Now Reading
পৃথিবীর মাঝে অদ্ভুত সুন্দর ১০টি দ্বীপ



পৃথিবীর মাঝে অদ্ভুত সুন্দর ১০টি দ্বীপ

আমাদের বসবাসরত এই পৃথিবীতে চোখ ধাদানোর মতো হাজারো জায়গা রয়েছে যা আমরা দেখেই মুগ্ধ হই।তাদের মধ্যে পাহাড়-পর্বত,সমুদ্র-সৈকত,বন-জঙ্গল,দ্বীপ অন্যতম।আর এই সব কিছুর সৌন্দর্য এর সমাহার দেখা যায় দ্বীপ এ গেলে।দ্বীপ নামটি মাথায় আসলেই আমাদের চোখের সামনে সুন্দর ও মনোরম কিছু দৃশ্য চলে আসে।আর কোথাও ভ্রমন এর জন্য হলে তো দ্বীপ শীর্ষে।পৃথিবীর আনাচে কানাচে মুগ্ধ করে দেয়ার মতো হাজারো দ্বীপ রয়েছে।যাদের প্রত্যেকটির সৌন্দর্য এক কথায় বলেও কখনো শেষ করা যাবে না।আর এরকমই সৌন্দর্যের চুড়ায় দাড়িয়ে আছে এমন কিছু দ্বীপ গালাপাগোস দ্বীপ,সিসিলি,ফিজি,আইসল্যান্ড,মালদ্বীপ,বালি,সান্তরিনি,কিউবা,মুরিয়া,পালাওয়ান,বোরা বোরা ইত্যাদি।আর এদের মধ্যে কোনটি অধিক সুন্দর তা বলা খুবই কঠিন।এক এক দ্বীপের সৌন্দর্য এক এক রকম।তারা যে যার সৌন্দর্য নিয়েই শীর্ষে।

আজ আমরা এইসকল দ্বীপ সম্পর্কে জানব-

 

গালাপাগোস দ্বীপঃ

ইকুয়েডরের একটি দ্বীপ গালাপাগোস দ্বীপ।সামদ্রিক জীববৈচিত্র এর জন্য এটি খুব জনপ্রিয়।সামদ্রিক গোসাপ থেকে ণীল পায়ের বুবিস,সমুদ্র-সিংহ ,দৈত্য এমন অনেক প্রানিই দেখা যায় এই দ্বীপে গেলে।বিশ্বের ঐতিহ্য়বাহী স্থান হিসেবে গালাপাগোস দ্বীপ দুবার আলোচিত হয়।এই দ্বীপের আবহাওয়া সারা বছরই চমৎকার থাকে।এই দ্বীপটি আপনাকে বিশ্ব সম্পর্কে আলাদা ভাবে আনুপ্রানিত করবে।

আইসল্যান্ডঃ

আইসল্যান্ড উত্তর আটলান্টিক সাগর ও গ্রীনল্যান্ড সাগরের মাঝের একটি দ্বীপ।যা আগ্নেয় দ্বীপ নামে বেশি পরিচিত।এর উল্লেখযোগ্য ভ্রমণ স্থান হল গিজার,বরফ গুহা,বলু লেগুন,রেইকিয়াভিকের বোটে চড়ে তিমি দেখা ইত্যাদি।এখানে সুমেরুর শেয়াল,তিমি,পাফিনস এবং সবচেয়ে সুন্দর ঘোড়া আছে যা আমরা অন্য কোথাও দেখি নি।এখানে কালো বালির সৈকত প্রচুর জলপ্রপাত এবং বন্যপ্রকৃতি বিদ্যমান।

সিসিলিঃ

ইতালির একটি অসম্ভব সুন্দর গ্রাম্য ও ঐতিহাসিক একটি দ্বীপ হল সিসিলি।একে আবার ঢেউ এর দ্বীপ ও বলা হয়ে থাকে।কারন ভূমধ্যসাগর ও আয়োনিয়াম সমুদ্র এর স্রোত একত্রে মিলিত হতে দেখা যায় এই দ্বীপে।যা প্রকৃতি ও সমুদ্রের নোনতা বাতাসের ছোঁয়া দেয়। এছাড়াও পালেরমো,সাইরাকিউজ,এওলিনা দিপ,তাওরমিনা,নরম্যান প্রাসাদ ইত্যাদি সিসিলির আকর্ষণীয় স্থান।এখানে ঐতিহ্যবাহী প্রচুর খাবার দাবার ও মেলে।যার মধ্যে এগপ্ল্যান্ট পারমিজিয়ানা,সিসিলিয়ান ক্যানলি,কাসাতা সিসিলিয়ান কেক,আমন্ড পেস্ট্রি সহ আরও কতকি।

মালদ্বীপঃ

ভারত মহাসাগরে অবস্থিত এক জাদুকরী দীপপুঞ্জ হল মালদ্বীপ।মালদ্বীপের সমুদ্র সৈকত গুলোর মধ্যে রয়েছে এক অসাধারণ সৌন্দর্য যা ভাষায় প্রকাশ করা অসম্ভব।মালদ্বীপের সমুদ্র- সৈকত গুলো সাদা বালি এবং পরিষ্কার জল দিয়ে ঢাকা থাকে।এছাড়াও ৭০টি ভিন্ন ধরনের প্রবাল,প্রচুর সামুদ্রিক জীবন,পানির নিচে হাটার মতো অনেক জল ক্রীড়া,গ্লাসের নিচের নৌকা গুলোতে রাইডিং ইত্যাদি সামুদ্রিক জীবন দেখা যায়।সন্ধ্যায় মালদ্বীপের সূর্যাস্তের দৃশ্য আপনাকে মুগ্ধ করবে।

ফিজিঃ

দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরের সবচেয়ে সুন্দর দ্বীপপুঞ্জের মধ্যে একটি হচ্ছে ফিজি।ফিজির সমুদ্র সৈকত চমৎকার,প্রবাল সিলা,পাম সাদা বালি সৈকতে ভরা থাকে।এছাড়াও ফিজি প্রাকৃতিক বিশ্বের Breathtaking হোম।তাদের মধ্যে সবচেয়ে সুন্দর Tavoro জলপ্রপাত।এটি ফিজির তাভুনি দ্বীপের ন্যাশনাল হেরিটেজ পার্কের মধ্যে অবস্থিত তিনটি চমৎকার জল্প্রপাতের মধ্যে একটি।টাভেরোর তিনটি পতন প্রাকৃতিক সুইমিং পুল রয়েছে। বিশ্ব বর্গ সার্ফিং, অবিস্মরণীয় স্কুবা ডাইভিং, এবংস্নরকেলিং অভিজ্ঞতা।

বালিঃ

ইন্দোনেশিয়ার সবচেয়ে সুন্দর ও জনপ্রিয় একটি দ্বীপপুঞ্জ হচ্ছে বালি। এটি শতাব্দি পুরনো স্থাপত্তের জন্য খুবই বিখ্যাত।এছাড়াও বালি তার ইতিহাস,আধ্যাত্মিকতা, ক্রান্তীয় বন, আইকনিক চালের টেরেস, চোয়ালের পতনশীল, আগ্নেওগিরির পাহাড়, সুন্দর প্রবাল দ্বীপ, জলপ্রপাত, প্রিন্সিন সৈকত এবং অবশ্যই প্রাকৃতিক দৃশের জন্য বিশ্বব্যাপী বিখ্যাত।

 

 

সান্তরিনিঃ

সান্তরিনি গ্রীস এর সবচেয়ে সুন্দর একটি দ্বীপ।এই দ্বীপ তার জাদুকরী সূর্যাস্তের জন্য বেশি বিখ্যাত।সিয়াটস উপভোগ করার জন্য এই শহরের সান্তরিনি সেরা স্থান। পরিষ্কার পানির সাথে কালো, লাল এবং সাদা রশ্মির সাথে সান্তরিনি সৈকতগুলির একটি ব্যতিক্রমী সৌন্দর্য রয়েছে।এই দ্বীপটি ডাইভিং, জেট স্কি প্যারাসেইলিং, ওয়েকবোর্ডিং, ওয়াটার স্কি, এবং কলা-বোটিংয়ের জন্য বিখ্যাত।

কিউবাঃ

যুক্তরাষ্ট্রের নিকটতম ক্যারেবিয়ানের একটি বৃহত্তম একটি দ্বীপ হচ্ছে কিউবা।কিউবা তার প্রাকৃতিক সৌন্দর্যর জন্য বিখ্যাত।এছাড়াও এর সঙ্গীত,বিশ্বব্যাপী শিক্ষা ব্যবস্থা,মহৎ পাহাড় এবং এর সুন্দর সৈকত গুলোর জন্য অনেক পরিচিত।

মুরিয়াঃ

মুরিয়া ফরাসি পলিনেশিয়ার চমৎকার সুন্দর একটি দ্বীপ।মুরিয়া দম্পত্তি ও পরিবারের ঘুরার জন্য অত্যন্ত উপযোগী একটি স্থান।উজ্জ্বল নীল লেগুনের আশেপাশে মুরিয়া দ্বীপটি তার চমৎকার পাহাড়ের শিখর, তুষারপাতের পাহাড়ী ও বালুকাময় সৈকতগুলো নিয়ে ফুটে থাকে।এই সুন্দর দ্বীপের পাহাড়ী ও পাহাড়ী অংশ হাইকিংয়ের জন্য আদর্শ স্থান।

পালাওয়ানঃ

পালাওয়ান ফিলিপাইন এর সবচেয়ে সুন্দর একটি দ্বীপ।এটিকে ফিলিপিন্সের প্রাকৃতিক বিস্ময় ও বলা যেতে পারে। তাবুতাহা রিফ প্রাকৃতিক উদ্যান পালাওয়ান এর আকর্ষণ।এছাড়াও চমৎকার পালাওয়ান দ্বীপের রেনফরেস্ট, ম্যানগ্রোভ,বিভিন্ন নদী, প্রবাহ,হ্রদ এবং জলপ্রপাত রয়েছে।

বোরা বোরাঃ

বোরা বোরা ফরাসি পলিনেশিয়ার সবচেয়ে বিখ্যাত এবং সবচেয়ে সুন্দর দ্বীপ।এটি বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর লাগেজ এর মধ্যে একটি।বোরা বোরার সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সুন্দর হচ্ছে তার পাবলিক সৈকত মাতিরা বীচ।এছাড়াও এর অ্যাকুই বাই সাইকেল অ্যাডভেঞ্চার, গ্লাস নিচের নৌকা সফর, প্যারাসেইলিং, জেট স্কি, ল্যাগুন ক্রুজ, স্নোকারিং, স্কুবা ডাইভিং এবং স্ট্যান্ড আপ প্যাডলিং ও রয়েছে।

এছারাও আমরা যদি চাই বেশি দূরে না গিয়ে বাংলাদেশের মধ্যেই আমাদের ছোট দ্বীপ সেন্ট মারটিন দ্বীপেও ঘুরে আসতে পারি।সেন্ট মার্টিন দ্বীপবাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ। কক্সবাজার-টেকনাফ উপদ্বীপে 9 কিলোমিটার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের উত্তর-পূর্ব অংশে সেন্ট মার্টিন একটি ছোট দ্বীপ।যাকে স্থানীয়রা নারকেল জিঞ্জিরা ও বলে থাকে। সেন্ট মার্টিনের ডাচ পার্শ্বটি তার উৎসাহিত নাইটলাইফ, সৈকত, গহনা, নেটিভ রুম ভিত্তিক গুয়াবেরি তরল এবং ক্যাসিনো দিয়ে তৈরি পানীয়গুলির জন্য অত্যন্ত পরিচিত। দ্বীপের ফরাসি পার্শ্বটি তার নগ্ন সৈকত, জামাকাপড়, কেনাকাটা এবং ফরাসি এবং ভারতীয় ক্যারিবিয়ান খাবারের জন্য পরিচিত।

আপনি যদি এই দ্বীপ গুলোর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে চান তাহলে দেরি না করেই
ঘুরে আসতে পারেন এই দ্বীপ গুলোতে।

About The Author
salma akter
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment