Now Reading
কারাবন্দী খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে ঢাকায় মানববন্ধন বিএনপির



কারাবন্দী খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে ঢাকায় মানববন্ধন বিএনপির

কারাবন্দী খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে ঢাকায় মানববন্ধন করেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। মানববন্ধনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, এজেডএম জাহিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্সসহ দলটির অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত আছেন। কারাগারে থাকা দলের চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও তার সুচিকিৎসার দাবিতে মানববন্ধন করছে বিএনপি।

মানবন্ধনটি বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়। তবে নির্ধারিত সময়ের আগেই ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের সামনে জড়ো হয়ে মানবন্ধনে দাঁড়িয়ে যান।
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জ্যেষ্ঠ নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, এজেডএম জাহিদ হোসেন, আমানউল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, মফিকুল হাসান তৃপ্তি, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, কাজী আবুল বাশারসহ অঙ্গসংগঠনের নেতারা মানববন্ধনে অংশ নিয়েছেন।
আগত নেতা কর্মীরা আনুষ্ঠানিকভাবে মানববন্ধন শুরুর আগে ব্যানর প্টেুন হাতে নিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে স্লোগান দিতে থাকেন। বিএনপির মানববন্ধনকে ঘিরে নিরাপত্তা জোরদার করেছে পুলিশ। কদম ফোয়ারার মোড়, সচিবালয়মুখী সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।
প্রসঙ্গত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় যথাক্রমে ১০ এবং সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন খালেদা জিয়া।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়াকে বন্দি রাখা হয়।
তার মুক্তির দাবিতে ঢাকাসহ সারা দেশে ধারাবাহিকভাবে বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধন, অবস্থান ধর্মঘট, প্রতীক অনশন, গণস্বাক্ষর সংগ্রহ ও স্মারকলিপি প্রদানের মতো কর্মসূচি পালন করে আসছে বিএনপি। মানববন্ধন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের ও অঙ্গ সংগঠনের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য রাখেন।

বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, ৭৪ বছর বয়সী খালেদার স্বাস্থ্যের চরম অবনতি হয়েছে। কারাগারে তাদের নেত্রীর সুচিকিৎসা হচ্ছে না। রবিবার (৩ মার্চ) পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারে অস্থায়ী আদালতে এসে খালেদা জিয়া বলেছেন- আমার শরীরটা ভালো যাচ্ছে না। খুবই অসুস্থ আমি। চিকিৎসকরা দরকারি চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন না।
এরই পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার দাবি নিয়ে বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল মঙ্গলবার সচিবালয়ে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে।
পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে শিগগিরই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নেয়া হবে বলে জানান।
মানববন্ধনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, এজেডএম জাহিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্সসহ দলটির অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত আছেন।

About The Author
Md Meheraj
Md Meheraj
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment