল্লাশির পূর্বে আমেরিকা ৭টি পাকিস্তানি কম্পানিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে তার দেশে। তারা বলছে দেশের সুরক্ষার জন্য ওই কম্পানিগুলোর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল আমেরিকা প্রশাসন। এদিকে আরো আবাস পাওয়া যাচ্ছে যে, পাকিস্তানের ওপর হয়ত একাধিক ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারির প্রস্তুতি নিচ্ছে আমেরিকা। কূটনৈতিক মহলের ধারণা হয়ত সে কারণ থেকেও এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে!

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

ভেজাল প্রসাধনীতে সয়লাব ঢাকার বাজার

TANVIR AHAMMED BAPPY

সোফিয়াকে প্রশ্ন করতে গিয়ে বাংলাদেশের ইজ্জত খেয়ে ফেলল এক হোস্ট

Footprint Admin

পড়াশুনার মতিভ্রম-২ (বর্তমানের ভয়াবহ পরিস্থিতি :   সাংবাদিক হতবাক )

Md. Moinul Ahsan

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy