Now Reading
হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় অভিযুক্ত মোদি লন্ডনে গ্রেফতার



হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় অভিযুক্ত মোদি লন্ডনে গ্রেফতার

ভারতীয় নামকরা হীরা ব্যবসায়ীদের মধ্যে একজন হলেন নীরব মোদি। কিন্তু হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে পলাতক ছিলেন এই মোদি। অবশেষে তিনি লন্ডনে গ্রেফতার হলেন।

পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের (পিএনবি) ১৪ হাজার কোটি টাকা ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় অভিযুক্ত মোদিকে মঙ্গলবার লন্ডন পুলিশ গ্রেফতার করেছে।
ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভির অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, নীরব মোদিকে লন্ডনে গ্রেফতার করার খবর নিশ্চিত করেছে ব্রিটিশ পুলিশ। সম্প্রতি বেশ কিছু গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয় পলাতক নীরব মোদিকে লন্ডনের বেশ কিছু স্থানে দেখা গেছে।
ব্যবসায়ী নীরব মোদি ভারতের সবচেয়ে বড় ঋণ কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত। ব্যাংকে ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা তুলে নেন হাজার হাজার কোটি রুপি। দেশ থেকে পালিয়ে তিনি বুড়ো আঙুল দেখাচ্ছেন দেশটির গোয়েন্দা সংস্থাকেও। শুধু তাই নয় ভারতের নাগরতিকত্বও ত্যাগ করেছেন তিনি।
ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ৪৮ বছর বয়সী নীরব মোদিকে মঙ্গলবার লন্ডনের হোলবর্ণ নামক এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে বুধবার লন্ডনের ওয়েস্টমিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে হাজির করা হবে বলেও জানিয়েছেন তারা।
২০১৮ সালের আগস্টে ভারত সরকার যুক্তরাজ্যকে নীরব মোদিকে গ্রেফতার করে প্রত্যার্পণের অনুরোধ করে। ভারতের সবচেয়ে বড় ঋণ কেলেঙ্কারির সঙ্গে যুক্ত নীরব মোদি ২০০ কোটি ডলার ঋণ জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত বলে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।
গত বছরের শুরুর দিকে ২৮০ কোটি রুপি জালিয়াতিতে একজন হীরা ব্যবসায়ীর সম্পৃক্ততার বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করতে গিয়ে নীরব মোদির বিরুদ্ধে হাজার হাজার কোটি জালিয়াতির খোঁজ পায় পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক। তারপর ব্যাংকসহ দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা তৎপর হলে দেশ ছেড়ে পালান নীরব মোদি।
ভারতের নীরব মোদি নামের ওই হীরা ব্যবসায়ীর প্রতিষ্ঠানের হীরার গয়নার দারুণ সুনাম রয়েছে বিশ্বজুড়েই। তার দোকানের গহনার ক্রেতা বলিউড তারকারা। তাছাড়া হলিউড এমনকি অনেক দেশের রাজপরিবারের সদস্যরাও তার দোকান থেকে গয়না ব্যবহার করেন।

About The Author
MD BILLAL HOSSAIN
MD BILLAL HOSSAIN
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment