Now Reading
শেষ পর্যন্ত পর্ন তারকার পিছনে টাকা খরচের কথা স্বীকার করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট



শেষ পর্যন্ত পর্ন তারকার পিছনে টাকা খরচের কথা স্বীকার করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট

অবশেষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্বীকার করে নিলেন পর্ণ তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে তিনি তার আইনজীবীর মাধম্যে টাকা দিয়েছেন। বেশ কিছুদিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল ট্রাম্প এবং স্টর্মি অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়েছেন। স্টর্মি গণমাধ্যমে সেটা স্বীকার করে নিলেও বরাবরের মত তা প্রত্যাখ্যান করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এমনকি ট্রাম্পের নির্বাচনের মুহূর্তেও এই খবরটা চাউর হয় যাতে তাকে বেশ অস্বস্তিতে পড়তে হয়। বেশ কবছর ধরেই যেন মুখে কলুপ এঁটে বসেছিলেন ট্রাম্প।কিন্তু এদিকে থলের বিড়াল বের হয়ে গেল,পর্ন তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে আইনজীবীর মাধ্যমে কত টাকা দিয়েছিলেন সেটি আনুষ্ঠানিকভাবেই প্রকাশ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দ্যা অফিস অফ গভর্নমেন্ট এথিকস বলছে, মিস্টার ট্রাম্প তার আর্থিক বিবরণীর ফাইলে এ সংক্রান্ত তথ্য সন্নিবেশিত করেছেন। হোয়াইট হাউজ এর তরফ থেকে বলা হচ্ছে স্বচ্ছতার স্বার্থেই ফাইলে একটি ফুটনোট দিয়ে এটিকে তালিকায় রাখা হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প তার আইনজীবী মাইকেল কোহেনকে ২০১৬ সালের নির্বাচনী ব্যয়ের জন্য যে অর্থ দিয়েছিলেন তার পরিমাণ এক লাখ থেকে আড়াই লাখ ডলারের মধ্যে। কিন্তু মি: ট্রাম্প কোনভাবেই স্টর্মিকে এক লাখ ত্রিশ হাজার ডলার দেয়ার বিষয়টি পূর্বে কখনো স্বীকার করেননি। পরবর্তীতে মার্কিন আইনজীবী মাইকেল কোহেন স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে ব্যাক্তিগত ফান্ড থেকে টাকা দেয়ার কথা স্বীকার করেন। মি: কোহেনের এ সম্পর্কিত কাগজপত্র ইতোমধ্যেই এফবিআই তদন্তের জন্য জব্দ করেছে। এদিকে অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে ট্রাম্প কিংবা কোহেনের টাকা লেনদেনের বিষয়টি এখন স্বীকার না করেও উপায় নেই। স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে দেয়া অর্থের বিষয়টি আইনগত সমস্যার ক্ষেত্র তৈরি করতে পারে, আর এমন শংকা থেকেই ট্রাম্প তার হিসেব বিবরণীতে তা যুক্ত করেছেন। অন্যথা এটিকে নির্বাচনী প্রচারণার ক্ষেত্রে একটি অবৈধ ব্যয় হিসেবে বিবেচনা করা হত।

ট্রাম্পের এই গোপন কীর্তিকলাপ ফাঁস করে দেন মিস ড্যানিয়েলস, তার প্রকৃত নাম স্টিফেন ক্লিফোর্ড। তিনি অভিযোগ করেন, ২০০৬ সালে একটি হোটেল কক্ষে ডিনারের আমন্ত্রণ জানিয়ে মি: ট্রাম্প তার সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেছিলেন। এই অভিযোগের বিপরীতে মি: ট্রাম্প বরাবরই সেটি প্রত্যাখ্যান করে আসছিলেন। কিন্তু প্রশ্ন উঠেছিল ট্রাম্পের আইনজীবী কোন কারন ছাড়াই বা কেন স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে এই বিপুল পরিমাণ অর্থ দিতে যাবেন। গত এপ্রিল মাসে মি: ট্রাম্প বলেছিলেন তার আইনজীবী মাইকেল কোহেন ২০১৬ সালের নির্বাচনের আগে স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে কোন অর্থ দিয়েছিলেন কিনা সেটি তার জানা নেই। কিন্তু সেই অর্থ দেয়ার বিষয়টি এবার আনুষ্ঠানিকভাবেই প্রকাশ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

About The Author
MP Comrade
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment