অন্যান্য (U P) আন্তর্জাতিক খেলাধূলা

বিশ্বকাপে এবার রেফারিং হবে ভিআরএ পদ্ধতিতে

রেফারিদের সিদ্ধান্তকে আরও নির্ভুল ত্রুটিমুক্ত করতে যান্ত্রিক পদ্ধতির সাহায্য নিচ্ছে বিশ্ব ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। আর ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপে নতুন এই প্রযুক্তি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারিস (ভিএআর) সিস্টেম ব্যবহার করা হবে। ২০১৬ সালের ক্লাব বিশ্বকাপে সর্বপ্রথম ভিএআর সিস্টেম পরীক্ষামূলক ব্যবহার করা হয়েছে। পরবর্তীতে স্পেন ও ফ্রান্সের মধ্যকার হাইভোল্টেজ আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে এই পদ্ধতি ব্যবহার করে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রেফারি। যার ফলে আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থাটি সিদ্ধান্ত নিল এবারের ফুটবল বিশ্বকাপেই তার প্রয়োগ ঘটাবেন। ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন এ বিষয়ে। শেষ পর্যন্ত সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে ভিএআর সিস্টেম থাকছে। রেফারিং এর নতুন এই সিস্টেম চালু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ২০টি টুর্নামেন্টের ৮০০ ম্যাচে এই পদ্ধতি পরীক্ষামূলক ব্যবহৃত হয়েছে। এই প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে অনেকের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া আছে। গোল লাইন টেকনোলজির এ ব্যবহার নিয়ে রয়েছে তুমুল বিতর্ক। অনেকেই ভাবছেন এ পদ্ধতি চালু হলে রেফারিং নিয়ে ফুটবলের দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য হুমকির মুখে পড়তে পারে, হারিয়ে যেতে পারে ফুটবলের আসল সৌন্দর্য। তবে বেশিরভাগ ফুটবল প্রেমী বিষয়টিকে ইতিবাচক ভাবে নিচ্ছেন তারা ভাবছেন টেকনোলজির ব্যবহারে খেলাটা হবে আরও নিখুঁত। বিতর্কিত রেফারিং এড়াতে এই সিস্টেম বেশ কার্যকরী হবে বলে ধারণা তাদের। আর তাই দ্বিতীয় মতামতকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে ফিফা। ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ানি ইনফ্যান্তিনো বলেন, ‘আজ থেকে ভিএআর সিস্টেম ফুটবল ম্যাচের একটা অঙ্গ হয়ে গেল যেটা নিয়ে দীর্ঘদিন আমাদের কাজ করতে হয়েছে। এই পদ্ধতি প্রয়োগের পর কোচ-ফুটবলার এমনকি সমর্থকদের থেকেও দারুণ ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যাবে বলে বিশ্বাস।

শুধুই যে গোল এর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে তা কিন্তু নয়, যে কোনো বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিতেই ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সাহায্য নেবে মাঠে খেলা পরিচালনাকারী মূল রেফারি। মূলত চারটি বিষয় দেখা হবে ভিএআর পদ্ধতিতে – গোল হয়েছে কি না, পেনাল্টির সিদ্ধান্ত সঠিক কি না, সরাসরি লাল কার্ডের সিদ্ধান্ত সঠিক কি না এবং ভুল ফুটবলারকে কার্ড দেখানো হল কি না।

জুরিখে এক বৈঠকের পরে ফুটবলের আইন নির্মাতা বডি সেই দ্য ইন্টারন্যাশনাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ডের (আইএফএবি) কর্তৃক তাদের ভোটাভুটিতে অনুমোদন হয়ে গেলো এই বিশ্বকাপেই ভিএআর চালু হচ্ছে। পূর্বে ইউরোপের স্থানীয় কিছু লিগ এবং টুর্নামেন্টের ম্যাচে ভিএআর পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়েছিল। এবার আনুষ্ঠানিকভাবেই এই পদ্ধতি প্রয়োগ করা হবে রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপে। আইএফএবি এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে- ফুটবলকে আরও স্বচ্ছ ও ত্রুটিমুক্ত করবে এই প্রযুক্তি, যার ফলে নতুন দিক উন্মোচিত হবে বিশ্ব ফুটবলে।

গোল লাইন টেকনোলজির ব্যবহার নিয়ে তুমুল বিতর্ক। কারও মতামত, টেকনোলজির ব্যবহারে ফুটবল আসল সৌন্দর্যই হারিয়ে ফেলবে। কারও মতে, টেকনোলজির ব্যবহারে খেলাটা হবে আরও নিখুঁত। তবে, দ্বিতীয় মতামতকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে ফিফা। তবেই ধরে নেয়াই যায় রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপে অপেক্ষা করছে নতুন চমক।

 

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

বিশ্ব স্বাস্থ্য হুমকিতে

Sharmin Boby

১০৯তম আসরে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী জব্বারের বলী খেলা

MP Comrade

জাভা স্প্যারো এবং কিছু কথা

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy