Now Reading
জাপানের ঐতিহ্য তার ব্যক্তিগত সিল ‘হানকো’ এখন হুমকির মুখে



জাপানের ঐতিহ্য তার ব্যক্তিগত সিল ‘হানকো’ এখন হুমকির মুখে

জাপানে ব্যক্তিগত সিলকে ‘হানকো’ সইয়ের কাজে হানকো ব্যবহৃত হয়। ছোট একটি দণ্ডের মাথায় বিশেষ চিহ্ন অঙ্কন করে এই সিল তৈরি করেন শিল্পীরা। জাপানের সম্রাট থেকে শুরু করে প্রাপ্তবয়স্ক প্রত্যেক নাগরিকেরই একটা করে হানকো আছে। বিয়ে, ফ্ল্যাট ভাড়া, গাড়ি কেনাসহ নানা কাজে হানকো ব্যবহারের পুরোনো রীতি আছে জাপানে। তবে দিন বদলে গেছে। এখন জাপানে হুমকির মুখে এই ঐতিহ্য। ডিজিটালাইজেশনের ঢেউয়ে হারিয়ে যেতে বসেছে হানকো। হানকোর জায়গা দখল করে নিচ্ছে ডিজিটাল স্বাক্ষর। কাগজের অতি ব্যবহার জাপানের প্রশাসনিক কাজকে মন্থর করে তুলেছে। এই প্রেক্ষাপটে তারা ডিজিটাল পদ্ধতির দিকে ঝুঁকছে।

ইতিমধ্যে দেশটির তিনটি বড় ব্যাংক হানকো ছাড়াই গ্রাহকদের হিসাব খোলার সুযোগ দিচ্ছে। একটি অনলাইন ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট নোরিয়াকি মারুয়ামার ধারণা, শিগগির অধিকাংশ জাপানি হানকোর বদলে ডিজিটাল পদ্ধতিতে হাতের আঙুলের ছাপ ব্যবহার করবেন। ইতিমধ্যে জাপানের স্থানীয় সরকারগুলো ইলেকট্রনিক লেনদেনের প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

দেশটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী তাকুয়া হিরাইয়ের মতে, হানকো বাদ দেওয়ার বিষয়টি খুবই যৌক্তিক। কাগজনির্ভর কাজের পেছনে জাপানের মানুষ অনেক সময় ব্যয় করে। এই কাগজনির্ভর আমলাতন্ত্র টেনে চলা সম্ভব নয়। তাই পার্লামেন্টের মাধ্যমে ‘ডিজিটাল ফার্স্ট বিল’ প্রণয়ন করা হচ্ছে।

About The Author
salma akter
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment