অন্যান্য (U P)

বাংলার কৃতি সন্তান স্যার ড. এম. আজিজুল হক

স্যার আজিজুল হক ১৮৯২ সালের ২৭ নভেম্বর নদীয়া জেলার শান্তিপুর গ্রামের এক সাধারণ মধ্যবিত্ত মুসলিম পরিবার জন্মগ্রহণ করেন । তাঁর পিতা মুন্সি মনিরুদ্দিন আহমেদ এবং পিতামহ নাসিম উদ্দিন আহমেদ ।তিনি পিতা মাতার এক মাত্র সন্তান ।

শান্তিপুরে পিতামহের প্রতিষ্ঠিত পারিবারিক বিদ্যালয় আরবি ও বাংলা শেখার মাধ্যমে তাঁর শিক্ষা জীবন শুরু হয় । শান্তিপুর মুসলিম হাইস্কুলে তিনি লেখাপড়া করেন এবং ১৯০৭ সালে প্রবেশিকা পরীক্ষায় পাস করেন । কলকাতা প্রেসিডেন্সি  কলেজে এম.এ ও বি. এ অধ্যয়ন করেন । ১৯০৯ সালে এফ. এ ও ১৯১১ সালে Distingshon সহ বি.এ পাস করেন । কলকাতা ইউনিভার্সিটি Law College থেকে ১৯১৪ সালে তিনি বি.এল ডিগ্রি  লাভ করেন ।

১৯১৫ সালে কৃষ্ণ নগর জেলা আদালতে ওকালতি শুরুর মধ্য দিয়ে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন । বেটণা Union Board এর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হন। ১৯২৬ সালে নদীয়া জেলার সরকারি উকিল ও পাবলিক PP পদ লাভ করেন । ১৯৩৪ সালের ১৫ই জুন বঙ্গীয় সরকারের শিক্ষামন্ত্রী নিযুক্ত হন । ১৯৩৭ সালে বঙ্গীয় সভার সদস্য নির্বাচিত হন ।১৯৪২ সালে ভারতের হাইকমিশনার পদে নিযুক্ত হয়ে লন্ডন গমন করেন ।

তিনি  ১৯২৬ সালে খান বাহাদুর , ১৯৩৭ সালে সি .আ .ই  ,১৯৩৯ সালে নাইট উপাধি পান । তিনি ইউ . টি . সি অরানারি Lieutenant কর্নেল ছিল । বগুড়ায় তাঁর নামে ১৯৩৯ সালের ৯ জুলাই আজিজুল হক কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয় ।

Histoy and Problems of Moslem Education in Bengal (1917) ,Education & Retrenchment (1924) ,The Sword of the Cresent Moon (1984),Cultural Contributions of Islam to Indian Hisory : A Plea for Searate Electorate in Bengal (1931) ,The Man Behind the Plough (1939) etc….হল তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থ ।

স্যার ড. এম. আজিজুল হক কলকাতার ১৯৪৭ সালের ১৯ মার্চ তারিখে মস্তিস্কে রক্তক্ষরণ জনিত কারনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ।

একই রকম আরো কিছু ফুটপ্রিন্ট

বাংলাদেশে “হারকিউলিস” দ্বারা কথিত চিরকুট দিয়ে ধর্ষকদের খুন

salma akter

এসেছে উবুন্টু ১৭.১০ ,রিভিউ

Rezwanul joy

কবে থামবে এই অসভ্যতা?

Kanij Sharmin

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy