অন্যান্য (U P)

সরকার কী এর সমাধান দেবে………

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সহ সারা বাংলাদেশের ছাত্র সমাজ কোটা সংস্কারে দাবিতে আন্দোলন শুরূ করেছে। আজ বেশ কয়দিন ধরে তারা এ আন্দোলন করে আসছে ছাত্ররা, কিন্তু তারা কোন ফল না পাওয়ায় তাদের আন্দোলনের মাত্রা বেড়েই চলেছে। তারা ৫ দফা দাবি জানিয়ে রাজ পথে নেমেছে।যত দিন এর সমাধান না হবে তারা রাজপথ ছারবে না। এরাতো সেই দেশের  সন্তান যারা ভাষার জন্য জীবন দিয়েছিল। সেই দেশের সন্তানেরা কোটা সংস্কারের দাবিতে জীবন দিতে দিধাবোধ করবে না। আসলে আমরা বাঙ্গালী খুব জেদী।

বাংলাদেশের মত আরো কিছু দেশ আছে যারা রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা পেয়েছে। তবে আমাদের বাংলাদেশ সবার চাইতে আলাদা ভাবে স্বাধীনতা পেয়েছে।৩০ লক্ষ প্রাণ আর ৯ মাস বিশ্রামহীন সংগ্রামের মাধ্যমে বাংলার দামাল ছেলেরা এনে দিয়েছিল স্বাধীনতা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে  অংশগ্রহন কারী  মুক্তিযোদ্বাদের সম্নানার্থে তাদের কিছু সুযোগ সুবিধা দেয় সরকার। তার মধ্যে অন্যতম সরকারি চাকরিতে বিশেষ ছাড় দেওয়া হয় মুক্তিযোদ্বাদের সন্তান, মুক্তিযোদ্বাদের ছেলের সন্তান, মুক্তিযোদ্বাদের মেয়ের সন্তানদের। যাদের বিশেষ কোটার মাধ্যমে ছাড় দিয়ে চাকরি দেওয়া হয়। এছাড়া এতিমদের বিশেষ কোটা, নারীদের কোটা, প্রতিবন্ধি কোটা ইত্যাদির মাধ্যমে ছার দিয়ে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেয়া হয়। যার ফলে মেধা ক্ষেত্রে বিশেষ ভাবে বৈষম্য দেখা যায়। ৫৬% কোটার ফলে কোটা ধারীরাই চাকরি পাচ্ছে। আর মেধাবীরা ‍ভালো পরীক্ষা দিয়েও চাকরি থেকে বনচিত হচ্ছে।যার ফলে বাংলাদেশের বেকার সমস্য বেড়েই চলে্ছে। একজন  ছাত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে যদি চাকরি করতে না পারে, তাকে যদি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গুলোতে চাকরির জন্য হাত পাততে হয় তাহলে কি দরকার ছিল এত কঠোর পরিশ্রম করে পড়াশোনা করা।পড়াশোনায় প্রতিযোগিতা করতে হয়, আর কোন প্রতিযোগিতা ছাড়াই সরকারি চাকরি পাচ্ছে কোটা ধারীরা। যার ফলে ছাত্ররা বলছে কোটা সংস্কার করে ১০% এর নিচে নামিয়ে আনতে হবে। প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ হোক। আমরাও সরকারি চাকরিতে সুযোগ চাই। তারা বলছে আমরা স্বাধীনতা বিরোধী নই বলে কোটা সংস্কার চায়।

বাংলাদেশের মুক্তি যোদ্বা্ কোটা ধারীরা বলছে অন্য কথা। তারা বলছে যারা কোটা সংস্কার চায় তারা মুক্তিযোদ্বা বিরোধী অর্থাৎ তারা নাকি রাজাকার। যতি তাই হবে বাংলাদেশের ৯৩% লোক চায় কোটা সংস্কার হোক। তাহলে এই ৯৩% লোকের সবাই কি রাজাকার? তারা আরো বলছে যদি কোটা সংস্কার হয় তাহলে ৫৬% কোটা থেকে ৭০% করতে হবে। তাহলে মুক্তিযোদ্বাদের যথাযত মূল্যায়ন করা হয়েছে বলে মনে করা হবে।

এখন সময়ের ব্যাপার কাদের কথা সঠিক বলে গণ্য করে সরকার।

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

বিশ্বসেরা ৫টি Handgun

Kongkon KS

হ্যাক হওয়া নাসা’র ২৭৮ জিবি ফাইলে আসলে কি ছিল?

hasiburrahman

ইরানী মেয়ে

Mohammad Abubakker Mollah

Login

Do not have an account ? Register here
X

Register

%d bloggers like this: