5
New ফ্রেশ ফুটপ্রিন্ট
 
 
 
 
 
ফ্রেশ!
REGISTER

শৃঙ্খলাভঙ্গ করা উমর আকমলের অভ্যাসে পরিণীত হয়ে গেছে

Now Reading
শৃঙ্খলাভঙ্গ করা উমর আকমলের অভ্যাসে পরিণীত হয়ে গেছে

কিস্তানের ব্যাটসম্যান উমর আকমলের নামের সাথে জড়িয়ে গেছে শৃঙ্খলাভঙ্গ করা। বিতর্ক ছড়িয়ে দুই বছর আগে পাকিস্তান দল থেকে বাদ পড়েছিলেন আকমল। সেটি ২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির স্কোয়াড থেকে। প্রথম ফিটনেস টেস্ট উতরাতে পারেননি। এরপর কোচ মিকি আর্থারের তুমুল সমালোচনা করে স্কোয়াড থেকে ছিটকে পড়েছিলেন ২৮ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। দুই বছর দলের বাইরে থাকার পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে পাকিস্তান দলে ফিরেছিলেন আকমল। কিন্তু ‘যে লাউ সেই কদু’ হয়েই আবারও শৃঙ্খলাভঙ্গ করলেন আকমল।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে পাকিস্তান কোচ মিকি আর্থারের বিপক্ষে বাজে ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছিলেন আকমল। সে সময় চুপ করে থাকার অভিযোগ তুলেছিলেন নির্বাচক ইনজামাম উল হক আর ব্যাটিং কোচ গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ারের বিপক্ষেও। পরিণামে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির স্কোয়াডে জায়গা পাননি আকমল। তখন মিকি আর্থার আকমলের বিপক্ষে সরাসরি শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ তুলেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে আকমলকে আরও একবার পরখ করতে চেয়েছিলেন নির্বাচকেরা। যেহেতু সামনে বিশ্বকাপ, তবে তেমন একটা ভালো করতে পারেননি। এতে সিরিজের পাঁচ ম্যাচেই খেলা আকমলের পারফরম্যান্স নিয়ে যেখানে আলোচনা হওয়ার কথা সেখানে বিতর্ক হচ্ছে তাঁর আবারও শৃঙ্খলাভঙ্গ নিয়ে।

পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। সিরিজের শেষ ম্যাচের আগে রাতে হোটেল ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন আকমল। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সংগীতশিল্পী কনসার্ট দেখতে দলীয় নীতিমালা ভঙ্গ করে হোটেল ছেড়ে বেরিয়ে যান আকমল। ফিরেছেনও বেশ রাত করে। এ জন্য টিম ম্যানেজমেন্টের অনুমতি নেওয়ার ধার ধারেননি তিনি। অথচ সফর চলাকালীন দলের খেলোয়াড়দের হোটেলে থাকতে হবে, এমন আইন বেঁধে দিয়েছিল পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট।
পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়েছে, আকমলকে ম্যাচ ফি-র ২০ শতাংশ অর্থ জরিমানার পাশাপাশি তাঁকে আনুষ্ঠানিকভাবে সতর্কও করে দেওয়া হয়েছে। আর আকমলও নাকি নিজের দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে শাস্তি মেনে নিয়েছেন। যাক, আকমল এখন নিজের ভুল বুঝতে পারলেই হয়!
তবে আকমলের ক্যারিয়ারে শৃঙ্খলাভঙ্গের জন্য জরিমানা গোনা নতুন কিছু নয়। নৈশ পার্টির জন্য হরহামেশাই দলীয় শৃঙ্খলা ভেঙেছেন। চার বছর আগে কায়েদে আজম ট্রফি চলাকালীন অনুমতি ছাড়াই হায়দরাবাদে এক পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন আকমল। এতে তাঁকে বাদ পড়তে হয়েছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল থেকে। ২০১৬ সালে ফয়সালাবাদে এক থিয়েটারে হাতাহাতিতেও জড়িয়ে পড়েছিলেন আকমল।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বারবার আক্রমনের শিকার হচ্ছে

Now Reading
ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বারবার আক্রমনের শিকার হচ্ছে

আরজেডি তাদের টুইট বার্তায় বলেছে, “মোদিজি দিনে ২০০ বার পাকিস্তানের নাম নেন। পাকিস্তানের জন্য এত প্রেম, মোদিজি? আপনি আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী। এটা ভারতের লোকসভা নির্বাচন। আপনি কি পাকিস্তানের ওপর ভিত্তি করে নির্বাচন করবেন? ছোট্ট প্রতিবেশী দেশ নিয়ে কি শক্তি নষ্ট করা উচিত আমাদের দেশের? নিজের কথা বলুন, নিজের কাজের কথা বলুন, নিজের দেশের কথা বলুন।”

নির্বাচন যত সামনে আসছে প্রতিপক্ষ দলগুলোও যেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তত বেশি করে আক্রমণ করছে। কদিন আগে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে মোদিকে একহাত নিয়েছিলেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এবার মোদির সমালোচনা করল বর্ষীয়ান নেতা লালু যাদবের দল রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি)। দিনে ২০০ বার পাকিস্তানের নাম নেন মোদি, এমন মন্তব্য করেছে দলটি! নিজেদের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদির উদ্দেশে এক বার্তায় দলটি লিখেছে, “পাকিস্তানকে নিয়ে নয় বরং নিজের কাজ আর নিজের দেশ নিয়ে কথা বলা উচিত প্রধানমন্ত্রীর।”

প্রসঙ্গটি উঠেছে, বালাকোটে ভারতীয় বিমানবাহিনীর আক্রমণে পাকিস্তানি সন্ত্রাসী ক্যাম্প ধ্বংস হওয়ার পর থেকেই ক্ষমতাসীন বিজেপি ও কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন বিরোধী দলগুলোর মধ্যে কথার লড়াই চলছে। এক অনুষ্ঠানে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছেন, পাকিস্তান এখন সংকটাপন্ন অবস্থায় আছে। পাকিস্তান দাবি করে আসছিল তাদের ওখানে কোনো সন্ত্রাসী ক্যাম্প নেই। কিন্তু এখন তাদের সেই মন্তব্য গোপন করতে হচ্ছে। তারা কাউকে সেখানে যেতে দিচ্ছে না। পাকিস্তান এখন নতুন করে বালাকোটকে সাজাতে চাইছে। সেখানে একটি স্কুল নির্মাণ করছে তারা যাতে করে সবাইকে দেখাতে পারে সেখানে কোনো সন্ত্রাসী ক্যাম্প ছিল না।

জয়ের খুব কাছে গিয়েও বঞ্চিত হল পাকিস্তান

Now Reading
জয়ের খুব কাছে গিয়েও বঞ্চিত হল পাকিস্তান

ওয়ানডে সিরিজে প্রথম তিন ম্যাচ হেরে পাকিস্তান আগেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ হেরে গেছে। তবে দুবাইয়ে চতুর্থ ওয়ানডেতে সান্ত্বনার জয়ের খোঁজে দুই সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছিলো। কিন্তু দলটা যে আনপ্রেডিক্টেবল পাকিস্তান, জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেও মাত্র ৬ রানে হেরেছে অ্যারন ফিঞ্চদের কাছে। তাতে ৫ ম্যাচের সিরিজে ৪-০ তে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া।
অথচ ২৭৮ রানের লক্ষ্যটা এক সময় দৃষ্টিসীমানায় নিয়ে এসেছিলো পাকিস্তান দুই সেঞ্চুরিতে। বাকিরা যেখানে থিতু হতে পারছিলেন না সেখানে প্রতিশ্রুতিশীল ছিলেন অভিষিক্ত আবিদ আলী ও মোহাম্মদ রিজওয়ান। অভিষেকেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ওপেনার আবিদ। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন রিজওয়ান। দুজনে ভরে করে স্কোর ছাড়ায় ২ উইকেটে ২০০।
আবিদ ১১২ রানে বিদায় নিলেও ততক্ষণে বিপদ বাড়েনি পাকিস্তানের। অপর প্রান্তে ছিলেন রিজওয়ান। কিন্তু নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারালে রিজওয়ানও হাল ছেড়ে দেন এক সময়। এক সময় পাকিস্তানের ১৮ বলে প্রয়োজন ২৫ রান। রিজওয়ান ততক্ষণে ৯৭ রানে ব্যাট করছিলেন। সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে তিনি ১০৪ রান করে ফিরলে এরপর জয় থেকে ধীরে ধীরে ছিটকে যায় তারা। ৮ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত তুলতে পারে ২৭১ রান। কোল্টার নাইল উইকেট নিয়েছেন ৩টি আর ২টি নেন স্টইনিস।
টস হেরে ব্যাট করা অস্ট্রেলিয়া আজ গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের ঝড়ো ব্যাটিংয়েই ৭ উইকেটে সংগ্রহ করে ২৭৭ রান। ৮২ বলে ৯ চার ও ৩ ছয়ে ৯৮ রান করলেও সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়েছেন। বলতে গেলে ওপেনিংয়ে উসমান খাজার ৬২ আর ফিঞ্চের ৩৯ রানের পর মাঝের দিক থেকে ভূমিকা রাখতে পারেননি কেউ। সেই বিপদ তারা কাটায় ম্যাক্সওয়েলের দ্রুত গতির ব্যাটিং ও অ্যালেক্স ক্যারেইর ৫৫ রানের সুবাদে। ম্যাচসেরা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

অস্ট্রেলিয়ার কাছে সিরিজ হারল পাকিস্তান

Now Reading
অস্ট্রেলিয়ার কাছে সিরিজ হারল পাকিস্তান

আরোন ফিঞ্চের কাছেই সিরিজ হারতে হল পাকিস্তানকে। সিরিজ নির্ধরণী তৃতীয় ম্যাচেও পার্থক্য গড়ে দিল অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের ব্যাটিং। ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও। পরে বল হাতে পাক টপ অর্ডার ধ্বসিয়ে দিলেন প্যাট কামিন্স। ম্যাচের সঙ্গে সিরিজ জয়ও নিশ্চিত হলো অস্ট্রেলিয়ার।
বুধবার আবু ধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে পাকিস্তানকে ৮০ রানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে অজিদের করা ২৬৬ রানের জবাবে ৪৪.৪ ওভারে ১৮৬ রানে গুটিয়ে যায় শোয়েব মালিকের দলের ইনিংস। ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ফিঞ্চের দল।
অস্ট্রেলিয়ার করা চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যে ১৬ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে শুরুতেই ধাক্কা খায় পাকিস্তান। তিনটি উইকেটই নেন কামিন্স। এই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেনি পাকরা। চতুর্থ উইকেটে ইমাম-উল-হক ও শোয়েব মালিক এবং ষষ্ঠ উইকেটে উমর আকমল ও ইমাদ ওয়াসিম দুটি ফিফটি জুটিতে দলের হাল ধরার চেষ্টা করলেও শেষ পর্ডন্ত পেরে ওঠেননি।
দ্রুত শেষ চার উইকেটই তুলে নিয়ে দলের বড় জয় নিশ্চিত করেন অ্যাডাম জাম্পা। ৪৩ রানে ৪ উইকেট নেন জাম্পা। তবে ২৪ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা কামিন্স।
এর আগে অজি ইনিংসে এদিন ফিঞ্চ-খাজা জুটি প্রস্ফুটিত হওয়ার আগে কুড়িতেই বিনাশ করেন উসমান শিনওয়ারি। স্কোরবোর্ডে রান জমা হওয়ার আগেই ফেরেন খাজা। শন মার্শকেও জুনায়েদ খান তুলে নিলে ২০ রানে ২ উইকেটে পরিণত হয় অজি ইনিংস। এরপর ৮৬ রানের জুটি গড়ে হ্যান্ডসকম্ব ৪৩ বলে ৪৭ করে ফিরলেও স্টয়নিসকে নিয়ে ৩৬ ও ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে ৪৮ রান যোগ করে দলকে নিরাপদে রেখে আউট হন ফিঞ্চ। ১০ রানের জন্য টানা তৃতীয় শতক হাতছাড়া করেন এই ওপেনার। তার ১৩৬ বলে সময় উপযোগি ৯০ রানের ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ১টি ছয়ের মার। ৫৫ বলে ৭১ রানের ঝড়ো ইনিংস আসে ক্যাক্সওয়েলের ব্যাট থেকে।
নতুন বল হাতে নেওয়া তরুণ বোলার মোহাম্মাদ হাসনাইন ৫ ওভারে ৫০ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূণ্য। বাকিদের প্রত্যেকেউ নেন একটি করে উইকেট। ১০ ওভারে ৩৪ রানের খরচায় ১ উইকেট নিয়ে পাক সেরা বোলার হন ইমাদ ওয়াসিম।
সংক্ষিপ্ত স্কোর

অস্ট্রেলিয়া : ৫০ ওভারে ২৬৬/৬ (খাজা ০, ফিঞ্চ ৯০, শন মার্শ ১৪, হ্যান্ডসকম্ব ৪৭, স্টয়নিস ১০, ম্যাক্সওয়েল ৭১, কারি ২৫*, কামিন্স ২*; শিনওয়ারি ১/৩৭, হাসনাইন ০/৫০, জুনায়েদ ১/৫৮, ইয়াসির ১/৪৭, ইমাদ ১/৩৪, হারিস ১/৩৫)।
পাকিস্তান : ৪৪.৪ ওভারে ১৮৬ (ইমাম-উল ৪৬, মাসুদ ২, হারিস ১, রিজওয়ান ০, শোয়েব মালিক ৩২, উমর আকমল ৩৬, ইমাদ ৪৩, ইয়াসির ১০*, শিনওয়ারি ০, জুনায়েদ ৫, হাসনাইন ০, কামিন্স ৩/২৪, বেহরেনড্রফ ১/২৯, স্টয়নিস ০/২১, লায়ন ১/৪৮, ম্যাক্সওয়েল ১/২১, জাম্পা ৪/৪৩)।
ফল : অস্ট্রেলিয়া ৮০ রানে জয়ী।

আমিরের কি বিশ্বকাপ খেলা হবে না?

Now Reading
আমিরের কি বিশ্বকাপ খেলা হবে না?

আসছে ৩০ মে শুরু হতে যাচ্ছে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় লড়াই ক্রিকেট বিশ্বকাপ। কিন্তু আমিরকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। কারন বিশ্বকাপের ঠিক আগে অফ ফর্মে মোহাম্মদ আমির। স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে পাকিস্তান দলে ফেরেন আমির। তবে সময়টা ভালো যাচ্ছে না তার। ওয়ানডে ফরম্যাটে নিজের সামর্থ্যেরে পুরোটা দিতে পারছেন না বাঁ-হাতি এই পেসার। সর্বশেষ ১৩ ওয়ানডেতে ৮০.৮০ গড়ে নিয়েছেন মাত্র পাঁচ উইকেট। ফর্মে ফিরতে ব্যর্থ হলে বিশ্বকাপে খেলা হবে না আমিরের। এমন আভাসই দিলেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের প্রধানি নির্বাচক ইনজামাম-উল-হক।
পাকিস্তান ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ও সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম বলেন, আমির খুব ভালো মানের বোলার। তাতে কোনো সন্দেহ নেই। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি সে ফর্মে নেই। এই মুহূর্তে সে পাকিস্তান দলে অটোমেটিক চয়েজ নয়।
পাকিস্তান ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক আরও বলেন, বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনও যথেষ্ট সময় আছে। আশা করি, সে ছন্দে ফিরতে পারবে। কিন্তু তার মতো একজন সিনিয়র খেলোয়াড় যদি ফর্মহীন থাকে, সেটা আমাদের জন্য দুশ্চিন্তার।

পাকিস্তানের অনুষ্ঠান বর্জন করল ভারত

Now Reading
পাকিস্তানের অনুষ্ঠান বর্জন করল ভারত

পাকিস্তান জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানে ভারত তাদের কোন প্রতিনিধি পাঠাবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মিরের বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের আমন্ত্রণ করায়। দেশটির সরকারের সূত্র স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে জানিয়েছে, অনুষ্ঠানটিতে হুরিয়াতের নেতাদের আমন্ত্রণ করেছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের এ কাজের মাধ্যমেই বোঝা যায় তারা ফের ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করছে। এ কারণেই সরকারের পক্ষে কোনো প্রতিনিধি এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন না।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের পুলওয়ামায় পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মুহম্মদের হামলার জের এখনো কাটেনি। এরই মধ্যে পাকিস্তানের আয়োজিত অনুষ্ঠান বর্জন করল ভারত। দুদেশের মধ্যে চলমান এ উত্তেজনার জেরে তাদের মধ্যকার ক‚টনীতিক সম্পর্কও দুর্বল হয়ে গেছে। তবে এ বছরের অনুষ্ঠানটিতে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কেউই অংশগ্রহণ করতে পারবে না বলে নিশ্চিত করেছেন তাদেরই শীর্ষস্থানীয় এক নেতা। তিনি বলেন, বর্তমানে যে পরিবেশ আছে, এতে অনুষ্ঠানটিতে আমাদের কেউই যেতে পারবে না। গত মাসে সরকারের নেয়া কঠোর নীতিমালা এবং অভিযানের পর থেকেই জেলে রয়েছে কিংবা বাড়িতে আটকে আছে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। যাদের আটক করা হয়নি তারাও যে কোনো মুহূর্তে আটক হতে পারে এমন ভয়ে আছে। অতীতেও কাশ্মিরসহ বিভিন্ন ইস্যুতে পাকিস্তানকে সরাসরি আলোচনায় উদ্বুদ্ধ করে এসেছে ভারত। সে সঙ্গে হুরিয়াত নেতাদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগে তাদের নিরুৎসাহিত করেছে ভারত।

সরকারের সাবেক সিনিয়র এক কর্মকর্তা বলেন, কিছু নির্দিষ্ট রীতিনীতি রয়েছে, যেগুলো প্রতিটি জাতিই অনুসরণ করে থাকে।

তিনি বলেন, একটি দেশের জাতীয় দিবসে অংশগ্রহণ করা মানে হচ্ছে, সে জাতির প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা। সেখানে অংশগ্রহণ না করে তাদের বোঝানো হবে যে, আমরা তাদের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দিচ্ছি। তবে সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে আগামী মাসের জাতীয় নির্বাচনের কৌশল হিসেবেই দেখছে সমালোচকরা।

লাহোর রেজুলেশনের স্মরণে প্রতিবছরের ২৩ মার্চ এ দিবসটি পালন করে থাকে পাকিস্তান। অতীতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভিকে সিং ও গাজেন্দ্র সিং এবং সাবেক মন্ত্রী এম জে আকবরসহ আরো বহু রাজনীতিবিদ পাকিস্তানের জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

কোহলিদের বিশাল অংকের জরি্রিমান দিচ্ছে পাকিস্তান

Now Reading
কোহলিদের বিশাল অংকের জরি্রিমান দিচ্ছে পাকিস্তান

চুক্তি অনুযায়ী, ২০১৫ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত ছয়টি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলার কথা ছিল দুই দলের। ২০১৪ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই করে ভারত। তবে সেই চুক্তি মানেনি ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। ফলে ভারতের কাছে আর্থিক ক্ষতিপূরণ চেয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি)বিবাদ মীমাংসাকারী কমিটির কাছে মামলা করে পাকিস্তান।
আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ হিসেবে বিসিসিআইয়ের কাছে ৭ কোটি মার্কিন ডলার দাবি করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। মামলার শুনাতিতে বিশ্বের প্রভাবশালী ক্রিকেট বোর্ড জানায়, তাদের কোনো দোষ নেই। কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি না পাওয়ায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সিরিজগুলো খেলেনি টিম ইন্ডিয়া।
যুক্তি খণ্ডন শেষে মামলায় হেরে যায় পিসিবি। এ মামলা বাবদ ভারতের খরচ হয়েছে ১৬ লাখ মার্কিন ডলার। নিয়মানুযায়ী, বিসিসিআইয়ের হওয়া খরচটা ক্ষতিপূরণ হিসেবে দিতে হবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে। সব মিলিয়ে বড় অংকের ক্ষতিপূরণই দিতে হবে।
পিসিবির সভাপতি এহসান মানি জানান, আইসিসির কমিটি আমাদের মামলাটি আমলে নিয়েছিল। এ কারণেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে ক্ষতিপূরণটা দিতে হবে পিসিবিকে।
২০০৭-২০০৮ মৌসুমে সবশেষ দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলে ভারত-পাকিস্তান। সেবার পাকিস্তানের খেলতে গিয়েছিল ভারত। সেই সফরে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জেতে টিম ইন্ডিয়া। ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজও ৩-২ ব্যবধানে দেশে নিয়ে আসে সফরকারীরা।
এরপর ২০০৯ সালে লাহোরে টিম শ্রীলংকার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তান থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নিষিদ্ধ হয়। সঙ্গত কারণে সেখানে খেলতে যায়নি ভারত। পরের সময়ে সন্ত্রাস কবলিত দেশটির হোম ভেন্যু হিসেবে ব্যবহৃত সংযুক্ত আরব আমিরাতেও খেলতে যায়নি কোহলিরা।
এর মধ্যে ২০১২-১৩ মৌসুমে ভারতে সফরে যায় পাকিস্তান। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জেতে সফরকারীরা। দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ড্র হয়। সেটিই ছিল রাজনৈতিক চিরবৈরি প্রতিবেশি দেশে পাকিস্তানের শেষ সফর।
পরে আর পাক-ভারত দ্বিপক্ষীয় সিরিজ হয়নি। পিসিবি রাজি থাকলেও মূলত বিসিসিআইয়ের অপরাগতায় তা সম্ভব হয়নি। গেল ছয় বছরে শুধু আইসিসি আয়োজিত বৈশ্বিক টুর্নামেন্টগুলোতেই মুখোমুখি হয়েছে দুই দল।আসন্ন বিশ্বকাপে হওয়ার কথা আছে দুই চিরশত্রুর ব্যাট-বলের যুদ্ধ। তবে কাশ্মীর হামলায় সেটি নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছে।

বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচ হলেও পাকিস্তানকে বয়কটের পক্ষে গাম্ভীর

Now Reading
বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচ হলেও পাকিস্তানকে বয়কটের পক্ষে গাম্ভীর

ভারত ও পাকিস্তান প্রতিবেশী দেশ হলেও, এই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক কখনই ভালো ছিলনা। ভারত পাকিস্থান সীমান্ত এলাকায় প্রায় সবসময় বিভিন্ন সমস্যা থাকেই। কাশ্মীরের পুলওয়ামায় কিছুদিন আগে জঙ্গি হামলায় ৪০ ভারতীয় জওয়ান নিহত হয়। এরপর থেকেই দুই প্রতিবেশী দেশের সম্পর্কে নতুন করে চিড় ধরে। সীমান্তে যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টির পাশাপাশি ভারতের সাবেক ক্রিকেটাররা বিশ্বকাপের পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কটের দাবি তুলেছিলেন। গম্ভীর নিজেও পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কটের পক্ষে। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘শর্তসাপেক্ষে নিষেধাজ্ঞা বলে কিছু নেই। হয় পাকিস্তান বয়কট করুন কিংবা সবকিছুতে অংশ নিন। পুলওয়ামায় যা ঘটেছে তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।’
গৌতম গম্ভীর খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ারে যেমন সোজা ব্যাট খেলেছেন, তেমনি সোজা কথাটা সোজা করে বলতেই ভালোবাসেন। পাকিস্তান বিরোধিতার প্রশ্নে তাঁর সাফ কথা, শর্তসাপেক্ষে নিষিদ্ধ বলে কিছু নেই। হয় আমরা পাকিস্তানের বিপক্ষে সবকিছু বয়কট করব নতুবা সবকিছুতেই অংশ নেব। এবং এই সিদ্ধান্ত ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকেই (বিসিসিআই) নিতে হবে বলে মনে করেন দেশটির সাবেক এ ওপেনার।
ইংল্যান্ডে ৩০ মে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ। গ্রুপপর্বে ১৬ জুন পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে ভারত। এই সূচি অনুযায়ী-ই যে ম্যাচ মাঠে গড়াবে তা আগেই স্পষ্ট করে দিয়েছে আইসিসি। গম্ভীর তা জেনেই যুক্তি দিলেন, ‘আইসিসির টুর্নামেন্টে বয়কট করা যে কঠিন হবে তা আমিও জানি। কিন্তু আমরা এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলা বন্ধ করতে পারি।’ অবশ্য বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কটের ব্যাপারে ইংল্যান্ডের উদাহরণও দিয়েছেন গম্ভীর, ‘২০০৩ সালে জিম্বাবুয়েতে খেলতে যায়নি ইংল্যান্ড। বিসিসিআই যদি পাকিস্তানের বিপক্ষে না খেলার সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে ২ পয়েন্ট ছেড়ে দেওয়ার ব্যাপারে সবার মানসিক প্রস্তুতি থাকা উচিত। আমরা হয়তো সেমিফাইনালে নাও উঠতে পারি। এ জন্য ভারতীয় দলকে দোষ দেওয়া উচিত হবে না সংবাদমাধ্যমের।’
দুই দল ফাইনালে উঠলে কী হবে? তখন কি ম্যাচ বর্জন করা উচিত হবে বিরাট কোহলিদের? এই প্রশ্নের জবাবেও অনড় থেকে গম্ভীর বললেন, ফাইনালে উঠলেও ম্যাচ বয়কট করা উচিত। ‘দুই পয়েন্ট গুরুত্বপূর্ণ না, দেশ গুরুত্বপূর্ণ। যে ৪০ জওয়ান প্রাণ হারিয়েছে তাঁদের চেয়ে একটা ক্রিকেট ম্যাচ বেশি গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে না। আমরা ফাইনাল ছেড়ে দিলে তা মেনে নিতে দেশের প্রস্তুত থাকা উচিত।’

ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে জোড়া হামলায় ৯জন ভারতীয় ও ৫জন পাকিস্তানি নিখোঁজ

Now Reading
ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে জোড়া হামলায় ৯জন ভারতীয় ও ৫জন পাকিস্তানি নিখোঁজ

গতকাল নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে জোড়া হামলা চালানো হয়। গোলাগুলির ঘটনায় অন্তত ৪৯ জন নিহত হয়েছে। ৪১ জন নিহত হয়েছেন আল নূর মসজিদে এবং ৭ জন মারা গেছেন লিনউড মসজিদের ঘটনায়। আরেকজন হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সময় মারা যান। এই ঘটনায় নয়জন ভারতীয় ও পাঁচজন পাকিস্তানি নিখোঁজ রয়েছে।

হামলার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এক নারীসহ চারজনকে আটক করেছে নিউজিল্যান্ড পুলিশ। বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে একটি গাড়ি থেকে। নিউজিল্যান্ডের কোথাও কোনো মসজিদে মুসলিমদের যেতে নিষেধ করেছে পুলিশ। সেই সঙ্গে মসজিদগুলো আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। শহরজুড়ে পুলিশ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে।

ভারতীয়দের নিখোঁজ হওয়ার খবর নিউজিল্যান্ডের ভারতীয় দূতাবাস নিশ্চিত করেছে। নিহতদের মধ্যে ২ জন ভারতীয়।
পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ ফয়সালের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত পাঁচ পাকিস্তানি নিখোঁজ রয়েছে।

জন বোল্টন পাকিস্তানের জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে

Now Reading
জন বোল্টন পাকিস্তানের জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেছেন, ভারত-নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলার ঘটনায় জড়িত জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে পাকিস্তান।

বোল্টন এক টুইট বার্তায় বলেছেন, তিনি পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশির সঙ্গে কথা বলেছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাঁকে নিশ্চয়তা দিয়েছেন ভারতের সঙ্গে উত্তেজনা কমাতে পদক্ষেপ অব্যাহত রাখবে পাকিস্তান। এ ছাড়া সব সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ পাকিস্তান।

ভারতের দীর্ঘদিনের অভিযোগ কাশ্মীরে গেরিলা হামলাকারীদের গোপনে সহযোগিতা করে পাকিস্তান। সর্বশেষ গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলার দায় স্বীকার করেছিল পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মুহাম্মদ (জেইএম)। সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) বহরে ওই আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৪০ জওয়ান নিহত হন। এরপর গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান-নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে বিমান হামলা চালায় ভারত। ফলে পারমাণবিক অস্ত্রধারী এই দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায়।

বোল্টন বলেন, কুরেশির সঙ্গে কথা বলে জেইএম এবং অন্যান্য সন্ত্রাসী সংগঠনের বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে পাকিস্তানকে উৎসাহিত করে একটি পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ওয়াশিংটনে ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বিজয় গোখলের সঙ্গে বৈঠকের পর পাকিস্তানের কাছ থেকে এই নিশ্চয়তা পাওয়া গেল। বৈঠকের পর পম্পেওর মুখপাত্র বলেছেন, যেসব সন্ত্রাসীগোষ্ঠী পাকিস্তানের মাটি ব্যবহার করছে, তাদের বিরুদ্ধে অর্থপূর্ণ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

Page Sidebar