Now Reading
কয়েকটি জনপ্রিয় ভাষার মুভি , যা আপনাকে কাঁদাবে (মিনি রিভিউ সহ)।



কয়েকটি জনপ্রিয় ভাষার মুভি , যা আপনাকে কাঁদাবে (মিনি রিভিউ সহ)।

জ্বি, ১৪টি ভাষার ৬০ টি মুভি, যা আপনাকে কাঁদাবে, আপনার হৃদয় ছুয়ে যাবে, আপনাকে উদাসী করে তুলবে অথবা আপনার মনে একটু খানি বিষাদের জন্ম দিবে এবং আপনাকে জীবন সম্পর্কে কিছুটা হলেও নতুন করে ভাবতে শিখাবে।
আমার মনে আছে ছোটবেলায় বাসার সাদাকালো বিটিভিতে রামের সুমতি দেখার সময় অঝোরে কেঁদে ছিলাম।শুধু আমি একা কান্না করি নাই, তখন আমাদের পুরো পাড়াতে শুধুমাত্র আমাদের বাসায় টিভি ছিল। তাই সবাই আমাদের বাসায় এসে টিভি দেখতো। এই রামের সুমতি দেখার সময় প্রায় সবাই নিরবে কেঁদেছে।সাদাকালো সেই বিটিভিতে মুভি দেখার স্মৃতি এখনো আবছা মনে আছে। বাসায় তখন সব সময় অনেক মানুষ আসতো টিভি দেখতে। তবে শুক্রবার বিকেলে বাংলা ছায়াছবি দেখার জন্য সবচেয়ে বেশি মানুষ আসতো।রুমের ভিতরে প্রায় ৩০-৪০ জন মানুষ একসাথে বসে টিভি দেখতে খুব সমস্যা হতো। তাই সবার দেখার সুবিধার জন্য টিভি বাহিরে দুয়ারে রাখতাম।
সবাই যার বাসা থেকে মাদুর, চেয়ার বা বসার অন্যান্য উপকরণ এনে দুয়ারে বসতো।তবে একদম পিছনের দিকে যারা থাকতো তারা বলতো ‘ কথা বুঝা যায় না, আরেকটু সাউন্ড দাও’। কিন্তু সাউন্ড তো পুরোটাই দেওয়া আছে। আবার সাদাকালো টিভির ব্রাইটনেস হার মানতো দিনের আলোর ব্রাইটনেসের কাছে। তাই একটু পেছন দিকে বসলে দেখতে সমস্যা হতো। বিটিভি দেখার এইরকম আরো অনেক মজার স্মৃতি আছে। এখন তো একসাথে বসে টিভি দেখার জন্য দাওয়াত দিও মানুষ খুঁজে পাওয়া যায় না।
রামের সুমতির মতো একইভাবে কেঁদেছিলাম শাবানা – আলমগীর অভিনীত মরনের পরে মুভিটি দেখেও,এটাও ছোটবেলায় বিটিভিতে দেখেছিলাম।আমি অবশ্য তখন বেশ ছোট ছিলাম।তাই কান্নার বিষয়গুলো অত ভালো বুঝার কথা না।হয়তো মানুষের দুঃখ-কষ্ট অনুধাবন করতে খুব বেশি বয়সী হওয়া লাগে না…. এজন্যই হয়তো চোখ দিয়ে পানি ঝরেছিল। আমি অবশ্য মুভি দেখে হর হামেশাই কেঁদে ফেলি। বিশ্বযুদ্ধের এইরকম বহু মুভি আছে যা দেখে আমি অঝরে কেঁদেছি। কেন জানিনা, তবে আমার মুভি দেখে কাঁদতে ভালো লাগে। হয়তো, আসলে আমার কাঁদতেই ভালো লাগে।
প্রশ্ন হতে পারে ‘মুভি দেখে আমি কাঁদবো কেনো’??
আমার উত্তর হচ্ছে ‘মুভি যদি আমাকে কাঁদাতে পারে তাহলে আমি কাঁদবো না কেন’!?? আর কান্না তো কোন কিছুর বাধা মানে না। অন্যের দুঃখ-কষ্ট যখন মন থেকে অনুভব করা যায়, তখন চোখের পানি চাইলেও ধরে রাখা যায় না, এমনিতেই চলে আসে।

কিছু স্বীকারোক্তি
*ইমোশনাল মুভির এটাই যে সর্বশ্রেষ্ঠ লিস্ট তা হয়তো না। এর থেকেও ভালো মুভি হয়তো আছে, যেটা আমার স্মরণে নেই অথবা লিস্ট ছোট করার কারণে এই লিস্টে আনতে পারিনি।
*এটা একটা রেনডম লিস্ট।
*লেখাটি অনেক বড় সুতরাং কিছু অসঙ্গতি এবং ভুল থাকতে পারে। যেটা ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ করছি।
*আপনি বলতেই পারেন ‘এই মুভি দেখে আবার কান্না আসে কিভাবে!!আজব ব্যাপার’। তাহলে আপনাকে আমি বলব ‘সব মানুষ এক রকম আবেগপ্রবন হয় না’। সুতরাং যার মুভি দেখে কান্না আসে তাকে কাঁদতে দিন।
৬০টি ইমোশনাল মুভি:

বাংলা ৮টি

◼রামের সুমতি (১৯৭৭)
পরিচালক‎: শহীদুল আমিন

Country:Bangladesh
রাম গ্রামের দুষ্ট ও দুরন্ত কিশোর। গ্রামের লোকজন তার দুরন্তপণায় অতিষ্ঠ। আজ কারো গাছের ফল চুরি করেছে, তো কাল কারো পুকুরের মাছ চুরি করেছে, এমন নালিশ অহরহ আসছে।নিজের গ্রাম ছাড়াও আশপাশের অন্যান্য গ্রামেও রামের এই দুষ্টুমি কথা সবাই জানে। পিতা মাতা হীন রাম ছোটবেলা থেকে বেড়ে ওঠে তার ভাইয়ের কাছে। সে তার ভাইয়ের কোথাও খুব একটা মানে না…. শুধু তার বউদি নারায়ণীকে সে খুব মান্য করে। তবে এক সময় রামের এই দুষ্টুমি তার জীবনে ঝড় বয়ে নিয়ে আসে।
এই মুভিটি ছোটবেলায় বাসার সাদাকালো বিটিভিতে দেখার সময় প্রচুর কেঁদেছিলাম।

◼মরনের পরে (১৯৯০)
পরিচালক‎: আজহারুল ইসলাম খান

Country:Bangladesh
ছয় সন্তানকে নিয়ে পিতা-মাতার সুখের সংসার। সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল, তবে একদিন ফ্যাক্টরিতে কাজ করার সময় পিতার দু হাত মেশিনে বিছিন্ন হয়ে যায়। ঠিক তার পর পরই ওই পরিবারের মায়ের ক্যান্সার ধরা পরে। সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে বাবা-মা এক সময় তাদের সব সন্তানকে পালক দেয়া শুরু করে। কষ্টের মুভি… ভীষণ কষ্টের মুভি। এটিও ছোটবেলায় বিটিভিতে দেখেছি… আর অঝোরে কেঁদেছি।

Shadows of Time (2004)
Imdb:7.7
Country:Germany

ভারতীয় বাংলা ভাষায় নির্মিত একটি জার্মান মুভি।রবি যখন তার কিশোর বয়সে হারিয়ে যাওয়ার ভালবাসার মানুষকে খুঁজে পায়, তখন সময় এবং পরিস্থিতি তাদের দুজনকে অনেক আগেই বয়ে নিয়ে গেছে বহু দূরে।

◼পথের পাঁচালী ১৯৫৫
Imdb:8.5
পরিচালক‎: সত্যজিৎ রায�

Sparing Private Ryan (1998)
Imdb:8.6
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ক্যাপ্টেন মিলারের উপর আদেশ আসে যুদ্ধক্ষেত্র থেকে জেমস ফ্রান্সিস রাইয়ানকে খুঁজে বের করার জন্য। কারণ চার ভাইয়ের মধ্যে তার তিন ভাই ইতিমধ্যেই যুদ্ধে মারা গেছে.. বেঁচে আছে শুধু রাইয়ান।ক্যাপ্টেন মিলারের উপর আদেশ হচ্ছে রাইয়ানকে খুঁজে বের করে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসা। ক্যাপ্টেন মিলার ৬ জন সহযোগীকে সাথে নিয়ে রাইয়ানকে খুঁজতে বের হয়।

◼The Green Mile (1999)
Imdb:8.6
আপনি জেলখানার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার দায়িত্বে আছেন… একদিন আপনার সেলে আসলো মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামি। একসময় আপনি বুঝতে পারলেন লোকটি আসলেই অপরাধী নয় বরং ভালো মানুষ। কিন্তু আপনার কিছুই করার নেই, কারণ আপনাকে দ্বায়িত্ব পালন করতেই হবে… তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর আপনাকেই করতে হবে।

◼Hachi: A Pooch’s Story (2009)
Imdb:8.1
মুভিটি জাপানের একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত। যেটা ঘটেছিল ১৯২৫ সালে।জাপানের এক ইউনিভার্সিটির প্রফেসরের একটি পোষা কুকুর ছিল, যার নাম ছিল হাচিকো।কুকুরটিকে অবশ্য প্রফেসর রেলস্টেশনে কুড়িয়ে পায় এবং ধীরে এই কুকুরটিই হয়ে যায় প্রফেসরের সবচেয়ে কাছের বন্ধু।
প্রতিদিন সে প্রফেসরকে রেলস্টেশনে এগিয়ে দিয়ে আসে। আবার, বিকেলবেলায় প্রফেসরের ট্রেনের জন্য রেল স্টেশনে গিয়ে অপেক্ষা করে। তারপর প্রফেসর আসলে তাকে নিয়ে একসাথে বাড়িতে ফিরে।একদিন ক্লাস চলাকালীন সময়ে প্রফেসর মারা যান। কিন্তু হাচিকো তো সেটা জানে না। সে ওইদিন বিকাল বেলায় এসেও প্রফেসরের জন্য রেল স্টেশনে অপেক্ষা করতে থাকে।কিন্তু প্রফেসর আর ফিরে না।
এরপর থেকে কুকুরটি প্রতিদিন প্রফেসরের জন্য ওই রেল স্টেশনে অপেক্ষা করতে থাকে….. এক দিন দুই দিন নয়… টানা ৯ বছর।এভাবেই অপেক্ষা করতে সে রেলস্টেশনেই একদিন শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে।

◼Schindler’s Rundown (1993)
Imdb:8.9
১৯৯৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি মার্কিন মুভি।মুভিটি একটি অস্ট্রেলিয়ান উপন্যাস থেকে নির্মাণ করা হয়েছে। জার্মান ব্যবসায়ী অস্কার শিন্ডলারের জীবনী অবলম্বনে মুভিটি তৈরি করা হয়েছে, তিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন সময় অনেক পোলিশ ইহুদিদের গণহত্যা থেকে রক্ষা করেছিলেন।

◼Hotel Rwanda (2004)
Imdb:8.1
রুয়ান্ডা গণহত্যা নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র।রুয়ান্ডার গণহত্যা কতোটা বীভৎস এবং ভয়াবহ ছিল এগুলো দেখলে তার কিছুটা অনুমান পাওয়া যায়। মুভি দেখলে হয়তো আপনি কাঁদবেন না, কিন্তু গণহত্যার চিত্র গুলো দেখলে আপনার মন বিষণ্ন হয়ে যাবে।

◼Miracles from Paradise (2016)
Imdb:7.1
মুভিটি টেক্সাসের এক সুখী পরিবারের গল্প।হঠাৎ একদিন রাতে ওই পরিবারের দ্বিতীয় মেয়ে এনার পেটে প্রচন্ড ব্যথা শুরু হয়।ডাক্তার জানায় এনার আসলে একটি দুরারোগ্য রোগ
হয়েছে,যার কোন চিকিৎসা নেই।সুতরাং ধীরে এনা মারা যাবে।এরপর একদিন অলৌকিক এক ঘটনা ঘটে যায়, যে ঘটনার কোন ব্যাখ্যা মেডিকেল সাইন্স নেই।

◼Forrest Gump (1994)
Imdb:8.8
মুভির মূল গল্প শুরু হয় ১৯৮১ সালের জর্জিয়ার কোন এক বাস ষ্টেশনে। শারীরিক প্রতিবন্ধী ফরেস্ট গাম্প কিভাবে ঘটনাক্রমে তার জীবনকে আমেরিকার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে ফেলে,সেটাই বাস স্টেশনের বেঞ্চে বসে বলে যাচ্ছিলেন। ফরেস্ট গাম্প জীবনে তেমন কিছু চাইনি কিন্তু তা সত্ত্বেও সে জীবনে অনেক কিছু পেয়েছে। আমরা একসময়ে এসে সবকিছু হারিয়েও ফেলে।
মুভিটি দেখতে কখনো আপনি কেঁদে ফেলবেন, আবার কখনো হেসে উঠবেন।এটি এমন একটি মুভি যার ভালো লাগার কথা বর্ণনা করা অসম্ভব।

◼The Quest for Happyness (2006)
Imdb:
সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত এই মুভিতে মার্কিন উদ্যোক্তা ক্রিস গার্ডেনারের সংগ্রামী জীবনের এক বছরের কঠিন চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। ক্রিস গার্ডেনার একজন বোন স্ক্যানারের সেলসম্যান। কিন্তু এক্স-রে মেশিন তৈরীর হওয়ার পর বোন স্ক্যানারের ব্যবসা প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়ে।
ক্রিস গার্ডনারের নিজস্ব কোনো বাড়ি নেই। সে ভাড়া বাড়িতে থাকে। ব্যবসার অবস্থা খারাপ হওয়ায় সে বাড়ি ভাড়া দিতে পারছিল না, সেই সাথে বিভিন্ন বিল, তার ছেলের পড়ালেখার খরচ কোন কিছুই সে জোগাড় করতে পারছিল না। এই সবকিছুর প্রেক্ষিতেই তার বউ তাকে ছেড়ে চলে যায়। তার সাথে শুধু রয়ে যায় তার পাঁচ বছরের ছেলে। শুরু হয় ছেলেকে নিয়ে ক্রিস গার্ডনারের বেঁচে থাকার যুদ্ধ।বেঁচে থাকার তাগিদে সে তার ছেলেকে নিয়ে কখনো রাস্তায়, কখনো ফুটপাতে, এমনকি কখনো বাথরুমে পর্যন্ত থাকতে হয়।

◼Titanic (1997)
Imdb:7.8

◼The Scratch pad (2004)
Imdb:7.8
◼The Deficiency in Our Stars (2014)
Imdb:7.7

◼A Delightful Personality (2001)
Imdb:8.2

◼Letters to God (2010)
Imdb:6.3

◼Hacksaw Edge (2016)
Imdb:8.1

◼The Painted Shroud (2006)
Imdb:7.5

◼War Pony (2011)
Imdb:7.2

◼My Sister’s Guardian (2009)
Imdb:7.4

◼I Am Sam (2001)
Imdb:7.6

◼Pay It Forward (2000)
Imdb:7.2

◼Never Let Me Go (2010)
Imdb

About The Author
Raihan Yasir
Raihan Yasir
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment