শৃঙ্খলাভঙ্গ করা উমর আকমলের অভ্যাসে পরিণীত হয়ে গেছে

Now Reading
শৃঙ্খলাভঙ্গ করা উমর আকমলের অভ্যাসে পরিণীত হয়ে গেছে

কিস্তানের ব্যাটসম্যান উমর আকমলের নামের সাথে জড়িয়ে গেছে শৃঙ্খলাভঙ্গ করা। বিতর্ক ছড়িয়ে দুই বছর আগে পাকিস্তান দল থেকে বাদ পড়েছিলেন আকমল। সেটি ২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির স্কোয়াড থেকে। প্রথম ফিটনেস টেস্ট উতরাতে পারেননি। এরপর কোচ মিকি আর্থারের তুমুল সমালোচনা করে স্কোয়াড থেকে ছিটকে পড়েছিলেন ২৮ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। দুই বছর দলের বাইরে থাকার পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে পাকিস্তান দলে ফিরেছিলেন আকমল। কিন্তু ‘যে লাউ সেই কদু’ হয়েই আবারও শৃঙ্খলাভঙ্গ করলেন আকমল।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে পাকিস্তান কোচ মিকি আর্থারের বিপক্ষে বাজে ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছিলেন আকমল। সে সময় চুপ করে থাকার অভিযোগ তুলেছিলেন নির্বাচক ইনজামাম উল হক আর ব্যাটিং কোচ গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ারের বিপক্ষেও। পরিণামে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির স্কোয়াডে জায়গা পাননি আকমল। তখন মিকি আর্থার আকমলের বিপক্ষে সরাসরি শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ তুলেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে আকমলকে আরও একবার পরখ করতে চেয়েছিলেন নির্বাচকেরা। যেহেতু সামনে বিশ্বকাপ, তবে তেমন একটা ভালো করতে পারেননি। এতে সিরিজের পাঁচ ম্যাচেই খেলা আকমলের পারফরম্যান্স নিয়ে যেখানে আলোচনা হওয়ার কথা সেখানে বিতর্ক হচ্ছে তাঁর আবারও শৃঙ্খলাভঙ্গ নিয়ে।

পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। সিরিজের শেষ ম্যাচের আগে রাতে হোটেল ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন আকমল। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সংগীতশিল্পী কনসার্ট দেখতে দলীয় নীতিমালা ভঙ্গ করে হোটেল ছেড়ে বেরিয়ে যান আকমল। ফিরেছেনও বেশ রাত করে। এ জন্য টিম ম্যানেজমেন্টের অনুমতি নেওয়ার ধার ধারেননি তিনি। অথচ সফর চলাকালীন দলের খেলোয়াড়দের হোটেলে থাকতে হবে, এমন আইন বেঁধে দিয়েছিল পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট।
পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়েছে, আকমলকে ম্যাচ ফি-র ২০ শতাংশ অর্থ জরিমানার পাশাপাশি তাঁকে আনুষ্ঠানিকভাবে সতর্কও করে দেওয়া হয়েছে। আর আকমলও নাকি নিজের দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে শাস্তি মেনে নিয়েছেন। যাক, আকমল এখন নিজের ভুল বুঝতে পারলেই হয়!
তবে আকমলের ক্যারিয়ারে শৃঙ্খলাভঙ্গের জন্য জরিমানা গোনা নতুন কিছু নয়। নৈশ পার্টির জন্য হরহামেশাই দলীয় শৃঙ্খলা ভেঙেছেন। চার বছর আগে কায়েদে আজম ট্রফি চলাকালীন অনুমতি ছাড়াই হায়দরাবাদে এক পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন আকমল। এতে তাঁকে বাদ পড়তে হয়েছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল থেকে। ২০১৬ সালে ফয়সালাবাদে এক থিয়েটারে হাতাহাতিতেও জড়িয়ে পড়েছিলেন আকমল।