Now Reading
ক্রিস গেইলর পছন্দের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হার দিয়ে শুরু ওয়েস্ট ইন্ডিজের



ক্রিস গেইলর পছন্দের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হার দিয়ে শুরু ওয়েস্ট ইন্ডিজের

ক্রিস গেইল ওয়ানডে সিরিজে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন। কিন্তু তার পছন্দের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে বইলো না গেইলের টর্নেডো।

জয় দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করেছে সফরকারী ইংল্যান্ড। গ্রস লেটে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৪ উইকেটে হারিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংলিশরা। এর আগে টেস্ট সিরিজ হারলেও ওয়ানডে সিরিজ ২-২ ব্যবধানে ড্র করে সফরকারীরা।
সেন্ট লুসিয়ায় মঙ্গলবার ক্যারিবিয়ানদের ১৬০ রানে আটকে ইংলিশরা জিতেছে ৭ বল বাকি থাকতে।
টস জিতে বোলিংয়ে নামা ইংলিশরা ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারেই পায় সাফল্য। কারান ফেরান ওপেনার শেই হোপকে।
ওয়ানডে সিরিজে ছক্কার রেকর্ড করা ক্রিস গেইল দুই ছক্কায় আবার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন তেমন কিছুর। তবে এবার তাকে ১৫ রানেই থামান ক্রিস জর্ডান। তিনে নামা শিমরন হেটমায়ারকেও ফেরান কারান।
চতুর্থ উইকেটে ড্যারেন ব্রাভো ও নিকোলাস পুরান গড়েন ৬৪ রানের জুটি। আক্রমণে ফিরে এই জুটি ভাঙেন জর্ডান। দুটি ছক্কা মারলেও ব্রাভোর ২৮ রান আসে ৩০ বলে।
ক্যারিবিয়ানদের লড়ার মতো রান এনে দেন মূলত পুরান। ৩৭ বলে চার ছক্কায় এই বাঁহাতি করেন ৫৮ রান। শেষ দিকে তার উইকেটও নেন কারান। ঝড় তুলতে পারেননি কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, ফ্যাবিয়ান অ্যালেনরা।
ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৩৬ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন কারান। ৩ ওভারে ১৬ রান দিয়ে দুটি জর্ডান। দারুণ কার্যকর ছিলেন আদিল রশিদ। ৪ ওভারে ১ উইকেট নিতে খরচ করেছেন মাত্র ১৫ রান।
রান তাড়ায় ইংল্যান্ডের শুরুটা ছিল অদ্ভুত। প্রথম ওভারেই অ্যালেক্স হেলস চার ও ছক্কা মারেন শেলডন কটরেলকে। তবে আউটও হয়ে যান ওই ওভারেই।
তিনে নামা জো রুটকে রানের খাতা খুলতে দেননি কটরেল। এরপরও ইংল্যান্ডের ইনিংস এগিয়ে চলছিল দ্রুতগতিতেই। বেয়ারস্টো যে খেলছিলেন দুর্দান্ত!
তৃতীয় উইকেটে ওয়েন মর্গ্যানের সঙ্গে ৫১ রানের জুটি গড়েন বেয়ারস্টো, যাতে অধিনায়ক মর্গানের অবদান ছিল কেবল ১৬ বলে ৮!
শেষ পর্যন্ত ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৪০ বলে ৬৮ করে আউট হন বেয়ারস্টো। পঞ্চম উইকেটে আরেকটি অর্ধশত রানের জুটি গড়েন জো ডেনলি ও স্যাম বিলিংস।
এই দুজনের কেউ শেষ করে আসতে পারেননি কাজ। ২৯ বলে ৩০ করে ফেরেন ডেনলি, ১৬ বলে ১৮ বিলিংস। তবে লক্ষ্য খুব বড় ছিল না বলে জিততে খুব বেড় পেতে হয়নি ইংলিশদের।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ফল: চার উইকেটে জয়ী ইংল্যান্ড।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংস: ১৬০/৮ (২০ ওভার)
(ক্রিস গেইল ১৫, ড্যারেন ব্রাভো ২৮, নিকোলাস পুরান ৫৮; টম কুররান ৪/৩৬, ক্রিস জর্ডান ২/১৬, আদিল রশীদ ১/১৫, জো ডেনলি ১/২৮)।
ইংল্যান্ড ইনিংস: ১৬১/৬ (১৮.৫ ওভার)
(জনি বেয়ারস্টো ৬৮, জো ডেনলি ৩০, স্যাম বিলিংস ১৮; শেলডন কটরেল ৩/২৯, অ্যাশলে নার্স ১/৩২, জ্যাসন হোল্ডার ১/২৬, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট ১/৩৩)।
প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: জনি বেয়ারস্টো (ইংল্যান্ড)।

About The Author
MD BILLAL HOSSAIN
MD BILLAL HOSSAIN
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment