Now Reading
প্যারালাল ইউনিভার্স



প্যারালাল ইউনিভার্স

সাইন্স ফিকশনে আমরা অনেকেই অনেক কথা শুনেছি প্যারালাল ইউনিভার্স নিয়ে। এটা কি আদৌ সম্ভব এটা কি আদৌ সম্ভব কিনা এখন প্রশ্ন তো আসতেই পারে। কোন প্রমাণ অথবা রেফারেন্স আছে কি? অবশ্যই আছে। এটা নিয়ে এখন আমরা কিছু আলোচনা করবো। কয়েকটা জিনিস জেনে রাখা দরকার প্যারালাল ইউনিভার্সের কথা বলার আগে, যেমন ‘ডিজে ভু’। এটি একটি ফ্রেঞ্চ শব্দ এর অর্থ এমন কিছু দেখা যা দেখে আপনার মনে হবে এটা আগে কখনো দেখেছেন বা এমন কিছু আপনার সাথে আগে ঘটেছিল। এমন কিছু আগে আপনার সাথে কখনও ঘটেনি, আর এটাই হলো সত্য।

আপনার মনে হতে পারে এমন কিছু ঘটেছে যা আপনার মনে হবে যে এইটা আগে থেকেই আপনি জানতেন। কিন্তু সত্য হলো আপনি আসলে তা জানতে না। জন টিউটর একটা শব্দ আবিষ্কার করেন ১৯৯৮ সালে, যার নাম অলটার ভাস। কিছুটা টাইম ট্রাভেলের মতো জিনিসটা। ধরুন আপনি নিজে ভবিষ্যতে চলে গেলেন অথবা অন্য কোন জগতের আপনার কাছে, যেখানে গিয়ে আপনি আপনাকে অথবা কাউকে কোন মেসেজ দিয়ে আসলেন এটা অলটার ভাস। জিনিসটা হইতো আজগুবি গল্প মনে হতে পারে। চলুন তাহলে দুইটা ঘটনা জেনে আসি।

সেপ্টেম্বর ১২ ২০০৮ সাল বিকাল চার টা বেজে বাইশ মিনিট। অ্যামেরিকার লস এঞ্জেলস -এ মেট্রো লিঙ্ক একটা ট্রেন এর মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটে। ২৬ জন মানুষ মারা যান দুর্ঘটনায়। এর কথা কেউই জানত না, কারণ ঘটনাটি ঘটেছিল একটা দুর্গম জায়গায়। সেদিন বিকেল পাঁচটায় একজন মহিলা পুলিশের কাছে কমপ্লেন করে যে তার স্বামীর নাম্বার থেকে অনবরত কল আসছে কিন্তু কল রিসিভ করলে কোন কথা বলছে না। এমন কি কোন ধরনের শব্দ শোনা যাচ্ছে না। পুলিশ এবং উদ্ধারকর্মী মিলে ফোন কল ট্র্যাক করে প্রায় ১১ ঘণ্টা পর ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় এবং ফোন কল ট্র্যাক করেই ঐ মহিলার স্বামীকে শনাক্ত করেন উদ্ধারকর্মী।
রহস্য হলো ওই ব্যক্তি ১১ ঘণ্টা আগেই মারা গিয়েছিলেন এবং আরো বেশি রহস্য হলো সেই সিগন্যাল হারিয়ে যায় ফোন কল ট্রাক করে তাকে শনাক্ত করার পরে এবং অনেক খুঁজেও সেই ফোনটি আর কখনও পাওয়া যায়নি। তাহলে কি ফোন কলটি প্যারালাল ইউনিভার্সের অন্য পৃথিবীতে থাকা তার স্বামীর কাছ থেকে আসছিল?

ঘটনা নাম্বার ২ ঃ মাটি নামের এক লোক দাবি করতেন যে তিনি ভবিষ্যতে গিয়েছিলেন কিন্তু কেউ প্রমাণ চাইলে চুপ হয়ে যেতেন। তিনি তার মৃত্যুর আগে বলেন যে তার নাকি খুব টুইন পাইনস মলে যেতে ইচ্ছা করছে। কিন্তু এ নামে কোনো মলের নাম কেউ কোনোদিন শোনেনি। তাই তারা সেটাকে প্রলাপ বলেই ধরে নেন। কিন্তু তার আত্মীয়রা মৃত্যুর এক বছর পরে পত্রিকায় একদিন দেখতে পান যে প্রতিবেশী দেশের একটি মলের নাম লন পাইন মল। নাম পরিবর্তন করে টুইন পাইন্স নাম রেখেছে। হয়ত এখনও গোলক ধাঁধাঁর মধ্যেই আছি আমরা।

আর দ্বিতীয়ত তার প্রেমিক অন্য একজন অপরিচিত মানুষ। তিনি গত দুই বছর ধরে যার সঙ্গে অ্যাফেয়ার করে আসছেন তার নাম্বারে ফোন দিলে সেই লোকটি তাকে চিনছেই না। কারণ সেখানে তার প্রেমিক এর পরিবর্তে অন্য একটি লোক ছিল এবং লোকটির নাম সেই ফোন নম্বরটি রেজিস্টার করা ছিল। দ্বিতীয় ঘটনা ১৯৫৪ সালে, টোকিও। টোকিও বিমানবন্দরে একজন অদ্ভুত মানুষকে আটকে দেয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। লোকটা বলেছে তিনি টরিড নামক কোন এক দেশ থেকে এসেছেন। কিন্তু পৃথিবীতে এই নামের কোন দেশের অস্তিত্বই নেই। কিন্তু লোকটাকে ভন্ড বলা চলে না কারণ তার পাসপোর্টটা একদমই আসল ছিল। এমনকি তার কাছে ব্যাংকের স্টেটমেন্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং অন্যান্য জরুরী যেসব কাগজপত্র আছে সেগুলোতে টরিড দেশের নাম লেখা এবং সরকারের সিলও রয়েছে। টরিড একটি ওই লোকটি জানান ইউরোপিয়ান দেশ এবং সেই দেশটার বয়স এক হাজার বছর। তাহলে সেই দেশটা হঠাৎ করে কোথায় গায়েব হয়ে যেতে পারে যে দেশটার বয়স এক হাজার বছর।

পুলিশ তাকে কড়া নজর রাখেন এবং তাকে একটা হোটেলে রাখেন রাতে। কিন্তু সকাল বেলায় রুমের দরজা ভেঙ্গে ওই লোকটির উপস্থিতি পাওয়া যায় না। এখন এসবের ব্যাখ্যায় যাব। এই জগতের মতো অসংখ্য জগৎ আছে বলে ধারণা করেন বিজ্ঞানীরা এবং আপনার মত আরও অসংখ্য আপনি আছেন। কেউ কারও উপর কোন প্রভাব ফেলে না। এই জগতের আপনি হয়তো এখনো আমার লেখা পড়ছেন কিন্তু অন্য জগতে আপনি হয়তো আমার সাথে ঝগড়া ঝাটি করে আমার কাছ থেকে সম্পর্ক চুটি নিয়েছেন অনেক আগেই। এ জগতের আপনি হয়তো বিবাহিত আবার অন্য জগতের আপনি হয়তো অবিবাহিত। নাথিং ইম্পসিবল।

মাঝে মাঝে একাধিক জগৎ ক্রস করে ফেলে একে অপরকে। আর তখনেই ঘটে আমাদের ডিজে ভু বা অল্টারভাস। এখন হইতো কিছুটা ক্লিয়ার হওয়া গেছে। প্যারালাল ইউনিভার্স এমন একটি জগত যেখানে আপনার আমার মতোই একজন বসবাস করছে। আমাদের মহাবিশ্বের ঠিক অনুরূপই হলো এই প্যারালাল ইউনিভার্স। আমরা যখন কোনো আয়নার সামনে দাঁড়াই তখন যেমন ঠিক আমাদেরই অবিকল একজনকেই আয়নার অপর প্রান্তে দেখতে পাই ঠিক তেমনি আমাদের মহাবিশ্বের অবিকল আরেকটি মহাবিশ্বই হলো এই প্যারালাল ইউনিভার্স।

About The Author
Md Meheraj
Md Meheraj
Comments
Leave a response

You must log in to post a comment