ফটো স্টোরি

****নরম হাতে গরম হাতুড়ি****

****”নরম হাতে গরম হাতুড়ি****

 

আমাদের দেশের প্রায় সকল বয়সের মানুষ কোননা কোনো পেশার কাজ করে থাকেন

আর সে মানুষটি হতে পারে পুরুষ বা মহিলা |**

তা   হতে পারে গ্রামে বা শহরে | অনেক মানুষ তাদের জীবিকা চালানোর জন্য গ্রাম থেকে শহরে আসে |
 আবার সে কাজটি হতে পারে ব্যবসা , চাকুরী বা এই ছবিটার মতো ইট ভাংগার কাজ |

আর তা যে কাজই হোকনা কেন তার সাথেই জড়িয়ে থাকে তাদের জীবন জীবিকা | আমাদের দেশের প্রায় অনেক পুরুষ বা মহিলা এই ইট ভাংগার কাজ বা ইটের ভাটায় কাজ করে থাকেন | কিন্তু এই ইট ভাঙার কাজে তাদের মধ্যে বেশির ভাগই হলো মহিলা | আবার এই মহিলাদের মধ্যে বেশির ভাগ হলো বয়স্ক | তারা রোদে পুরে রোদের রশ্নিতে গরম হওয়া ইট গুলোকে অনেক কষ্ট করে ভাঙার পর দিন শেষে যে টাকা পায় তা দিয়ে কোনো মতে তারা তাদের সংসার চালায় |আবার কোনো কোনো সময় কাজের মাঝে ইট ভাঙতে গিয়ে তারা তাদের হাতি ভেঙে ফেলে ভুল বসত ইট এ হাতুড়ি দিয়ে বারি দিতে গিয়ে হাতের উপরেই বারি পরে যায় আর তখন তাদের হাতের চিকিৎসা করার জন্য মালিক কোনো টাকা পয়সা দেননা | আবার অন্য দিকে তারা এই ইট ভাঙার কাজ না করলে এই বড় বড় দালান তৈরী হতো না | তাদের মাধ্যমে আমাদের দেশের প্রায় অনেক দালান কোঠা তৈরী হয়ে থাকে | কিন্তু অন্য দিকে তাদেরকে দেখা হয় তুচ্ছ করে | তারা সাধারণতো এই ইট ভেঙেই তাদের পেট চালায় | কিন্তু এখন আমাদের দেশে তৈরী হয়েছে ইট ভাংগার মেশিন আর এই ইট ভাংগার মেশিন তৈরী হওয়ার ফলে যারা হাতে কষ্ট করে ইট ভেঙে সংসার চালনা করে তাদের পেট চালানোট এখন হয়ে গেছে অনেক কঠিন | করণ এখন সবাই মেশিনের মাধ্যমে ইট ভাংগে | তাই হাতে ইট ভাংগার জন্য এখন মানুষের দরকারটা খুব কম | কিন্তু  এই বয়স্ক মহিলা বা পুরুষরা হাতে ইট ভাংগার কাজ করে  তখন তাদেরকে অনেক কম টাকা দেয়া হয়  | তারা সারাদিন রোদে পুরে কষ্ট করে ইট ভাঙে |  তারা তাদের কষ্টের উপার্জনের এই অর্থ দিয়ে তাদের ছেলে মেয়েদের পড়াশুনা করায় সংসার চালায় তাদের অসুস্থ ভাই বোন অথবা স্বামী বা স্ত্রীর চিকিৎসা ছাড়া আরো অনেক কিছুই করে থাকে | তারা যখন কষ্ট করে সারা দিন কাজ করার পর দিন শেষে তাদের হাতে টাকা পায় তখন তাদের সেই কষ্ট আর কষ্ট থাকেনা দিনশেষে তারা বাড়ি ফিরে যায় এবং তাদের অর্জিত অর্থ দিয়ে  তারা তাদের জীবন নির্বাহ করে থাকেন |

***তারা যখন কাজ করে তখন তাজের দায়িত্ব মালিক কর্তৃপক্ষ নেয়া দরকার |***************************
***তাদেরকে তাদের কাজের নিজ মূল্য দেয়া দরকার |***********************************************
***তারা নানা রকম সুযোক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তাদেরকে নানা রকম সুযোক সুবিধা দেয়র************
***তারাও তো মানুষ তাদেও তো নানা রকম সুযোক সুবিধার দরকার *********************************

♥♥♥যে যে পেশারই কাজ করুক না কেন আমরা সবাই সবাইকে ভালোবাসবো♥♥♥

**♥♥মানুষ মানুষের জন্য ♥♥**

 

 

 

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

অসম্ভব সুন্দর শহর আজ জনশূন্য দ্বীপ ! কিন্তু কেন ?

ছেলেবেলা

Musfiq Rahman

হিজড়ারা আজ আমাদের সমাজে অবহেলিত কেন..?? আমারা কি জানি বা জানতে চেষ্টা করেছি কখনো ..??

Arman Siddique

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy