বিশ্বব্যাপি বাংলাদেশ ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদনশীল দেশ

Now Reading
বিশ্বব্যাপি বাংলাদেশ ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদনশীল দেশ

বিশ্বব্যাপী প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রের মধ্যে বাংলাদেশ একটি ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদনশীল দেশ হিসাবে গড়ে উঠছে। দেশের এক প্রযুক্তি সংগঠন ইতোমধ্যেই গ্যাজেটগুলি একত্রিত করতে শুরু করেছে এবং কিছু অন্যান্য সংস্থা শীঘ্রই অনুসরণ করতে চলেছে। স্থানীয় ব্র্যান্ড ছাড়াও কিছু বিশ্বব্যাপী ব্র্যান্ড এখানে মোবাইল হ্যান্ডসেট পণ্য স্থাপন করার কথা বিবেচনা করছে এবং এই হাই-প্রযুক্তির পণ্য তৈরির অনুমোদনের জন্য ইতিমধ্যেই টেলিযোগাযোগ নিয়মিত প্রয়োগ করেছে।
বিখ্যাত স্থানীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন এই ক্ষেত্রে অগ্রগামী এবং গত বছর সেপ্টেম্বরে গাজীপুরে একটি একত্রিতকরণ কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। অন্য আরেকটি স্থানীয় সংস্থা আমরা হোল্ডিংস ও তাদের ব্র্যান্ড ‘WE’ রাজধানীর মিরপুর এলাকায় আরেকটি পরিকল্পনা স্থাপন করছে এবং কারখানাটি স্বল্প সময়ের মধ্যে কাজ শুরু করবে।

মার্কেট লিডার মোবাইল হ্যান্ডসেট কোম্পানী সিম্ফনি ঢাকায় অবস্থিত একটি কারখানা স্থাপনের জন্য তাদের বিদেশি অংশীদারদের সাথে এক চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
গ্লোবাল শীর্ষ ব্র্যান্ড স্যামসাংও নরসিংদীতে তাদের পণ্যের জন্য অবকাঠামো স্থাপন করেছে এবং তারা কয়েক মাসের মধ্যে একত্রিত হতে চলেছে। অন্য বিশ্বব্যাপী ব্র্যান্ড এলজিও তার অফিস শুরু করেছে এবং নিজস্ব পণ্য নির্মাণের পরিকল্পনা করছে। চীনা ব্র্যান্ড ট্রান্সসিয়ন হোল্ডিংস গাজীপুরের মোবাইল হ্যান্ডসেট পণ্যের জন্য একটি স্থানও বেছে নিয়েছে।

ওকে মোবাইল একটি স্থানীয় ব্র্যান্ড কয়েক বছর আগে টেলিফোন শিল্পা সাংহাইয়ের একটি সরকারী সংস্থার সাথে মোবাইল সেটগুলি একত্রিত করার উদ্যোগ নিয়েছিল এবং অবশেষে তারা এটি সম্পন্নও করেছে।
এই উদ্যোগকে সাহায্য করার জন্য সরকার মোবাইল অংশগুলিতে ৩৬ শতাংশ থেকে ১ শতাংশ কাস্টমস ডিউটি ​​হ্রাস করেছে এবং বর্তমান বাজেটে হ্যান্ডসেটের আমদানির শুল্ক দ্বিগুণ করেছে।
বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন সেপ্টেম্বরে স্থানীয়ভাবে হ্যান্ডসেট সংস্থাকে নির্দেশ দেয় এবং ইতোমধ্যে তারা বিভিন্ন কোম্পানি থেকে পণ্য একত্রিত করার জন্য ছয়টি আবেদন পেয়েছে।

বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইমপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমপিআইএ) মতে ২০১৭ সালে প্রায় ৩.৪ কোটি হ্যান্ডসেট আমদানি করা হয়েছিল যা বছরে ৯.৬ শতাংশ বেশি। আমদানি মোট মূল্য প্রায় ১০,০০০ কোটি টাকা ছিল। বাজারের আকার প্রায় ৮,০০০ কোটি টাকা ছিল এবং ২০১৬ সালে মোট আমদানি ৩.১ কোটি ছিল।
গত বছর শিল্পটি ৯০ লাখ টাকায় স্মার্টফোন আমদানি করেছে এবং 4G  সেবা চালু হওয়ার পরে এই সংখ্যা আরও বেড়েছে ।
সরকার ঘোষনা করেছে যে বাংলাদেশ একটি আমদানিকারী দেশ থাকবে না বরং দেশটি মোবাইল ডিভাইস তৈরি করবে এবং অন্যান্য দেশে রপ্তানি করবে। এই প্রতিশ্রুতির সঙ্গে মিলিত কিছু কোম্পানি ক্রমবর্ধমান স্থানীয় চাহিদা পূরণের পর অন্যান্য দেশে রপ্তানি করার পরিকল্পনা করছে।

কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে

Now Reading
কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে

কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা নিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সোমবার (১ এপ্রিল) দুপুর ১২টা ৩৭ মিনিটে রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে বহনকারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাড়িবহর হাসপাতালে প্রবেশ করে।
এর আগে দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে বহনকারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাড়িবহর রওনা হয়।
এদিকে খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বের করায় রাজধানীর কেন্দ্রীয় কারাগার, পুরান ঢাকা, আলিয়া মাদরাসা চত্বরসহ আশপাশের এলাকায় কয়েকস্তরের নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে। এছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, কেন্দ্রী শহীদ মিনার রোড, শাহবাগসহ আশপাশের সড়কেও নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সব ধরনের যান চলাচল শিথিল করা হয়েছে।
কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে যে সড়ক দিয়ে সাবেক এই সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আসা হচ্ছে সেই সব সড়কের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কিছু কিছু এলাকায় পুলিশের সাজোয়া যানও দেখে গেছে। শাহবাগ চত্বরে ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়ও নিরাপত্তা জোরদার করেছে র‍্যাব-পুলিশ।
এর আগে গত ১০ মার্চ খালেদা জিয়াতে বিএসএমএমইউতে আনার সকল প্রস্ততি থাকলেও তাকে আনা হয়নি। সেদিন বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আব্দুল্লাহ আল হারুন জানান, যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেও সেখানে যেতে অনীহা প্রকাশ করায় খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে পারেনি কারা কর্তৃপক্ষ। ’

বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ উদ্দীপনা ও সাফল্য

Now Reading
বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ উদ্দীপনা ও সাফল্য

সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে কিছু ব্যর্থতা বা ফাটল থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছ থেকে অনেক ইতিবাচক মনোযোগ আকর্ষণ করেছে বলে মনে হয়।গত কয়েক বছর ধরে, মিলেনিয়াম ডেভলপমেন্ট গোলস (এমডিজি) এর অধীনে অর্জিত সামাজিক-অর্থনৈতিক লাভের প্রতীক হিসাবে এটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উপাধি পেয়েছে।
উন্নয়নে তার অর্জনের জন্য দেশকে মুকুট দিয়ে সজ্জিত করা হয়েছে। ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো, যখন এটি গ্রস জাতীয় আয় বৃদ্ধি করে বিশ্বব্যাংকের “নিম্ন মধ্যম আয়ের” বিভাগে আপগ্রেড হয়েছিল।
সম্প্রতি, জাতিসংঘের সর্ববৃহৎ বিকাশকৃত দেশ স্নাতকের জন্য তিনটি মানদণ্ড পূরণ করেছে – জিপিআই প্রতি মাথাপিছু, মানব সম্পদ সূচক, এবং অর্থনৈতিক দুর্বলতা সূচক।
গত তিন বছরে, ডলারের পদে বাংলাদেশের জিডিপি ১২.৯% এর সমষ্টিগত বার্ষিক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, যা ভারতের ৫.৬% এর চেয়ে দ্বিগুণ। বর্তমান নেতৃত্বের দ্বারা তুলে ধরা একটি দৃষ্টিভঙ্গি অনুসারে ২০২১ সাল নাগাদ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত দেশ হয়ে উঠবে।
দারিদ্র্য নিরসনের লক্ষ্যে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি, শিক্ষা, লিঙ্গ সমতা, জলবায়ু পরিবর্তনের অভিযোজন, এবং শান্তিরক্ষী বাংলাদেশকে কমপক্ষে উন্নয়নশীল দেশগুলির মাধ্যমে সারা বিশ্বে একটি ভূমিকা মডেল হিসাবে পরিণত করেছে।
অর্থনৈতিক সূচকগুলিতেই নয়, শিশু মৃত্যুর হার এবং জন্মের সময়কালের প্রত্যাশায় মানব ও সামাজিক উন্নয়নের সূচকগুলিতে প্রতিবেশীদের তুলনায় বাংলাদেশও নেতৃত্ব দিচ্ছে।
এটি ইঙ্গিত করে যে, স্থায়ী উন্নয়নের লক্ষ্যে (এসডিজি) অর্জনের জন্য বিশ্বব্যাপী চিন্তার নেতা হিসেবে আবির্ভূত হওয়ার জন্য বাংলাদেশ ভাল অবস্থান করছে।
আমরা গর্ববোধ করি, বাংলাদেশ একটি তারকা অভিনেতা এবং শীর্ষ ১৮ টি দেশের মধ্যে ইউএনডিপি দ্বারা প্রকাশিত এমডিজি অর্জন করে। আমাদের সম্মানিত প্রধানমন্ত্রীকে জাতিসংঘের এমডিজি অ্যাওয়ার্ডস ২০১০ এবং তার অসামান্য অবদানের জন্য গত সাত বছরে অনেক বেশি সম্মাননা প্রদান করা হয়েছিল।
একটি বর্ধিত বাজেট আকার পরিচালনা এবং বাস্তবায়ন মহান চাপ আসে। নীতি পরিকল্পনাকারীরা দারিদ্র্য নিরসনে এবং উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলের মৌসুমী বা অতি দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষা, শিক্ষা, এবং স্বাস্থ্য বাজেটের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখার বিষয়ে ক্রমাগত সচেতন হয়ে উঠছে, মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করে, সাধারণ মানুষের সর্বনিম্ন স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদান করে এবং এমনকি প্রযুক্তির ব্যবহার মাধ্যমে জাতীয় রাজধানী গঠন ত্বরান্বিত।

তথ্য অ্যাক্সেস (a2i), ইউএনডিপি এবং ইউএসএআইডি এর সহায়তায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একটি প্রকল্প, ইতোমধ্যেই 1 বিলিয়ন মানুষের দিন এবং একমাত্র ২০১৬ সালে ১.৫ বিলিয়ন ডলার সংরক্ষণ করেছে। এসডিজি ট্র্যাকারগুলি চালু করার জন্য বাংলাদেশ বিশ্বের প্রথম দেশ হয়ে ওঠে, এটি একটি প্রযুক্তি ভিত্তিক প্ল্যাটফর্ম যা এসডিজিগুলির সাথে সমন্বিত জাতীয় প্রোগ্রামগুলির উপর নজরদারি করে।

ডিজিটাল বাংলাদেশের দৃষ্টিভঙ্গির সাথে সাথে, জাতির প্রথম ভূতাত্ত্বিক উপগ্রহ, বঙ্গবন্ধু -১, ১১ মে ২০১৮ সালে সফলভাবে চালু হয়েছিল, যা বিশ্বব্যাপী মহাকাশ সমাজে বাংলাদেশকে আত্মপ্রকাশ করেছিল। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সাহায্যের ক্ষেত্রে তার ভূমিকার জন্য বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়ে বাংলাদেশ এবং প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত প্রতিক্রিয়া ও উদারতা সহ বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত ছিল। এই সাফল্য এবং মাইলফলকদের পর্দার পিছনে, আমাদের ৭ম পাঁচ বছরের পরিকল্পনা, সরকারের দৃষ্টিকোণ কৌশল পরিকল্পনা প্রণয়নের সুযোগ ছিল, যা সৌভাগ্যক্রমে এমডিজিগুলির চূড়ান্ত বছর এবং জাতিসংঘের ২০৩০ এর এজেন্ডা প্রবর্তনের সাথে মিলেছিল। অতএব, আমাদের 7 ম-পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার অন্তর্গত উন্নয়ন পদ্ধতি বিশ্বব্যাপী কর্মসূচির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।
নিশ্চিত যে আমরা সবাই একদিন আমাদের ইন্দ্রিয়গুলিতে আসব, এবং আমরা বাংলাদেশকে ভালবাসি, এবং আমাদের অন্তরে গভীর, আমরা জানি – আমরা একদিন বিজয়ী হব।

বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি হবে গ্রানাইট আর বোলিং মেশিনেই

Now Reading
বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি হবে গ্রানাইট আর বোলিং মেশিনেই

সামনেই ক্রিকেট বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপ দলে সম্ভাব্যদের অন্যতম মোহাম্মদ মিঠুন সেটি দিলেনও, ‘ডিপিএলে যে উইকেট থাকে, ইংল্যান্ডের উইকেট তো আর ওরকম হবে না।’
একই রকম হবে না আরো অনেক কিছুও। সেই ফিরিস্তিও তুলে ধরলেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান, ‘ডিপিএলে বেশির ভাগ ওভারই করে স্পিনাররা। বিশ্বকাপে গিয়ে একটি দলের একাদশে আমরা হয়তো বড়জোর একজন স্পিনারই দেখতে পাব। এর বেশি তো খেলবে না।’ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের ডিপিএল খেলা তাই শুধুই হয়ে উঠছে খেলার মধ্যে থাকার এক টুর্নামেন্ট। বিশ্বকাপ ভাবনায় থাকায় কেউ কেউ যেমন এর মধ্যেও পাচ্ছেন বিশ্রাম।
মিঠুনও পেয়েছেন তা। ক্রাইস্টচার্চের নূর মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় আগেভাগেই দেশে ফেরার পর আবাহনীর হয়ে দুটি ম্যাচ খেলা এই ব্যাটসম্যান এখন আছেন বিশ্রামে। কিউইদের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডেতেই ফিফটি করা মিঠুন শেষ ম্যাচটি খেলতে পারেননি হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়ায়। বিশ্বকাপ সামনে রেখে যাতে ওই জায়গায় বাড়তি চাপ না পড়ে, সে জন্য বিশ্রাম দিয়ে দিয়ে তাঁকে খেলাচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী।
চির প্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডানের বিপক্ষে না খেলা মিঠুন সম্ভবত খেলবেন না দলের পরের ম্যাচটিও। এরপর খেললেও তা যে বিশ্বকাপ প্রস্তুতির সহায়ক হবে না, সেটি তো আগেই বলেছেন। তাহলে বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে এপ্রিলের শেষ দিকে দেশ ছাড়ার আগে ওখানকার কন্ডিশন মাথায় রেখে কোনো প্রস্তুতিই নেবেন না ক্রিকেটাররা? মিঠুন জানালেন সে প্রস্তুতি তারা আলাদাভাবেই নেবেন। ডিপিএলের ফাঁকে ফাঁকেই আয়ারল্যান্ড সিরিজ ও বিশ্বকাপের প্রস্তুতি এগিয়ে নেবেন তারা, ‘আইরিশ ও ইংলিশ কন্ডিশনের কথা মাথায় রেখে পেস বল খেলার জন্য আলাদা কাজ করতে হবে আমাদের। একটু বাউন্সি উইকেটে সাইড স্ট্রোকগুলো অনুশীলন করতে হবে। যা ওখানে আমার কাজে দেবে।’
কিন্তু ওখানকার কন্ডিশনও তো এখানে কৃত্রিমভাবে তৈরির উপায় নেই। চাইলেই তো আর বাউন্সি উইকেটও পাবেন না এখানে। এই বাস্তবতা মাথায় রেখেই প্রস্তুতির জন্য যে বিকল্প ব্যবস্থা থাকছে, তা অবশ্য নতুন নয়। সাবেক কোচ জেমি সিডন্স যেমন একবার বাংলাদেশ দলের অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে গ্রানাইট পাথরের স্ল্যাব আনিয়েছিলেন অনুশীলনে। তাতে ফেলা হলে বল একটু বেশিই লাফায়। বাড়তি বাউন্সের বিপক্ষে প্রস্তুতির সেই পুরনো ফর্মুলাই বিশ্বকাপ প্রস্তুতিতেও ব্যবহার করবেন মিঠুনরা। সেই সঙ্গে বোলিং মেশিন তো থাকছেই, ‘ব্যবস্থা একটি তো করতেই হবে। ইংল্যান্ডের মতো উইকেট পাওয়া যাবে না যখন, তখন বিকল্প ব্যবস্থায় যেতেই হবে। এই ধরুন গ্রানাইট পাথরের স্ল্যাব কিংবা বোলিং মেশিনে বাড়তি বাউন্সের বল খেলার অনুশীলন করতে হবে।’
আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডে গিয়ে কেমন উইকেট পাবেন, সে ধারণা নিউজিল্যান্ড থেকেই নিয়ে এসেছেন মিঠুন। জাতীয় দলের অন্যরা এর আগে একাধিকবার খেললেও তাঁর জন্য নিউজিল্যান্ড সফর ছিল এই প্রথম। অথচ প্রথম দুই ওয়ানডেতে অন্যদের তুলনায় সফল ছিলেন তিনি। টানা দুই ফিফটি করা এই ব্যাটসম্যানের ইনিংস আরো বড় করতে না পারা নিয়ে আছে আক্ষেপও, ‘কোনো ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্কে থামতে চায় না। সবাই চায় তিন অঙ্কে যেতে। একটি ইনিংস ফিফটি পেরিয়ে শেষ হয়ে গেলে তা যথেষ্ট নয়। তিন অঙ্কে নিয়ে যেতে পারলে দলের যেমন লাভ, তেমনি আমারও।’
সেই লাভের অঙ্কও বিশ্বকাপের আগেই মেলাতে চান মিঠুন, ‘চেষ্টা থাকবে যে ভুলগুলো করেছি, এরপর যাতে আর না হয়। শুধু বিশ্বকাপ নয়, এরপর যে ম্যাচ খেলব, সেই ম্যাচেই যেন ভুল থেকে বেরিয়ে আসতে পারি। পরের ম্যাচেই যদি এখান থেকে বের হতে পারি, তাহলে বিশ্বকাপে আরো ভালো করার সম্ভাবনা থাকবে। আমার লক্ষ্য সেটিই।’

যে সব কারনে বাংলাদেশ বিখ্যাত

Now Reading
যে সব কারনে বাংলাদেশ বিখ্যাত

বাংলাদেশ এশিয়া মহাদেশে ভারত ও থাইল্যান্ডের নিকটতম বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত। বাংলাদেশ সুদৃশ্য সবুজ এবং আড়াআড়ি অসংখ্য জলপথের জন্য জনপ্রিয়। নদী মাতৃক দেশ বাংলাদেশ। ছোট্ট আয়তনের সবুজ শ্যামলে ঘেরা একটি দেশ। যার সর্বোত্র ছোট-বড় অসংখ্য জলাশয় জালের মত ছড়িয়ে আছে। আর নদীবহুল দেশ বলে স্বাভাবিকভাবেই এ দেশের মানুষের জীবনযাত্রার ওপর নদীর প্রভাব রয়েছে। বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও রূপ, লাবণ্যের কথা বলে শেষ করা যায় না। যতই বলি মনে হয় যেন কম বলা হয়েছে। বাংলাদেশের ১০ টি বিখ্যাত বিষয় যার জন্য বাংলাদেশ পুরো পৃথিবীর কাছে বিখ্যাত।

বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত

সারি সারি ঝাউবন, বালুর নরম বিছানা, সামনে বিশাল সমুদ্র। কক্সবাজার গেলে সকালে-বিকেলে সমুদ্রতীরে বেড়াতে মন চাইবে। নীল জলরাশি আর শোঁ শোঁ গর্জনের মনোমুগ্ধকর সমুদ্র সৈকতের নাম কক্সবাজার। অপরূপ সুন্দর বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। পরিবহনের সবচেয়ে পরিচিত মাধ্যমের একটি নৌকা ব্যবহার, বাংলাদেশের জন্য বিখ্যাত আশ্চর্যজনক কিছুর মধ্যে মধ্যে এইটা অন্যতম। বাংলাদেশের কক্সবাজার, পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত।কক্সবাজারের দৈর্ঘ্য ১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ। সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের পরিদর্শন সময়ে অসময়ে থাকে।

গম্ভীর নাগরিক

বাংলাদেশের মানুষ গম্ভীর স্বভাবের, এদেশের মানুষ অসুখী না হলেও বিশেষ কোন কারণ ছাড়া হাসে না। বাংলাদেশের মানুষ খুব বন্ধু সুলভ, তাই না হাসলেও অপ্রাসঙ্গিকভাবে কোন কারণ নেই যে তাঁদের যে কেও অপছন্দ করবে। এদেশে কেউ অপ্রাসঙ্গিক কারনে যদি বেশী হাসিখুশি থাকে তবে তাকে অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং বাচ্চা বলে মনে করা হয়।

এণ্টি বাম হাত দেশ

বাংলাদেশে বাম হাত ব্যবহার করাকে sacrilege হিসাবে গণ্য করা হয়। বাম হাতে খাবার বা পানি দেওয়াকে অশুচি বলে গণ্য করা হয়। এমনকি বাম হাত দিয়ে আপনার ব্যবসার কার্ড দেওয়া বা কারো সাথে হ্যান্ডশেক বিনিময় করে না। এদেশের মানুষ অত্যন্ত বিনয়ি।

জাতীয় দৈনিক পত্রিকা

বাংলাদেশে ২০০০ এরও বেশি পত্রিকা ও সাময়িকী দৈনিক প্রকাশিত হয়। মজারব্যপার হলেও, দেশের জনসংখ্যার মাত্র ১৫% মানুষ এই প্রকাশনার উৎসাহী পাঠক।

রাজস্ব সৃষ্টি

বাংলাদেশের কৃষি ব্যবস্থা খুব প্রচলিত, কিন্তু বিস্ময়কর ব্যপার যে বাংলাদেশ রপ্তানি থেকে তার রাজস্ব উৎপন্ন করে। পোশাক শিল্পের মাধ্যমে এই অর্জন।

কৃষি প্রধান দেশ

দেশের সামগ্রিক জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি জীবিকার উৎস হিসাবে কৃষি কর্মকাণ্ডে জড়িত। বাংলাদেশে প্রধান পেশা চাষ করা।

বিশ্বের বৃহত্তম উপসাগর

বঙ্গোপসাগর পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উপসাগরীয় অঞ্চল। এটি ২১,৭২,২০০ বর্গ কিলোমিটার পরিমাপ করে। উপসাগরটি ১,৬১০ কিলোমিটার প্রশস্ত এবং৮,৫০০ ফুট গভীর।

ঋতু খেলার ভূমি

বাংলাদেশ ঋতুদের খেলার মাঠ হিসাবে পরিচিত, এবং এর কারণ অজানা নয়। বাংলাদেশে মোট ছয়টি ঋতু আছে, যার মধ্যে চারটি ঋতু সারা বিশ্বজুড়ে পরিচিত যেগুলো অন্য সকল দেশের থেকে গভীর বিপরীতে হয়। এই ঋতুগুলির নাম সামার মানে গ্রীষ্ম, রেইনি যার অর্থ বৃষ্টি, অটাম যার মানে শরৎ, কুল যার মানে হেমন্ত, উইন্টার মানে শীত এবং বসন্ত যার অর্থ স্প্রিং।

জনপ্রিয় খেলা

বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেট। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ১৯৯৯ সালে বিশ্বকাপ টেস্ট স্ট্যাটাস থেকে ২০০০ সালে বিশ্বকাপে খেলার জন্য নির্বাচিত হয়েছিল। টেস্ট ক্রিকেটের একটি দল হিসেবে তাদের ধৈর্যের দক্ষতা পরীক্ষা করার জন্য ক্রিকেটের সম্মাননা অর্জন করে।

জাতীয় পশু

বাঘ হয়তো অন্য দেশের কাছে অনেক বেশি কিছু না হতে পারে, তবে বাংলাদেশে বাঘ ভালভাবেই সম্মানিত। রয়েল বেঙ্গল টাইগার দেশের গর্ব, এবং এটি দেশের জাতীয় প্রাণী হিসেবে পরিচিত। যখন রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার গর্জন করে, তখন আপনি প্রায় ৩ কিলোমিটার দূরে থেকে তার শব্দ শুনতে পাবেন।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা আজ

Now Reading
স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা আজ

আজ আলোচনা সভা আয়োজন করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভা।
আজ বুধবার বিকাল সাড়ে তিনটায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।
উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবীগণ। গতকাল এ কথা জানানো হয় আওয়ামী লীগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

মালয়েশিয়ায় বান্ধবীকে নির্যাতনের দায়ে, বাংলাদেশি যুবকের ১০ বছর কারাদণ্ড

Now Reading
মালয়েশিয়ায় বান্ধবীকে নির্যাতনের দায়ে, বাংলাদেশি যুবকের ১০ বছর কারাদণ্ড

বাংলাদেশি এক যুবককে ১০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছে মালয়েশিয়ার একটি আদালত। মালয়েশিয়ায় সাবেক বান্ধবীকে মারধর করার দায়ে বাংলাদেশি যুবককে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়। গত সোমবার এ রায় ঘোষণা করা হয়।
সাজাপ্রাপ্ত বাংলাদেশির নাম শহিদুল ইসলাম (২২)।

অভিযোগ অনুযায়ী, শহিদুল ইসলামের সাবেক বান্ধবীর নাম নূর জাওয়াতি জয়নাল আবেদিন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি কুয়ালালামপুরের ট্রপিকানা সিটি মলে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে ছুরি দিয়ে তাঁর মুখে আঘাত করেন শহিদুল।

ঘটনার দিনই শহিদুলকে গ্রেপ্তার করা হয়।
রায়ে আদালত বলেছেন, গ্রেপ্তারের দিন থেকে তাঁর সাজা কার্যকর হবে।

বাংলাদেশের দাবাড়ু ফাহাদ মাত্র ১৬ বছর বয়সেই বিশ্বকাপে

Now Reading
বাংলাদেশের দাবাড়ু ফাহাদ মাত্র ১৬ বছর বয়সেই বিশ্বকাপে

বাংলাদেশের দাবাড়ু ফাহাদ রহমান মাত্র ১৬ বছর বয়সে দাবা বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এশিয়ান জোনাল ৩.২ দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের ওপেন বিভাগে চমক দেখিয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ফিদেমাস্টার ফাহাদ। ৭ পয়েন্ট সংগ্রহ করে টাইব্রেকিং পদ্ধতিতে শিরোপা জয় করে পেয়েছে বিশ্বকাপের টিকিট। এর ফলে বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ দাবাড়ু হিসেবে আগামী নভেম্বরে রাশিয়ায় দাবা বিশ্বকাপে খেলতে যাবে এই কিশোর।
কী নাটকীয়তায়ই–না বিশ্বকাপের টিকিট পেয়েছে ফাহাদ। ক্ষণে ক্ষণে বদলেছে টুর্নামেন্টের রং। ষষ্ঠ রাউন্ড পর্যন্ত আধা পয়েন্ট এগিয়ে ছিলেন গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমান। তাঁকে সরিয়ে শীর্ষে চলে আসেন আরেক গ্র্যান্ডমাস্টার এনামুল হোসেন রাজীব। কাল নবম অর্থাৎ শেষ রাউন্ডে আধা পয়েন্ট এগিয়ে থাকা রাজীবের প্রয়োজন ছিল জয়। তাহলেই চ্যাম্পিয়ন হন এশিয়ান ৩.২ অঞ্চলে। কিন্তু রাজীব কাল হেরে যান শেষ দিকে দারুণভাবে ফিরে আসা গ্র্যান্ডমাস্টার রিফাত বিন সাত্তারের কাছে। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সম্ভাবনা ছিল রিফাতেরও। তবে এই দুজনকে ছাপিয়ে শেষ বেলার চমকে চ্যাম্পিয়নের নাম ফিদেমাস্টার ফাহাদ রহমান। এতে সরাসরি ফিদেমাস্টার থেকে হয়ে গেল আন্তর্জাতিক মাস্টার।

শেষ রাউন্ডে কালো নিয়ে ৪১ চালে ফাহাদ হারিয়েছেন ফিদেমাস্টার মেহেদি হাসান পরাগকে। তুলনামূলক সহজ ম্যাচ ছিল এটি তাঁর জন্য। ফাহাদ কাজের কাজটা করেছেন আসলে অষ্টম রাউন্ডে গ্র্যান্ডমাস্টার আবদুল্লাহ আল রাকিবকে হারিয়ে। তারপরও কাল রাজীব জিতলে ফাহাদ নয়, রাজীবই চ্যাম্পিয়ন হতেন। কিন্তু রাজীব হেরে গেছেন রিফাতের কাছে। তৃতীয় হয়েছেন রাজীব। ৯ ম্যাচে ফাহাদের পয়েন্ট ৭। রিফাতেরও পয়েন্ট ৭। তবে দুজন যাঁদের বিপক্ষে খেলেছেন, তাঁদের গড় রেটিং হিসাবে ফাহাদ বেশি রেটিংয়ের খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলেছে। তাই সে চ্যাম্পিয়ন।

সারাদিনের খবর

Now Reading
সারাদিনের খবর

জাতীয়ঃ

খোলস পরিবর্তন করে সুপ্রভাত রূপ নিচ্ছে সম্রাটেঃ
রাজধানীর সদরঘাট থেকে গাজীপুর মহানগরীর গাজীপুরা রুটে চলাচলকারী ‘সুপ্রভাত স্পেশাল বাস সার্ভিস’ পরিবহনের কিছু বাসের রঙ বদলে এখন হয়ে যাচ্ছে সম্রাট ট্রান্সলাইন (প্রা.) লি.। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24507

মাদকবিরোধী অভিযানের বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন একজনঃ
কুমিল্লার সদর দক্ষিণে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছেন মাদকবিরোধী অভিযানে। নিহত ব্যক্তির নাম জামাল উদ্দিন ওরফে জাম্বু মিয়া জানিয়েছেন পুলিশ। পুলিশ আরো জানান তিনি ১১ মামলার আসামি। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24519

দৃশ্যমান হতে যাচ্ছে পদ্মা সেতুর নবম স্প্যানঃ
আজ বৃহস্পতিবার সকালেই স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। একটানা ১২০০ মিটার দৃশ্যমান হবে, এটি স্থাপিত হলে। এই সেতুর জাজিরা প্রান্তে বেলা ১২টার দিকে সেতুর জাজিরাপ্রান্তে ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর এটি বসানো সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এ ছাড়া একটি স্প্যান সাময়িকভাবে রাখা আছে মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24513

রাজনীতিঃ

আমরা প্রতিহিংসার রাজনীতি বিশ্বাস করিনা: তোফায়েলঃ
বিএনপির রাজনীতি ভুলে ভরা বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি। তিনি আরো বলেন এজন্য মানুষ তাদের কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। একদিন বিএনপি বিলীন হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24560

খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে পরিণতি শুভ হবে না বলে হুঁশিয়ার করলেন রিজভীঃ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন বাকশাল থাকলে নির্বাচন নিয়ে কোনো বির্তক থাকত না, প্রশ্ন উঠত না। বাকশাল ছিল সর্বোত্তম পন্থা। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কথায় প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে, একদলীয় স্বৈরতান্ত্রিক বাকশাল পুনঃপ্রতিষ্ঠার মাধ্যমে মরহুম শেখ মুজিবুর রহমানের মতো বিনাভোটে, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আজীবন ক্ষমতায় থাকার খোয়াব দেখছেন শেখ হাসিনা। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24581

কক্সবাজারকে পর্যটন শিল্পের পাশাপাশি অর্থনৈতিক অঞ্চল হিসেবে গড়ে তোলা হবেঃ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরামর্শ দিয়ে বললেন দেশের উন্নয়ন করতে গিয়ে গরিব মানুষের জীবন ও জীবিকা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে সংশ্লিষ্টদের নজর রাখতে হবে । তিনি আরো বলেন, উন্নয়নটা যেন মানুষের জন্য হয়, মানুষের ক্ষতি করে যেন উন্নয়ন না হয়।
আজ বৃহস্পতিবার মহেশখালী-মাতারবাড়ি সমন্বিত অবকাঠামো উন্নয়ন কার্যক্রম প্রকল্পের উপস্থাপনা অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এই পরামর্শ দেন। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24553

ড. কামাল জরুরি বৈঠক ডেকেছেন ঐক্যফ্রন্টেরঃ
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন স্টিয়ারিং কমিটির জরুরি বৈঠক ডেকেছেন। শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনের জামান টাওয়ারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকের আলোচ্য বিষয় সম্পর্কে জানা যায়নি। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24589

খেলাধুলাঃ

বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন কাটার মাস্টার খ্যাত মোস্তাফিজুর রহমানঃ
বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অনেক খেলোয়ারই বিয়ে করে ফেলেছেন। এবার সেই তালিকায় নাম শোনা যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম একজন ক্রিকেটার মুস্তাফিজের। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24515

সার্বিয়া রুখে দিল জার্মানিকেঃ
জার্মানি ফুটবল বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী একটি দল। চার বার তারা ফুটবল বিশ্বকাপ জয় করেছে। কিন্তু গত বিশ্বকাপে ১ম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয়। রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে নেমে সার্বিয়ার বিপক্ষে ১-১ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24517

মেসির ক্লোন মাঠে নামবে, মেসি অবসরের পরঃ
মেসি বর্তমান বিশ্বের সেরা ফুটবলার। মেসির খেলা অপছন্দ করে এমন একজন ফুটবল প্রেমী খুজে পাওয়া যাবে না। কিন্তু মেসির বয়স হয়ে যাচ্ছে, এক সময় তিনি অবসর নিবেন। তখন নামানো হবে মাঠে হুবুহু আরেকজন মেসিকে। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24509

আন্তর্জাতিকঃ
জুমার নামাজ সরাসরি সম্প্রচারের নির্দেশ নিউজিল্যান্ডেঃ
কাল আবার সেখানে জুমার নামাজ আদায় করতে সমবেত হবেন মুসল্লিরা। এদিন দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন (টিভি এনজেড) ও রেডিওতে (রেডিও এনজেড) জুমার নামাজের আজান সম্প্রচারের ঘোষণা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। জাতীয়ভাবে পালন করা হবে দুই মিনিটের নীরবতা। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24539

ফিনল্যান্ড বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশঃ
জাতিসংঘের ২০১৯ সালের জরিপ অনুযায়ী বিশ্বের সব থেকে সুখী দেশের তালিকায় স্থান পেয়েছে ফিনল্যান্ড। টানা দ্বিতীয়বারের মতো সুখী দেশের তালিকায় শীর্ষ স্থান পেলো দেশটি।

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24535

কুখ্যাত সার্ব নেতা রাদোভানের সাজা বারিয়ে যাবজ্জীবনঃ
২০ বছর আগে সাবেক যুগোস্লাভিয়ার জাতিগত যুদ্ধে স্রেব্রেনিকাতে গণহত্যা চালানোর দায়ে রাদোভানকে গতকাল বুধবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়।

বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24544

হিমালয়ে মিলছে অসংখ্য মরদেহঃ
পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্ট জয় করার স্বপ্ন দেখে সকল পর্বাতারোহীরা। অনেক পর্বাতারোহীরা এই স্বপ্ন পূরণ করতে পারেন আর অনেকে পারেন না। বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্ট জয় করতে গিয়ে অসংখ্য পর্বাতারোহী প্রাণ হারিয়েছেন। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- http://footprint.press/archives/24570

ড. কামাল জরুরি বৈঠক ডেকেছেন ঐক্যফ্রন্টের

Now Reading
ড. কামাল জরুরি বৈঠক ডেকেছেন ঐক্যফ্রন্টের

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন স্টিয়ারিং কমিটির জরুরি বৈঠক ডেকেছেন। শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনের জামান টাওয়ারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকের আলোচ্য বিষয় সম্পর্কে জানা যায়নি।
সভার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দফতর প্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু।
ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে ওই বৈঠকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডির আ স ম আবদুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ ফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত থাকবেন বলে ঐক্যফ্রন্ট সূত্রে জানা গেছে।

Page Sidebar