Now Reading
“শাওমি রেডমি নোট 4X”- বেস্ট বাজেট স্মারটফোন?



“শাওমি রেডমি নোট 4X”- বেস্ট বাজেট স্মারটফোন?

স্বল্প দামে একটি ভাল স্মারটফোন কে না চায়?আজ আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম বিশ্ববিক্ষ্যাত চাইনিজ ব্র্যান্ড শাওমির নতুন বাজেট স্মারটফোন “রেডমি নোট 4X”  এর ইন ডেপ্থ রিভিউ।

ইতিমধ্য দেশের বাজারে সারা জাগিয়ে তোলা ফোনটির মুল বৈশিষ্ট হল দামের তুলনায় এর ফিচারস সমূহ। ফোনটি দুটি ভার্সন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। ৩জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি রম ভার্সন এবং ৪গিবি র‍্যাম ও ৬৪ গিবি র‍্যাম ভার্সন। ফোনটি তে ব্যবহৃত হয়েছে কোয়াল্কম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ প্রসেসর যা ফোনটিকে যথেষ্ট দ্রুত গতিতে কাজ সম্পন্ন করতে সাহায্য করে। ফোনটি তে রয়েছে ৫.৫ইঞ্চি স্ক্রিন যার রেজ্যুলেশনের ১০৮০*১৯২০ পিক্সেল ও পিক্সেল ডেন্সিটি ৪০১ পিপিআই। অর্থাৎ ফোনটির ডিস্প্লে যথেষ্ট ভাল। ফোনটির সিপিউ ২.০ গি .হা. অক্টাকোর প্রসেসর সম্পন্ন ও গ্রাফিক্স এ ব্যাবহৃত এড্রেনো ৫০৬। অর্থাৎ আপনি নানা হাই রেজ্যুলেশনের গেম অনায়াসে খেলতে পারবেন।

ফোনটির ব্যাক ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল ও ফ্রন্ট ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল। দাম তুলনায় ক্যামেরা কোয়ালিটি যথেষ্ট ভাল।ফোনটির মেমোরী ২৫৬ জিবি পর্যন্ত এক্সপান্ডেবল। অর্থাৎ ফোন স্টোরেজ নিয়ে কোন চিন্তা করার প্রয়োজন ই হবেনা আপনার।ফোনটিতে রয়েছে দ্রুত গতি সম্পন্ন ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর যা আপনার ফোন কে রাখবে নিরাপদ।ফোনটিতে আরও রয়েছে আই আর ব্ল্যাস্টার যা দিইয়ে আপনি আপনার ঘরের টিভি,এসি সহ নানা ইলেক্ট্রনিক ইকুইপমেন্ট কন্ট্রোল করতে পারবেন। এছাড়াও ফোনটিতে রয়েছে জাইরো সেন্সর,এক্সেলোমিটার সহ যাবতীয় সকল সেন্সর।

এবার আসা যাক ব্যাটারীর প্রসঙ্গে।ফোনটিতে ব্যাবহৃত হয়েছে ৪১০০ মিলি এ্যম্প. এর ব্যাটারি। যা আপনি এক চার্জ এ অনায়াসে একদিন চালাতে পারবেন।তবে ব্যাটারি টি ফাস্ট চার্জ সম্পন্ন নয় । ফোনটি ডুয়েল সিম সাপোর্টেড। তবে মেমোরী কার্ড ব্যবহার করলে তা একটি সিম এর জায়গা নিয়ে নেয়। কিন্তু বাজারে আজকাল এক ধরনের হাইব্রীড সিম স্লট পাওয়া যায় যা দিয়ে দুটি সিম ও মেমোরী কার্ড একসাথে ব্যবহার করা যায়।

এবার ফোনটির দাম প্রসঙ্গে আসা যাক। ফোনটি ৪ টি রঙ এ বাজারে পাওয়া যাচ্ছে (গ্রে,গোল্ড,ব্ল্যাক ও পিংক)। গ্রে ও গোল্ড রঙ এর দাম তুলনা মুলক কম।এ দুটি রং এর মধ্যে কিনতে হলে আপনাকে গুনতে হবে ১৪ হাজার টাকা।ব্ল্যাক ও পিংক আপনি পাবেন ১৫ হাজার টাকার ভিতরে। অফিসিয়ালি ফোন দুটি বাংলাদেশের বাজারে না আসায় দামের ভিন্নতা দেখা যায়।

তাই সব কিছু মিলিয়ে সাধ্যের মধ্য সকল কিছু পেতে আপনি দেরি না করে কিনে ফেলতে পারেন ফোনটি।কেননা এই দামের ভিতরে বাজারের সকল ফোনের চেয়ে ফোনটির বিল্ড কোয়ালিটি ও পার্ফরমেন্স অন্য সকল ফোনের থেকে যথেষ্ট ভাল।

About The Author
Nafiz Zaman