যুদ্ধ নাকি ভালবাসা ?

Now Reading
যুদ্ধ নাকি ভালবাসা ?

আপনাকে যদি প্রশ্ন করা হয় আপনি কি চান মানে যুদ্ধ নাকি ভালোবাসা ? আমি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি আপনি বলবেন আপনি ভালোবাসা চান । শুধু আপনি না আপনার মতো যাকেই জিজ্ঞাস করা হোক না কেন তাদের সবার উত্তর আসবে তারা ভালোবাসা চায় । কেউ বলবে না যুদ্ধ চায় ।

আসলে আপনি ভালোবাসা দিয়ে যতনা সহজে মানুষের মন জয় করতে পারবেন যুদ্ধ দিয়ে তা কখনোই পারবেন না । যুদ্ধ মানুষ কে বিপদ গামী করে ফেলে । আর ভালোবাসা মানুষ কে নতুন করে অনুপ্রেরণা যোগায় ।

তাহলে কি যুদ্ধের প্রয়োজন নেই ?
এই কথার উত্তর আসবে হ্যা যুদ্ধের প্রযোজন আছে ।

কখন ?
তখনি যুদ্ধের প্রয়োজন যখন আপনার অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন আসবে । তখনি যখন আপনার বা আপনার দেশের স্বাধীনতা হারানোর সংশয় তৈরী হবে । তখনি আপনি যুদ্ধে লিপ্ত হতে পারেন । যেমন ধরেন ১৯৭১ সালের কথা । শুরুতে কিন্তু বাংলাদেশ থেকে কোনো আক্রমণ করা হয়নি । প্রথমে বাংলাদেশ সমঝোতা করতে চেয়ে ছিল । তারা যুদ্ধ চায় নি তারা শান্তি পূর্ণ ভাবে সমস্যার সমাধান চেয়েছিলো । কিন্তু তৎকালীন পাকিস্তান শান্তি পূর্ণ আলোচনা মেনে নিতে পারেনি । আর রাতের অন্ধকারে চলে বাংলাদেশের নিরীহ মানুষের উপর আক্রমণ । যখন বাংলাদেশ দেখলো তাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গিয়েছে তখন তারা নিজেদের স্বাধীনতার জন্য আক্রমণ করে পাকিস্তানের উপর । আপনাকে যুদ্ধ করতে হবে কিছু নিয়ম মেনে । আপনি অসহায় মানুষদের উপর আক্রমণ করতে পারবেন না । আপনি মানুষের ঘরে আগুন দিতে পারবেন না এমন কি যুদ্ধে কোনো বাচ্চা কে মারতে পারবেন না । কিন্তু পাকিস্তান তার কোনো তোয়াক্কা করেনি । যেভাবে পেরেছে হত্যা করেছে ।

আবার আরেক প্রকারের যুদ্ধ আছে তা হলো মনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ । এই যুদ্ধ সবচেয়ে বড় কষ্টের যুদ্ধ । ধরেন আপনি আপনার খুব কাছের মানুষ কে হারালেন । তখন আপনার তার কথা বাড়ে বাড়ে মনে পড়বে । আপনি না চাইলেও মনে পড়বে । তখন শুরু হয়ে যায় মনের সাথে যুদ্ধ । বেশির ভাগ সময় আমরা মনের সাথে যুদ্ধ করে পেরে উঠি না । আর যখনি পেরে উঠি না তখনি আমরা ভুল সিদ্ধান্ত নেই । কেউ হয়তো আত্মহত্যা করে আবার কেউ বা খারাপ পথে ধাবিত হয় । আবার আমরা প্রতিনিয়ত জীবনের সাথে যুদ্ধ করছি । বেঁচে থাকার তাগিদে যুদ্ধ করছি এই পৃথিবীর সাথে ।

তাহলে কি যুদ্ধই এক মাত্র সমাধান ?

না ভাই যুদ্ধ কখনো সমাধান হতে পারে না । ভালোবাসা হলো আমাদের সমাধান । আমাদের উচিত সবাই কে ভালোবাসা । আমরা কে কোন ধর্মের বা কোন দেশের সেই কথা বাদ দিয়ে যদি সবাই কে আমাদের বুকে টেনে নিতে পারি , যদি আমরা একে ওপরের পরিপূরক হয়ে যেতে পারি তাহলে যুদ্ধ নামের কথাটাই মুছে যাবে এই পৃথিবী থেকে ।

আজ আমাদের হিংসা ক্রোধ এর কারণে ধ্বংস হচ্ছে এক এক দেশ । সেই সাথে ধ্বংস হচ্ছে অনেক অসহায় মানুষ । কিন্তু একটাবার ও কি ভেবে দেখেছি আজ আমাদের ভালোবাসার কারণে কয়টা দেশকে তৈরী করতে পেরেছি । আজ আমাদের ভালোবাসার কারণে কয়টা তারকাটার বেড়া তুলে ফেলেছি । না আসলে আমাদের ভালোবাসা আজ ব্যর্থ। আজ আমাদের ভালোবাসা আজ ওই তার কাটা নামক জায়গায় বন্ধি হয়ে আছে আর পার্থক্য করে দিয়ে ওইটা তোমার আর এইটা আমার । কিন্তু ভালোবাসা আজ আমাদের এইটা বলতে শিখায় নাই যে এই পৃথিবীটা আমাদের । না তোমার না আমার , এইটা আমাদের । আসলে আমাদের মুখ থেকে আমাদের কথাটাই উঠে গিয়েছে । শুধু আমার তোমার কথাটা প্রচলন বেড়ে গিয়েছে । যার ফলে আজ নিজেদের ক্ষমতা প্রকাশ করার জন্য নিজের আপন ভাইকেও অপমান করতে দ্বিধা বোধ করছি না । আজ আমাদের মানবতা হারিয়ে গিয়েছে নিজেদের স্বার্থের কাছে ।স্বার্থের দেয়াল আজ এতই বড় হয়েছে যে ভালোবাসা আর বিলুপ্তের পথে । দিন দিন বেড়েই চলেছে আমাদের ব্যক্তিগত আক্রমণ । আসলে আজ আমরা আমাদের জাত ভুলে গিয়েছি , আজ আমরা এতটাই নিচে নেমে গিয়েছি যে আজ আমাদের সাথে সভ্য সমাজের মানুষরাও কোনো প্রাণীর সাথে তুলনা করে সে প্রাণীকে অপমান করতে চায় না ।

আপনি কখনো খেয়াল করছেন কিনা জানি না , বাঘ বা সিংহ কখনই নিজেরদের জাতের মাংস নিজেরা খায় না । তারা নিজেদের নিজেরা কখনো হত্যা করে না । ইউটুবে ঘাটলে আজ আমরা দেখতে পাই বাঘ আর হরিণ এক সাথে পানি খাচ্ছে । আর আমরা কালো সাদা এক সাথে চলতে পারি না । যেখানে দুই জাত এক সাথে পানি খাচ্ছে আর আমরা কিনা একই জাতের মানুষ হয়ে সামান্য রঙের কারণে মিশতে পারছি না । এমন কি হত্যা কাণ্ডে লিপ্ত হচ্ছি ।

তাহলে আমাদের করণীয় কি ?

আজ আমরা এমন একটা সময়ে এসে হাজির হয়েছি যে , এমন সব প্রশ্ন শুনতে হয় এখন আমাদের করণীয় কি ? বরং আমাদের এমন ভাবে চলা উচিত ছিল যে প্রশ্ন আসার কথা আমরা কিভাবে আরো বেশি করে মানুষ কে ভালোবাসতে পারি ? আমাদের উচিত মানুষ কে ভালোবাসা কোনো কারণ ছাড়া । দুর্বলদের প্রতি অন্যায় বন্ধ করা । ধনীদের উচিত গরিবদের পাশে এসে ধরানো । মানুষ কে মানুষ ভাবা । তাকে কোনো ধর্ম, জাত , টাকা পয়সা বা অন্য কিছু দিয়ে বিচার না করা ।

কেবল ভালোবাসলেই আপনি আরেক জন থেকে ভালোবাসা আশা করতে পারেন । ভালোবাসা দিয়ে ভরিয়ে ফেলুন আমাদের এই পৃথিবীকে । পৃথিবীতে আজ কোনো কিছুরই অভাব নেই । কিন্তু আজ ভালোবাসার বড়ই অভাব । অভাব মুক্ত করে দিন মন কে প্রসস্থ করে দিন দেখবেন শান্তি ধরা দিতে বাধ্য ।