5
New ফ্রেশ ফুটপ্রিন্ট
 
 
 
 
 
ফ্রেশ!
REGISTER

স্যাম কারেনের হ্যাটট্রিক, পাঞ্জাবের দারুণ জয়

Now Reading
স্যাম কারেনের হ্যাটট্রিক, পাঞ্জাবের দারুণ জয়

আইপিএলে আজ ১৪ রানে পাঞ্জাব হারিয়েছে দিল্লিকে। ১৬৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা দিল্লি ১৬.৩ ওভারে তুলে ফেলে ৩ উইকেটে ১৪৪ রান। ১৬.৩ ওভারে মোহাম্মাদ শামিকে লংঅনে যেভাবে ছক্কা মারলেন পন্ত, মনে হচ্ছিল দিল্লির জয় সময়ের ব্যাপার মাত্র। ২১ বলে ২৩ রান টি-টোয়েন্টিতে কোনো সমীকরণ নাকি! যখন জমে উঠেছে ঋষভ পন্ত-কলিন ইনগ্রামের চতুর্থ উইকেট জুটি (৪১ বলে ৬২ রান) তখনই বদলে গেল ম্যাচের রং।
খেলাটা ঘুরল ঠিক এরপরই। ২৬ বল ৩৯ রান করা পন্তের স্টাম্প উড়িয়ে দিলেন শামি। ঠিক পরের বলে রান আউট নতুন ব্যাটসম্যান ক্রিস মরিস। মড়ক লাগতে শুরু করল দিল্লির। ‘মড়ক’ না বলে ‘চোক’ শব্দটাই বোধ হয় ভালো যায়। রান তুলবে কী, দেখতে দেখতে হুড়মুড়িয়ে ব্যাটিং অর্ডার ধসে পড়তে শুরু করল দিল্লির।
১২ বলে দরকার ছিল ১৯ রান। হাতে ৩ উইকেট। টি-টোয়েন্টিতে এটিও এখন খুব কঠিন সমীকরণ নয়। কিন্তু দিল্লির যে ততক্ষণে থরহরি কম্পমান দশা! হাতে ২ উইকেট নিয়ে শেষ ওভারে ১৫ রানের সমীকরণ তারা মেলাবে কী করে? কারেন সুযোগটা কাজে লাগালেন ভালোভাবে। ১৮ তম ওভারের শেষ বলে উইকেট পাওয়া পাঞ্জাবের বাঁহাতি ইংলিশ পেসার শেষ ওভারের প্রথম দুই বলে দুই উইকেট নিয়ে পূর্ণ করলেন হ্যাটট্রিক! ২.২ ওভারে ১১ রানে কারেন পেলেন ৪ উইকেট। তোপ দাগার কাজটা শামিই শুরু করেছিলেন, কারেনের ঝলকানিতে যেটি শেষ!
কারেনে ঝলসে গেছে, ঠিক আছে। তবে এখানে দিল্লির ব্যাটসম্যানদের দায়ই বেশি। তাঁরা যেন নিজেদের আগের ম্যাচের পুনরাবৃত্তি করলেন। কলকাতার বিপক্ষে ম্যাচটা ভালো অবস্থানে থেকেও নিয়ে গিয়েছিলেন সুপার ওভারে। তবুও তো সেটা জিতেছিলেন। আজ কী করলেন? অলআউট হওয়ার আগে ১৬ বলে ৮ রান যোগ করতে শেষ ৭ উইকেট পড়ল দিল্লির। পৃথ্বি শ, শিখর ধাওয়ান, পন্ত, শ্রেয়াশ আয়ারÑভারতের এক ঝাঁক তারকা ব্যাটসম্যানের দিকে তাকিয়ে গাঙ্গুলি-পন্টিং বোধ হয় একটা কথাই ভাবছেন, এভাবে হারতে পারলে!

অশ্বিন বিতর্ক: এমসিসি কী বলে?

Now Reading
অশ্বিন বিতর্ক: এমসিসি কী বলে?

আইপিএল এর জনপ্রিয়তা ক্রিকেট বিশ্বে অনেক বেশি। কিন্তু বিশ্বকাপের আগে এবারের আইপিএল নিয়ে একটু উন্মাদনা কম। অনেক দলই বিশ্বকাপের আগে খেলোয়াড়দের চোটমুক্ত রাখার কথা চিন্তা করছে। বড় তারকাদের অনেকেই নেই এবার। কিন্তু আইপিএল জমে উঠতে তারকার তো দরকার নেই। রবিচন্দ্রন অশ্বিনই আইপিএলকে জমিয়ে দিলেন এক ঘটনায়। জস বাটলারকে ‘মানকড়’ আউট করে টিভি পর্দা আর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমকে আলোচনার খোরাক এনে দিয়েছেন। সে ঘটনায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও মতামত জানিয়েছে, বলেছে ওটা আউট দেওয়া উচিত হয়নি আম্পায়ারের। কিন্তু ক্রিকেটের আইনপ্রণেতা মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব কী বলে?
অশ্বিনের মানকড় আউটের পর এমসিসিকেও নড়েচড়ে বসতে হয়েছে। মানকড় আউট নিয়ে অতীতে যত আলোচনা হয়েছে তার সবই ক্রিকেটীয় চেতনা ঘিরে। আউট নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই, শুধু আলোচনা ওভাবে আউট করাটা ভদ্রলোকের খেলার সঙ্গে যায় কি না! তবে অশ্বিনের আউটের বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। কারণ, অশ্বিন নিজের স্বাভাবিক অ্যাকশনে বল করেননি কাল। ওই বলের সময় অশ্বিন বল ছোড়ার ভঙ্গি যখন করেছেন, তখনো ক্রিজে ব্যাট ছিল জস বাটলারের। অশ্বিন নিজের স্বাভাবিক গতি আটকে অপেক্ষা করেছেন কখন বাটলার দাগ পার হবেন এবং তারপর স্টাম্প ভেঙেছেন।
এ ব্যাপারে এমসিসি অবশ্য গৎবাঁধা নিয়মের উল্লেখই শুধু করেছে, ‘এ আইন খুব জরুরি। এ আইন ছাড়া নন-স্ট্রাইকার স্বাধীনতা পেয়ে যাবে, পিচে অনেক দূর এগিয়ে থাকবে। এমন কিছু আটকাতে অবশ্যই আইন দরকার। এখানে মূল বিষয় হলো নন-স্ট্রাইকার কখন নিশ্চিন্তে ক্রিজ ছাড়তে পারবে এবং বোলার কীভাবে বিতর্ক সৃষ্টি না করে এভাবে আউট করতে পারবে। পরিষ্কার করে বলতে গেলে, এ আইনে কখনো বলা হয়নি নন-স্ট্রাইকারকে সতর্ক করতে হবে। এবং এটাও বলা হয়নি, একজন নন-স্ট্রাইকার ক্রিজ থেকে আগে বের হয়ে সুবিধা নিতে চাইলে তাঁকে আউট করা ক্রিকেটীয় চেতনার বিরোধী।’
আইন যে দরকার সেটা বুঝতে পেরেছেন সবাই। এত দিন সবাই শুধু ক্রিকেটীয় চেতনার কথাই বলত, তবে অশ্বিনের ঘটনায় তো কিছু অস্বাভাবিকতাও আছে! অশ্বিনের অ্যাকশন ও শরীরী ভাষা দেখে অধিকাংশ ক্রিকেটারই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন ওই বল করার কোনো ইচ্ছা তাঁর মাঝে ছিল না। বল করার ভঙ্গি করে থেমে যাওয়ায় বাটলার বুঝতে পারেননি যে তিনি বল ডেলিভারির আগেই বের হয়ে যাচ্ছেন। ক্রিকেটের আইনের ৪১.১৬ ধারা বিশ্লেষণ করে এমসিসি বলছে এটা আউট কি আউট না সে সিদ্ধান্ত নিতে হতো অশ্বিনের শরীরী ভাষা দেখেই।
এমসিসির ভাষায় অশ্বিন বল করতে চাইছেন না কি চাচ্ছেন না এটার ওপর নির্ভর করেছে সিদ্ধান্ত, ‘অনেকেই মনে করছেন অশ্বিন তাঁর অ্যাকশনে দেরি করেছেন যাতে বাটলার তাঁর জায়গা থেকে বের হয়ে যায় এবং অশ্বিনের বল যখন ছাড়ার কথা ছিল তখন বাটলার ক্রিজেই ছিলেন। এটা যদি ইচ্ছাকৃত ভাবে দেরি হয়, তবে এটা অবৈধ এবং ক্রিকেটীয় চেতনা বিরোধী। অশ্বিন দাবি করেছে এটা তা নয়। টিভি আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিতে হতো এবং আইন অনুযায়ী এটা গ্রহণযোগ্য সে কেন বাটলারকে আউট দিয়েছে। এটা দুই দলের ওপরই নির্ভর করছে খেলা আইন ও চেতনা দুইয়ের সম্মেলনে যেন হয়। নন-স্ট্রাইকারকে সাবধান হতে হবে যেন সে আগে ক্রিজ ছেড়ে অবৈধ সুবিধা না নেয়, বোলারকেও ৪১.১৬ আইনানুযায়ী সময় মেনে রান আউট করতে হবে।’

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে নতুন ইতিহাস গড়লেন সুরেশ রায়না

Now Reading
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে নতুন ইতিহাস গড়লেন সুরেশ রায়না

সুরেশ রায়না ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের একজন নিয়মিত খেলোয়াড়। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ইতিহাস তিনি গড়লেন এক নতুন রেকর্ড। (আইপিএল) ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৫ হাজার রান সংগ্রহ করে ইতিহাস গড়েছেন সুরেশ রায়না। আইপিএলের দ্বাদশ আসরের প্রথম ম্যাচে শনিবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি।
আইপিএলে ১৭৭ ম্যাচে এক সেঞ্চুরির সঙ্গে ৩৫টি হাফ-সেঞ্চুরিতে এ পর্যন্ত রায়নার মোট সংগ্রহ ৫০০৪ রান। ব্যাটিং গড় ৩৪ দশমিক ২৭। রায়নার ঘাঁড়ে নিঃশ্বাস ফেলেছেন তার চেয়ে ১৩ ম্যাচ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ১৬৪ ম্যাচে ৪টি সেঞ্চুরি, ৩৪টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ৩৮ দশমিক ১০ গড়ে ৪৯৫৪ রান কোহলির। এরপর ১৭৩ ম্যাচে ৪৪৯৩ রান নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

আজ থেকে শুরু আইপিএল

Now Reading
আজ থেকে শুরু আইপিএল

আজ থেকে শুরু হচ্ছে ভারতের জনপ্রিয় ঘরোয়া টি২০ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) ১২তম আসর। উদ্বোধনী দিন রয়েছে একটি ম্যাচ। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মহেন্দ্র সিং ধোনির দল চেন্নাই সুপার কিংস খেলবে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে। খেলাটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায়। চেন্নাইর এম চিদম্বরম স্টেডিয়ামে খেলাটি শুরু হবে।
ক্রিকেটবিশ্বে ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটের প্রবর্তন ঘঠে এই আইপিএলের হাত ধরেই। এরপর একে একে সব দেশ ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট প্রবর্তন করলেও এখনও সবচাইতে বড় ক্রিকেট বাজার আইপিএল।
আগামী মে মাসে শুরু হতে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাকর আসর বিশ্বকাপ। তার আগে ছোট ফরম্যাটে উত্তেজনাপূর্ণ ও শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ে শামিল হবার সুযোগ পাচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের মহাতারকারা।
আগের মতোই রাউন্ড রবিল লীগ পদ্ধতিতে প্রাথমিক পর্বে প্রতিটি দল দুইবার করে মুখোমুখি হবে। সেখান থেকে পয়েন্ট টেবিলের সেরা চার দল পাবে সুপার ফোরের টিকেট। আইপিএল চলবে ১২ মে পর্যন্ত। মাত্র দুই সপ্তাহের ব্যবধানে ইংল্যান্ড এ্যান্ড ওয়েলসে শুরু হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ঠিক তার আগে এই আসর ঘিরে অবশ্য সমালোচনা রয়েছে। প্রশ্ন উঠছে ক্রিকেটারদের ইনজুরি-শঙ্কা ও ফিটনেস নিয়ে। আইপিএলে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি সাকিব আল হাসান খেলবেন হায়দরাবাদের হয়ে। আর ইনজুরিপ্রবণ মুস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে অনুমতি না পাওয়ায় এবার খেলতে পারছেন না। গত এগারো আসরে আইপিএলের চ্যাম্পিয়ন দলগুলো হচ্ছে- রাজস্থান (২০০৮), ডেকান চার্জার্স (২০০৯), চেন্নাই (২০১০, ২০১১, ২০১৮), কলকাতা (২০১২, ২০১৪), মুম্বাই (২০১৩, ২০১৫, ২০১৭) ও হায়দরাবাদ (২০১৬)।

আইসিসি জানিয়ে দিল আইপিএল নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত

Now Reading
আইসিসি জানিয়ে দিল আইপিএল নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত

বিভিন্ন T20 ক্রিকেট লিগগুলোর মধ্যে আইপিএল সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। কিছুদিন ধরেই ভারতীয় মিডিয়ায় গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছিল আইপিএল নিয়ন্ত্রণ করতে চায় আইসিসি। যা নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে বিরাজ করতে থাকে অস্বস্তি।

মার্চের ২ তারিখ দুবাইয়ে শেষ হয়েছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) ছয় দিনের সভা। সেখানে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। যার মধ্যে একটি ছিল বিশ্বের টি-টুয়েন্টি লিগগুলোর নিয়ন্ত্রণ। কিন্তু ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) সুনাম বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ায় এতে হস্তক্ষেপ করতে চায় না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি)।

আইপিএলের ব্যাপারে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আইসিসির প্রধান নির্বাহী জানান, ‘সংবাদমাধ্যমে যে রকম বলা হচ্ছে, আইপিএলকে নিয়ন্ত্রণ করতে চায় আইসিসি, সেটা ঠিক নয়। আমরা আইপিএলে কোনও হস্তক্ষেপ করব না। প্রধান নির্বাহীদের কমিটি এবং আইসিসি বোর্ড গত কয়েকদিন ধরে এই পরামর্শই দিয়েছে। নিয়মের খসড়া তৈরি করার ব্যাপারে নেতৃত্ব দেবে ওয়ার্কিং গ্রুপ। যাতে খেলাটা সুস্থ ভাবে আন্তর্জাতিক এবং ঘরোয়া দুই ক্ষেত্রেই দীর্ঘদিন টিকে থাকতে পারে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা ভাগ্যবান কয়েকটা দুর্দান্ত টি-টুয়েন্টি লিগ পেয়েছি। যার মধ্যে আইপিএলও রয়েছে। বিশ্ব জুড়ে আইপিএলের পরিচালনার দিক থেকে বিরাট সুনাম রয়েছে। ওয়ার্কিং গ্রুপ বিশ্বের বিভিন্ন টি-টুয়েন্টি লিগের জন্য নিয়মের খসড়া তৈরি করতে গিয়ে সেটা মাথায় রাখবে। আমাদের প্রাথমিক উদ্দেশ্য বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি লিগের জন্য একটা ন্যূনতম নিয়ম তৈরি করা এবং সেটা যাতে মেনে চলা হয়, তা নিশ্চিত করা।’
দ্বাদশ আসরের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) পর্দা উঠবে আগামী ২৩ শে মার্চ। উদ্বোধনী ম্যাচে এম এ চিদম্বরাম স্টেডিয়ামে মাঠে নামবে চেন্নাই সুপার কিংস ও রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরু।
বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস উদ্বোধনী ম্যাচেই নিজেদের মাঠে নামার সুযোগ পাচ্ছে।

Page Sidebar