Now Reading
পৃথিবীতে যে সমুদ্র সৈকতগুলো প্রথম স্থানে রয়েছে



পৃথিবীতে যে সমুদ্র সৈকতগুলো প্রথম স্থানে রয়েছে

প্রকৃতি তার অপরূপ সৌন্দর্য কত জায়গায় কত সাজে সজ্জিত করে রেখেছে তার কোন শেষ নেই। এই পৃথিবীতে অনেক অদ্ভুত কিছু স্থান রয়েছে, অনেক মনোরম মনোমুগ্ধকর কিছু পাকৃতিক পরিবেশ রয়েছে যা দেখে আমারা মুগ্ধ হতে বাধ্য। তেমনি কিছু সৌন্দর্য মিশ্রিত সমুদ্র সৈকত আছে যা অনেকের অগোচরে। পৃথিবীতে অনেক সুন্দর সুন্দর কিছু সমুদ্র সৈকত রয়েছে, যা আমাদের অবাক করিয়ে ছাড়বে।

Hidden Beach, Mexico: আমাদের লিস্টে প্রথম স্থান অধিকার করেছে এই হিডেন বিচ তার অদ্ভুত আকার ও বৈচিত্র্যের জন্য। আপনিও অবাক হয়ে যাবেন এর অদ্ভুত আকৃতি এবং অবস্থান দেখলে, আপনার মনে তখন একটাই প্রশ্ন ঘুরপাক খাবে, যে এই অদ্ভুত বিচ কি ভাবে সৃষ্টি হল। এই বিচটির সৃষ্টির ইতিহাস একটু ভিন্ন, অতিতে এই স্থানটিতে ম্যাক্সিকোর সরকার মিলেটারি প্রশিক্ষণ দিতেন এবং পরমাণু বোমার টেস্টিং করানোর জন্য এই জায়গাটা ব্যবহার করতেন। আর এর ফলেই এই অদ্ভুত ও রোমাঞ্চকর বিচটির সৃষ্টি হয়েছিলো। বর্তমানে এই সমুদ্র সৈকতটি তার সৌন্দর্য এবং মনোমুগ্ধকর পরিবেশে দিয়ে সারা বিশ্বে জনপ্রিয়তা অর্জন করছে।

Desert Beach, Brazil: বিচের নাম শুনলেই আমাদের মনে নাড়া দিয়ে ওঠে, অপরূপ সমুদ্র সৈকতের সেই ঢেউয়ের কথা যেখানে বিশাল বিশাল ঢেউ আছড়ে পরছে সমুদ্রতটে। কিন্তু ব্রাজিলের ডেসার্ট বিচ, এটি অবস্থিত মরুভূমির মধ্যে, যেখানে বৃষ্টির জল জমা হয়ে বিশাল এক জলাশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। কোন সমুদ্রের কিনারায় অবস্থিত নয় এটি। এই বিচটি অবস্থিত ব্রাজিলের ন্যাশানাল পার্কে। এই বিচটি পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় হওয়ার অন্য একটি কারণ হচ্ছে এখানকার সাদা বালি। এই সাদা বালি পর্যটকদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। এই বিচটি শুধু মাত্র মে থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যবহারের প্রযোজ্য থাকে। এরপর ধীরে ধীরে এই জলাশয়ের জল শুকিয়ে যেতে থাকে।

Pink Beach, Indonesia: পৃথিবীতে সাতটি সমুদ্র সৈকতের মধ্যে একটি হচ্ছে পিংক বিচ। যেখানকার বালির রঙ গোলাপি। এই বিচটি শুধুমাত্র গোলাপি রঙের সমুদ্র সৈকত এবং প্রাকৃতিক সোন্দর্যের জন্য সারা বিশ্বে জনপ্রিয়। মনোরম এবং মনোমুগ্ধকর পরিবেশ। এখানকার পরিবেশে আপনার মন মুগ্ধ হয়ে যাবে নিশ্চিত। অন্যরকম অনুভূতি কাজ করবে আপনার মধ্যে যখন আপনি খালি পায়ে এই গোলাপি রঙের বালির উপর দিয়ে হেঁটে যাবেন। এখানকার জল খুব সচ্ছ। জলে উপস্থিত রঙিন মাছ ও কোরালের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন আপনি সমুদ্রের কিনারায় দাঁড়িয়ে।

Glowing Beach, Maldives: এই সমুদ্র সৈকত সারা বিশ্বে বিখ্যাত নিজের অপরূপ সৌন্দর্যের জন্য। এই সমুদ্রতটকে সবচেয়ে জনপ্রিয় করে তুলেছে রাতের বেলা নীল আলোকরশ্মি যুক্ত ঢেউ। এই অদ্ভুত ও রোমাঞ্চকর দৃশ্য দেখে মনে হয়, যেন সমুদ্রের বুকে সাঁতরে বেড়াছে আকাশের লক্ষ লক্ষ তারারা। এখানে বসবাসকারী ফ্লাইটো প্ল্যাংটন নামক এক প্রকারের সূক্ষ্মজীব হচ্ছে এই রহস্যময় নীল আলোর আসল উৎস, যারা এই অদ্ভুত আলোর প্রদর্শন করে এবং সমুদ্রের ঢেউয়ের নাড়াচড়ার ফলে জ্বলে ওঠে । এখানে সারা রাত পর্যাটকেরা উপস্থিত থাকে শুধুমাত্র সমুদ্রের বুকে এই রহস্যময় আলোর প্রদর্শনি দেখার জন্য।

Glass Beach, California: সবাই পছন্দ করে সমুদ্রতটে বসে বালির উপর নাম লিখতে, কিন্তু যদি এমন হয় , যে সমুদ্রতীরে বালির জায়গায় ছড়িয়ে রঙিন কাঁচের টুকরো? অবাক হলেও সত্য কার্লিফর্নিয়াতে এই রকমই একটি সমুদ্র সৈকত রয়েছে এবং সেই সমুদ্র সৈকতের নাম গ্লাস বিচ। সমুদ্রের কিনারায় দাঁড়িয়ে যতদূর আপনার চোখ যাবে, ততদূরই আপনি ছড়িয়ে থাকা অসংখ্য রঙিন কাঁচের টুকরো দেখতে পাবেন। ১৯৪৯ সালের আগে পর্যন্ত এই বিচটি আস্তাকুড় হিসাবে ব্যাবহার করত কার্লিফনিয়ার সরকার, যেখানে শুধুমাত্র কাঁচের তৈরি জিনিষই ফেলা হত। পরবর্তী কালে সমুদ্রের ঢেউয়ের ধাক্কায় কাঁচগুলি টুকরো টুকরো হয়ে পুরো সমুদ্রতটে ছড়িয়ে যায়। আজ এই গ্লাস বিচ গ্লাসের জন্য পর্যাটকদের কাছে খুবই জনপ্রিয় একটি স্থান।

 

About The Author
Md Meheraj
Md Meheraj
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment