Now Reading
মাদাম তুসো জাদুঘর এখন বাংলাদেশে



মাদাম তুসো জাদুঘর এখন বাংলাদেশে

ওয়াক্স মিউজিয়াম বা ‘মোমেম জাদুঘর’ সম্পর্কে আমরা সবাই কম বেশি জানি। এই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই ধরনের জাদুঘর আছে। যেখানে বিভিন্ন দেশের বিখ্যাত সন্মানিত ব্যক্তিদের মোমের ভাস্কর্য বানিয়ে সাজিয়ে রাখা হয়। এই ধরনের জাদুঘরের মধ্যে মাদাম তুসো জাদুঘর সবচেয়ে বেশি মানুষের কাছে পরিচিত এবং জনপ্রিয়। মাদাম তুসো মোমের জাদুঘর লন্ডন, নিউইয়র্ক, সিঙ্গাপুর, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রয়েছে।

বাংলাদেশের ভাস্কর মৃণাল হক ঠিক এই ধরনেরই একটি জাদুঘর করতে কাজ শুরু করেছিলেন। এবং মৃণাল হক ২০১৮ সালের ৮ ডিসেম্বর তারিখে ‘সেলিব্রেটি গ্যালারি’ নামে একটি জাদুঘরের পথ চলা শুরু করেন। এইটি মাদাম তুসো জাদুঘরের আদলে চালু করা হয়েছে। মাদাম তুসো মোমের জাদুঘর, কিন্তু এখানে যে ভাস্কর্যগুলো স্থান পাবে সেগুলো মোমেম নয়, ফাইভার গ্লাসের তৈরি।

শুরুতে ৩২ জন ব্যক্তিত্বের ভাস্কর্য নিয়ে ‘সেলিব্রেটি গ্যালারি’ এর পথ চলা। বিখ্যাত এই ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন বীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কারারুদ্ধ বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম, সাদা শাড়িতে মানবতার দূত মাদার তেরেসা, রাইফেল কাঁধে বিপ্লবী চে গুয়েভারা, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, পপ গানের রাজা মাইকেল জ্যাকসন, ফাঁসির মঞ্চে ক্ষুদিরাম, খ্যাতিমান অভিনেতা চার্লি চ্যাপলিন, মি. বিন খ্যাত রোয়ান অ্যাটকিনসন, পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ানের ক্যাপ্টেন জ্যাক স্প্যারো, বলিউড তারকা শাহরুখ খান, বিখ্যাত কমেডি সিরিজ থ্রি স্টুজেস, লেডি ডায়না, কালজয়ী নায়িকা সুচিত্রা সেন, বব মার্লে প্রমুখ এবং শিশুদের প্রিয় চরিত্র স্পাইডার ম্যান।

মৃণাল হকের এই উদ্যোগটির জন্য সাধুবাধ পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু ভালো কিছু করতে গিয়ে যদি কোন কিছু বিকৃত করে ফেলা হয় তখন সেই কাজের জন্য সাধুবাধ পাওয়ার যোগ্য থাকে না। মৃণাল হক এখন পর্যন্ত যাদের ভাস্কর্য বানিয়েছেন তারা সকলেই বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। তিনি বেশির ভাগ ব্যক্তিত্বের ভাস্কর্য চেহার বিকৃত করে ফেলেছেন বলে মনে করছেন অনেকে ।

আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজ্রুল ইসলামকে সেলিব্রেটি গ্যালারিতে দেখানো হয়েছে সাদা পোশাক পরা জেলখানায়, কিন্তু কাজী নজ্রুল ইসলামের এই ভাস্কর্য দেখে বেশির ভাগ মানুষ বলছে যে বাংলা নাটকের নায়ক জাহিদ হাছান, আবার অনেকে বলছেন বাংলা চলচ্চিত্রের নায়ক ওমর সানির ভাস্কর্য এটি।
আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজ্রুল ইসলামের সাথে কেউ মিল খুজে পাচ্ছেন না।

বলিউড কিং খান শাহরুখের ভাস্কর্যও সেলিব্রেটি গ্যালারিতে স্থান পেয়েছে। কিন্তু কিং খান এই ভাস্কর্য দেখে নিজেও নিজেকে মনে হয় চিনতে পারবে না। কারন অনেকের মনে হয় কিং খান শাহরুখের ভাস্কর্য না বলে এটিকে আমাদের দেশের বর্তমান আলোচিত হিরো আলমের ভাস্কর্য বললে ভালো হত। কারন ভাস্কর্যটি কিং খানের চেহারা থেকে হিরো আলমের চেহারার মিল বেশি খুজে পাওয়া যাচ্ছে এই রকমই বলছেন অনেকে।

বিশ্বের সকলেরই খুব পছন্দের একজন খেলোয়াড় মেসি। বিশ্বের এই সেরা ফুটবলাররে ভাস্কর্যও এই গ্যালারিতে আছে। মেসির ভাস্কর্য এরও একই অবস্থা।

বিশ্ব বিখ্যাত পপ সংগীত শিল্পী মাইকেল জ্যাকসন এবং অভিনেতা মি. বিন খ্যাত রোয়ান অ্যাটকিনসন তাদের ভাস্কর্যের সাথে সত্যিকার চেহেরার মিল নেই বলে মনে করছেন অনেকে।
ভাস্কর্যগুলো আপানরাও দেখুন, এবং কমেন্ট বক্সে আপানাদের মতামত জানান।

About The Author
MD BILLAL HOSSAIN
MD BILLAL HOSSAIN
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment