খেলার আড়ালে মরণ ফাঁদ ! শেষ পর্ব

Now Reading
খেলার আড়ালে মরণ ফাঁদ ! শেষ পর্ব

খেলা মানে যে শুধু বিনোদন এই কথাটা ততক্ষণ পর্যন্ত বিশ্বাস করবেন , যতক্ষণ আপনি আনন্দিত হবে । কিন্তু যখন দেখবেন যে খেলছে তার জীবনের ঝুঁকি অনেক বেশি বা অনেক সময় খেলাটি গিয়ে মারা যায় তখন নিশ্চয়ই আপনার কাছে সেটা আর বিনোদন এর পর্যায়ে থাকবে না । হ্যাঁ আমি ঠিক বলছি , কারণ পৃথিবীতে অনেক রকম খেলা আছে যা শুধু মানুষ মৃত্যুর জন্য খেলে থাকে , মানে সে জানে এই খেলায় তার মৃত্যু অনেকটা নিশ্চিত , তারপরে ও সে এই খেলায় নিজে উপস্থিত করবে ।

প্রথম পর্বের লিংক আমি নিচে দিয়ে দিচ্ছি , প্রথম পর্বের পর থেকে আজ আরো কিছু খেলার সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দিবো । যা খেলতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে অনেক মানুষ ।

১- ছোট বেলা কম বেশি আমাদের সবার আনন্দের সাথে কেটেছে । বিশেষ করে আমরা যারা গ্রামে থাকি তাদের ছোট বেলা ছিল অসাধারণ । গ্রামের কিছু খেলা আমাদের আজ ও ফিরিয়ে নিয়ে যায় আমাদের শৈশবে । আমরা গ্রামে দেখেছে কলা পাতা বা নারিকেল গাছের পাতায় বসে থাকে একজন , আর আরেক জন টেনে নিয়ে যায় । আবার একটা কাঠের তক্তাতে নিচে কিছু চাকা লাগিয়ে পা দিয়ে ঠেলে বা পিছন থেকে কেউ ধাক্কা দিয়ে খেলে থাকে । এই রকম একটি খেলা যার নাম স্ট্রিট লুজিং । আমাদের ছোট বেলার খেলার মতো হলেও এই খেলার অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো পাহাড় থেকে আপনাকে নিচের দিকে নামতে হবে । একটি কাঠের উপর আপনি বসে থাকবেন যার নিচে লাগানো থাকবে চাকা । এখন আপনাকে পাহাড়ের উপর থেকে নিচে নামতে হবে । আর গাড়ি চালাতে হবে পা দিয়ে । এই খেলায় মৃত্যুর ঝুঁকি অন্য সব খেলে থেকে অনেক বেশি । কারণ আপনি যদি মাত্র ১% নিজের দেহের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন তাহলে সোজা নিচের দিকে পড়ে যাবেন ।

২- যুবক সমাজে মোটর সাইকেল চালাতে কে না পছন্দ করে । কম বেশি সবাই চায় বাইক নিয়ে একটু খেলা দেখতে । যেমন কেউ বাইকের সামনে চাকা উঠিয়ে খেলা দেখায় । কেউ বা পেছনের চাকা উঠিয়ে খেলা দেখায় । কেউ বাইকের উপর উঠে দাঁড়িয়ে পড়ে । আমরা টিভি খুলে দেখতে পারি কিছু লোক বাইক নিয়ে একটি উঁচু জায়গার উপর থেকে দিয়ে চালিয়ে লাফ দিচ্ছে । একে বলে বাইক জাম্পিং । কম বেশি এই খেলা আমরা সবাই টিভিতে দেখেছি । এই খেলায় মৃত্যুর হার কম হলেও অনেক মানুষ আহত হয় । আপনি লাফ দেয়ার সময় যদি বাইক থেকে একটু বাহিরে চলে যায় তাহলে আর আপনি বাইকে কন্ট্রোল করতে পারবেন না । তখন প্রায় ৫০ থেকে ৬০ ফুট উপর থেকে নিচে পড়তে হবে ।

৩- ইউরোপে দেশে সার্ফিং অনেকটা জনপ্রিয় খেলা । আস্তে আস্তে আমাদের এই খেলাটা জনপ্রিয় হয়ে উঠছে । ঢেউ এর সাথে অনেকটা যুদ্ধ করে নিজেকে তীরে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হলো এই খেলার প্রধান আকর্ষণ । কিন্তু এখন অনেক দেশে এই খেলা মরণ ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে । এই খেলা মূলত তখন খেলে হয় যখন সাগর উত্তাল থাকে । তখন বিশাল আকারের বড় বড় ঢেউ এর সাথে খেলা হয়ে থাকে । এমনিতে সাগর তখন উত্তাল থাকে তার মধ্যে প্রায় ৫০ ফুট উচ্চতার ঢেউ এর মধ্যে দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে আপনাকে । কোনো অসতর্কতার অভাবে যদি একটু এদিক সেদিক হয় তাহলে ৫০ ফুট উচ্চতার ঢেউ আছড়ে পড়বে আপনার গায়ে । আর আপনি হারিয়ে যাবেন এই উত্তাল সমুদ্রের মাঝে ।

৪ – প্লেন জাম্পিং নাম অনেকে শুনেছেন । আমি কিছু দিন আগে টিভির চ্যানেল পরিবর্তন করতে করতে ন্যাশনাল জিওগ্রাফি এসে আটকে গেলাম । খুব মনোযোগ দিয়ে দেখছিলাম খেলাটা । একটা প্লেন কয়েক জন মানুষ কে নিয়ে উড়াল দিলো আকাশে । পৃথিবী থেকে যখন প্লেন এর উচ্চতা প্রায় ১২০০ ফুট উপরে তখন প্লেনের জানালা খুলে দিলো । কারণ ভেতরে যারা আছে তারা ১২০০ ফুট উপর থেকে লাফিয়ে নিয়ে পড়বে । অবশ্য অনেকে ভাববে ভয়ের কিছু নেই । তাদের পিঠে প্যারাসুট লাগানো । আমি বলি ভয়টা তখনি কাজ করবে যখন দরকারের সময় প্যারাসুট খুলবে না । দেখলাম ৫ জন লোক উপর থেকে লাফ দিলো । ৪ জন খুব সুন্দর ভাবে নিচে নেমে আসলো , কিন্তু সমস্যা বাধল একজনের প্যারাসুটে । উনার প্যারাসুট খুলছিল না । আর যখন খুলল তখন তিনি বাতাসের কারণে একটা বনের উপরে চলে আসলো । আর কিছুক্ষণ পর প্যারাসুট গিয়ে লেগে গেলো গাছের সাথে । তিনি প্রায় ৬০ ফুট থেকে গাছের সাথে বারি খেয়ে নিচে পড়লো । লোকটি জায়গায় মৃত্যুবরণ করলেন ।

একজন সচেতন মানুষ হিসেবে আমি কখনই চাইনা মানুষ এই সব খেলে খেলুক । মৃত্যু সব কিছুর সমাধান হতে পারে না । আর এই সব খেলা কে মানুষ আজ কাল আনন্দের সাথে মৃত্যুবরণ হিসেবে নিচ্ছে । আর কিছু মানুষ আছে যারা এই সব খেলে দেখেও মজা পাচ্ছে । আমরা এখন আর খেলা কে খেলার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখছি না । টাকার জন্য মানুষ আজ পাগল হয়ে যাচ্ছে । এমন কি মৃত্যুর পথে কেও বেঁচে নিতে দ্বিধা বোধ করছে না । খেলা কে স্রেফ একটা খেলা হিসেবে দেখা উচিত । একটা আনন্দের মাধ্যম হিসেবে দেখা উচিত , শাস্তি হিসেবে নয় ।

খেলা ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করতে ভুলবেন না ।

 

প্রথম পর্বের লিংক http://footprint.press/%E0%A6%96%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%86%E0%A7%9C%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A7%87-%E0%A6%AE%E0%A6%B0%E0%A6%A3-%E0%A6%AB%E0%A6%BE%E0%A6%81%E0%A6%A6/

খেলার আড়ালে মরণ ফাঁদ !

Now Reading
খেলার আড়ালে মরণ ফাঁদ !

খেলাধুলা কথাটা শুনলেই আপনার চোখের সামনে ভেসে আসবে কিছু ভালো মুহূর্ত . খেলার মাধ্যমে আপনি আনন্দ পেয়ে থাকেন আবার অন্য কে অন্য দিয়ে থাকেন , এতে করে আপনার মন শরীর সুস্থ থাকে আর যে দেখছে তার মন ও সজীব থাকে ,

কিন্তু সেই খেলা যদি হয়ে থাকে আপনার জন্য মরণ ফাঁদ তাহলে বিষয়টা কেমন হয় ?
আসলে অবাক হবার মতো কথা খেলা কিভাবে মরণ ফাঁদ হয় , হ্যা পৃথিবীতে কিছু খেলা আছে যা আসলে মরণ ফাঁদ , যারা এই খেলায় অংশগ্রহণ করে তারা যে তা সম্পর্কে জানে না তা কিন্তু নয় , তারা জেনে বুঝেই এই সব খেলায় অংশগ্রহণ করে থাকে । অনেক দেশে এইসব মরণ ফাঁদ গুলো নিষিদ্ধ করে দিয়েছে । তাহলে চলুন আমরা সেই সব কিছু খেলার সাথে আজ পরিচিত হই।

১ প্রথমে চলে আসে গুহা পার করা । যার ইংলিশে নাম কেভ ড্রাইভার । পৃথিবীতে অদ্ভুত সব কিছু খেলার মধ্যে কেভ ড্রাইভ অন্য তম এক অদ্ভুত খেলা । এই খেলার মৃত্যু অনেকটা নিশ্চিত মৃত্যু জেনেই খেলতে যায় খেলোয়াড়রা । এই খেলার বৈশিষ্ট হলো আপনাকে কিছু নির্দিষ্ট পরিমান অক্সিজেন দেয়া হবে তা দিয়ে আপনাকে পার করতে হবে একটা গুহা । আপনাদের কাছে শুনে মনে হচ্ছে খুব সহজ একটা কাজ তাই না ? কিন্তু না । কারণ আপনাকে এমন একটা সমুদ্রের নিচে নিয়ে যাওয়া হবে যেখানে পানি বরফ এর মতো ঠান্ডা থাকবে আর সাথে থাকবে সমুদ্রের নিচে প্রতিকূল পরিবেশ ও বিভিন্ন ভয়ঙ্কর প্রাণী । প্রতিবার খেলায় নতুন নতুন অভিজ্ঞতার স্মুখীন হবেন তখনি যখন আপনি যেই খেলায় থাকবেন সেই খেলা নির্দিষ্ট সময়ে রাস্তা বের করে অক্সিজেন থাকতে থাকতে খেলা শেষ করতে পারবেন । এই খেলায় যদি আপনি জীবিত ফিরে আসতে পারেন তাহলে আপনার জন্য রয়েছে বিশাল অর্থ পুরুষ্কার ।

২ তারপর দ্বিতীয় স্থানে আছে স্কাই ড্রাইভ । অনেকে বলবেন এই খেলা আবার মৃত্যুর ফাঁদ কিভাবে হয় , মূলত ৩ টাইপের স্কাই ড্রাইভ আছে . ১ পিঠে প্যারাসুট বেঁধে লাফিয়ে পড়া । ২ বেস জাম্পিং । ৩ প্যারাসুট বিহীন লাফ .
আপনার জন্য মৃত্যুর ফাঁদ তখনি হবে যখনি আপনি ২ ও ৩ নাম্বার খেলা খেলতে যাবেন . কারণ বেস জাম্পিং এমন একটা জাম্প যা ঠিক আপনি মাটিতে পৌছনের আগে আপনার প্যারাসুট খুলতে হবে । যদি আপনি তা করতে ব্যর্থ হয়ে যান তাহলে মৃত্যু নিশ্চিত । মূলত এই খেলাটা জাম্প এর সাথে না । খেলাটা হবে আপনার সময়ের সাথে । আর ৩ নাম্বার খেলাটা হলো খুব অদ্ভুত খেলা । সম্প্রতি কিছু দিন আগে ইউটুবে এই খেলাটা প্রকাশ পেয়েছে । দেখা গিয়েছে একটি লোক প্লেন থেকে একটি নির্দিষ্ট উঁচুতে উঠে লাফ দিয়েছে আর নিচে ছিল জাল । যাতে সে লাফ দিয়ে সেই জালে পরে । তিনি সফল হয়েছিলেন । এইভাবে আপনি নিশ্চিত হবেন না যে উনি সফল হয়েছেন বলে আপনিও হবেন ।

৩ বুল রাইডিং । এই কথাটার সাথে কম বেশি আমরা সবাই পরিচিত । এমনকি মাঝে মাঝে টিভি তে এই খেলা দেখা যায় ।
একটা লোক একটি গরুর উপরে বসে আছে আর গরুটি লাফাচ্ছে । আসলে যতটা সহজে আমরা দেখি বা যতটা সহজ আমরা ভাবি আসলে খেলতে ততটা সহজ না । একটা তেজি বুল এর উপরে একজন অয়েল ট্রেইন করা মানুষ গিয়ে বসে । যখন বুলটি মাঠের মাঝে লাফাতে শুরু করে তখন আপ্রাণ চেষ্টা করে যাতে বুলের উপরে বসে থাকা যায় । প্রতিটা লাফে প্রায় ১০ ফুট উপরে উঠে যায় বুলটি । সেই সাথে লাফানো তো আছেই । আপনি যদি পরে যান তাহলে এর পরে কি ঘটবে সেই সময় টুকু আপনি চিন্তা করার সময় পাবেন না । দানব আকারের বুলটি ততক্ষনে আপনার উপর দুই কি তিনটি পাড়া দিয়ে ফেলবে সেই সাথে আপনার কিছু হাড় ভেঙে যাবে আর যদি ভাগো খুব বেশি খারাপ হয় তাহলে মৃত্যু নিশ্চিত ।

৪ বুল রানিং । বুল রাইডিং আর বুল রানিং এর মধ্যে পার্থক্য হলো একটা নির্দিষ্ট বুল এর উপর আপনি উঠে বসবেন , আর রানিং হলো একটা জায়গায় অনেক গুলো বুল ছেড়ে দেয়া হবে আর আপনাকে দৌড়াতে হবে । এই খেলাটা স্পেনে খুব বেশি হয়ে থাকে । মাঝে কয়েক বছর এই খেলা বন্ধ থাকলেও এখন আবার এই খেলা শুরু হয়েছে । কিছু দানব আকৃতির বুল আপনার পিছনে ছেড়ে দেয়া হবে আর আপনাকে দৌড়িয়ে বাঁচতে হবে । কি পরিমান ভয়ঙ্কর তা বলে বুঝানো যাবে না । প্রতিবার এই খেলায় কত মানুষ এর জীবন যে যায় তা বলার বাহিরে । আপনার লুকানোর মতো কোনো জায়গা থাকবে না । আপনি যদি আসে পাশে দাঁড়িয়ে যান তাহলে এইটুকু মাথায় নিয়ে দাঁড়াতে হবে যে , যে কোনো সময় যে কোনো বুল আপনার উপরে খুব সজোরে আঘাত হানতে পারে । এমনো দেখা গিয়েছে বুলের আঘাতে অনেক মানুষ মারা গিয়েছে । বুল রানিং এ আপনাকে জীবনের বাজি ধরে নামতে হবে .

চলবে