Now Reading
বিজ্ঞাপনের নামে চলছে বাংলা শব্দের বিকৃতি



বিজ্ঞাপনের নামে চলছে বাংলা শব্দের বিকৃতি

বিভিন্ন কোমল পানীয়র বিজ্ঞাপন আমরা প্রায় সময় টিভি বা পত্রিকায় ও অন্যান্য জায়গায় দেখে থাকি। এমনই একটি কোমল পানীয় কোকাকোলা।

কোমল পানীয় কোকাকোলার (কোক) বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে বাংলা ভাষার বিকৃত শব্দ ব্যবহার বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিটের শুনানি চলছিল। সোমবার রিটটি বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের দ্বৈত বেঞ্চ শুনানি গ্রহণ করেন।
এসময় আদালত বলেন, ‘আমি আমার জীবনে ‘প্যারা’ শব্দ শুনিনি, ব্যবহারও করিনি… কোকাকোলা কোথায় পেলো এই শব্দ… কোকাকোলার এটা কি ধরনের শব্দ ব্যবহার!’
এদিন রিটকারী আইনজীবী মনিরুজ্জামান রানা কোকাকোলার বোতল বিচারপতির সামনে হাজির করেন। এসময় আদালতে উপস্থিত আইনজীবী ও সাংবাদিকদের মধ্য ব্যাপক উৎসাহের সৃষ্টি হয়।
রিটকারীর আইনজীবী আদালতকে বলেন, এ ধরনের ভাষার বিকৃতি বাংলা ভাষার জন্য অপমানজনক। অবিলম্বে বিজ্ঞাপনে ভাষার বিকৃতি বন্ধের নির্দেশনা চান।
অন্যদিকে কোকাকোলার আইনজীবী ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম বলেন, রিটটি গ্রহণযোগ্য নয়। তাছাড়া দেশের প্রচলিত আইনে বাংলা ভাষার ব্যবহার কোনো অপরাধ নয়।
এসময় আদালতে উপস্থিত সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ কোকাকোলার আইনজীবীর কাছে জানতে চান, পানীয়তে বাংলা না লিখলে কি হতো?
কোকের আইনজীবী উত্তরে বলেন, আমার ভালো লেগেছে লিখেছি। তখন ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেন, তাহলে লিখতেন পানির ঠেলি। এসময় ব্যাপক হাস্যরসাত্মকের সৃষ্টি হয় আদালতে।
পরে রিট আবেদনে ত্রুটি থাকায় রিটকারীর আইনজীবীকে সংশোধন করে আবারো আদালতে আসতে বলেন।
কোকা-কোলার বোতলের গায়ে অস্থির, ফাঁপর, মাথা নষ্ট, জটিল, আগুন, পিছলা, আলু, জিনিস, গাব, সেই, ব্যাপক, জিরো, বাবা, আলপিন, আরকি ইত্যাদি শব্দ নামকরণ করে বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে যা বাংলা ভাষার বিকৃতির শামিল বলে মনে করেন রিটকারী। এর বিরুদ্ধে ২৭ ফেব্রুয়ারি রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনিরুজ্জামান রানা।

About The Author
MD BILLAL HOSSAIN
MD BILLAL HOSSAIN
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment