টিউটোরিয়াল

তাহলে কি ফেইসবুক পাকিস্তানি যুদ্ধোপরাধীদের সমর্থন করছে?

সাম্প্রতিক Nahidrains পেইজ থেকে একটি ভিডিও একাধিকবার রিমুভ করে দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক। যে ভিডিওটিতে ভারত – পাকিস্তানের বর্তমান সহিংসতা নিয়ে Bangladeshism ওয়েব সাইটের প্রেসিডেন্টে এম নাহিদ হেলাল কিছু আলোচনা সমালোচনা করেন এবং Nahidrains পেইজ থেকে উক্ত ভিডিও আপলোড করেন। Bangladeshism এর প্রেসিডেন্ট নাহিদ হেলাল শুধুমাত্র পাকিস্তানের বিরূদ্ধে নয়, বিগত সময়ে যখন থেকে ফেইসবুক ভেরিফাইড পেইজটি পরিচালনা করেন তখন থেকে তিনি বাংলাদেশের এবং পৃথিবীর যেকোন দেশের বা জাতির অন্যায়ের বিরূদ্ধে কথা বলেন। কিন্তু সম্প্রতি বাংলাদেশে থাকা রাজাকারদেরকে নিয়ে এবং ভারত-পাকিস্তানের সহিংসতায় কে কাকে সাপোর্ট করবে এ নিয়ে ফেইসবুকে মাতামাতি হচ্ছিলো বিশালাকারে। যারা অহেতুক কিছু না বুঝে মাতামাতি করছে, তারা তো তখন জন্মও নেয়নি। যখন পাকিস্তান (এখন যাদের শুধুমাত্র মুসলিম দেশের নাগরিক বলে সাপোর্ট দিচ্ছে) তারা (পাকিস্তানিরা) প্রায় ত্রিশ লক্ষ বাংলাদেশিকে হত্যা করেছিল। তখন সে সকল বাংলাদেশে বসবাসকারী রাজাকার ভাইদের প্রেম কোথায় ছিল? কোথায় ছিল ধর্মের দোহায়? কিন্তু পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্পিচ নিয়ে ভিডিও আপলোড করার পর ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ থেকে বারংবার নোটিফিকেশন আসছে যে, ভিডিওটি একটি দেশ বা জাতির জন্য হেট স্পিচ এর এক্সিউজ দিয়ে একাধিকবার সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। কিন্ত Bangladeshism পেইজে এবং ইউটিউবে ভিডিওটি বীর দর্পে আছে। পৃথিবীর যেকোন ব্যাক্তি তার মত প্রকাশের বাক স্বাধীনতা রাখেন। তবে কেন ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ ভিডিওটি বারংবার রিমুভ করেছে? তবে কি ফেইসবুক পাকিস্তানের? নাকি পাকিস্তান ফেইসবুকের? প্রশ্ন থেকে যায়।

 

ফেইসবুকের এরকম বারবার নোটিফিকেশনের কারণে নাহিদ হেলাল একটি রিভিউ পাঠিয়েছিলেন যে, তার ভিডিওটি কোন হেট স্পিচ না। ভিডিওটিতে তিনি বাংলাদেশে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীরা অন্যায়ভাবে বাংলাদেশ দখল করতে চেয়েছিল, তখন হাজার হাজার মা – বোন ধর্ষণ করেছিল, হাজার হাজার শিশুর প্রাণ নিষ্পন্ন করেছিল, ত্রিশ লক্ষ শহীদদের প্রাণ দিতে হয়েছিল এ দেশ স্বাধীন করার জন্য। সব কিছুর জন্য তিনি ইমরান খানকে পাকিস্তানের পক্ষ হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাওয়ার কথা বলেছেন।

উনার ভিডিও মূল উদ্যেশ্য ছিল বাংলাদেশ জাতির কাছে যেন পাকিস্তান নিজেদের অন্যায়ের জন্য অনুতপ্ত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চায়। কিন্ত ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ এই ভিডিওটিকে একটি হেট স্পিচ বলে বারবার সরিয়ে দিচ্ছে। ফেইবুক কর্তৃপক্ষ কেন বারবার ভিডিওটি সরিয়ে দিচ্ছে? তাহলে কি ফেইসবুক কোনভাবে বাংলাদেশের যুদ্ধোপরাধীদের সমর্থন করছে?

নিচে ভিডিওটির লিংক দেয়া হলোঃ 

https://youtu.be/4EcAtxtOW4Q

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

দেখে নিন কিভাবে টেনডা ওয়াইফাই রাওটার কনফিগারেশন করবেন!! (যারা জানেন না তাদের জন্য)

smn rahman

২০১৭ সালের আলোচিত ভুয়া ছবিগুলো

ওয়েব ডিজাইন এবং ডেভেলপিং- পর্ব ১ (ইন্ট্রোডাকশন)

Farhana Mou

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy