খেলাধূলা

স্যাম কারেনের হ্যাটট্রিক, পাঞ্জাবের দারুণ জয়

আইপিএলে আজ ১৪ রানে পাঞ্জাব হারিয়েছে দিল্লিকে। ১৬৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা দিল্লি ১৬.৩ ওভারে তুলে ফেলে ৩ উইকেটে ১৪৪ রান। ১৬.৩ ওভারে মোহাম্মাদ শামিকে লংঅনে যেভাবে ছক্কা মারলেন পন্ত, মনে হচ্ছিল দিল্লির জয় সময়ের ব্যাপার মাত্র। ২১ বলে ২৩ রান টি-টোয়েন্টিতে কোনো সমীকরণ নাকি! যখন জমে উঠেছে ঋষভ পন্ত-কলিন ইনগ্রামের চতুর্থ উইকেট জুটি (৪১ বলে ৬২ রান) তখনই বদলে গেল ম্যাচের রং।
খেলাটা ঘুরল ঠিক এরপরই। ২৬ বল ৩৯ রান করা পন্তের স্টাম্প উড়িয়ে দিলেন শামি। ঠিক পরের বলে রান আউট নতুন ব্যাটসম্যান ক্রিস মরিস। মড়ক লাগতে শুরু করল দিল্লির। ‘মড়ক’ না বলে ‘চোক’ শব্দটাই বোধ হয় ভালো যায়। রান তুলবে কী, দেখতে দেখতে হুড়মুড়িয়ে ব্যাটিং অর্ডার ধসে পড়তে শুরু করল দিল্লির।
১২ বলে দরকার ছিল ১৯ রান। হাতে ৩ উইকেট। টি-টোয়েন্টিতে এটিও এখন খুব কঠিন সমীকরণ নয়। কিন্তু দিল্লির যে ততক্ষণে থরহরি কম্পমান দশা! হাতে ২ উইকেট নিয়ে শেষ ওভারে ১৫ রানের সমীকরণ তারা মেলাবে কী করে? কারেন সুযোগটা কাজে লাগালেন ভালোভাবে। ১৮ তম ওভারের শেষ বলে উইকেট পাওয়া পাঞ্জাবের বাঁহাতি ইংলিশ পেসার শেষ ওভারের প্রথম দুই বলে দুই উইকেট নিয়ে পূর্ণ করলেন হ্যাটট্রিক! ২.২ ওভারে ১১ রানে কারেন পেলেন ৪ উইকেট। তোপ দাগার কাজটা শামিই শুরু করেছিলেন, কারেনের ঝলকানিতে যেটি শেষ!
কারেনে ঝলসে গেছে, ঠিক আছে। তবে এখানে দিল্লির ব্যাটসম্যানদের দায়ই বেশি। তাঁরা যেন নিজেদের আগের ম্যাচের পুনরাবৃত্তি করলেন। কলকাতার বিপক্ষে ম্যাচটা ভালো অবস্থানে থেকেও নিয়ে গিয়েছিলেন সুপার ওভারে। তবুও তো সেটা জিতেছিলেন। আজ কী করলেন? অলআউট হওয়ার আগে ১৬ বলে ৮ রান যোগ করতে শেষ ৭ উইকেট পড়ল দিল্লির। পৃথ্বি শ, শিখর ধাওয়ান, পন্ত, শ্রেয়াশ আয়ারÑভারতের এক ঝাঁক তারকা ব্যাটসম্যানের দিকে তাকিয়ে গাঙ্গুলি-পন্টিং বোধ হয় একটা কথাই ভাবছেন, এভাবে হারতে পারলে!

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

২০১১ সালের পর আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে টটেনহ্যাম হটস্পার

MD BILLAL HOSSAIN

১০ ওভারে ৩৬ রান ও কিছু কথা

Md. Nizam Uddin

নিজেদের মাঠে টানা ৩০ ম্যাচ অপরাজিত থাকল বার্সেলোনা

MD BILLAL HOSSAIN

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy