উল্টো ঝর্ণা – reverse waterfall

Now Reading
উল্টো ঝর্ণা – reverse waterfall

ঝর্ণা কার না ভালো লাগে ?
আমাদের মাঝে প্রাকৃতিক ভাবে মিশে আছে ঝর্ণা, সাগর , পাহাড় , বন, নদী, আমাদের খুব ভাবে টেনে থাকে এই সব জিনিস গুলো .

মোটামুটি আমার সবাই ঝর্ণা কম বেশি সবাই ভালোবাসি . আসলে ভালোবাসবোই না কেন. ভালোবাসার মতো একটা জিনিস . পাহাড়ের গা বেয়ে নিচে নেমে পরে তার পানি , দেখতে খুব সুন্দর লাগে . যারা ভ্রমণ পিপাসু তাদের খুব বেশি টেনে থাকে এই সব জিনিস গুলো .

আজ আপনাদের এমন একটা ঝর্ণা এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব যা আপনারা আগে কখনো শুনেছেন বা তার সম্পর্কে জেনেছেন কিনা তা খুব সন্দেহ .

আজ ভারতের মহারাষ্টের পুনে শহরের একটি ঝর্ণার সাথে পরিচয় করিয়ে দিব , যার সম্পর্কে মানুষ খুব কম জেনেছে .
অন্য আর ১০ টা ঝর্ণার মতো তার বৈশিষ্ট নয় . আমরা মূলত জানি ঝর্ণার পানি পাহাড়ের গা বেয়ে নিচে নামে কারণ মধ্যাকর্ষণ এর কারণে পানি নিচে পতিত হয় , কিন্তু এই ঝর্ণার পানি নিচে পরে ঠিক কিন্তু অর্ধেক পথ থেকে আবার উপরে উঠে যায় . না ভাই আপনি ভুল কিছু পড়ছে না . হ্যা অর্ধেক পথ থেকে সে আবার উপরের দিকে ফিরে আসে ,
তাহলে কি মধ্যাকর্ষণ শক্তি এই খানে কাজ করে না? ঠিক তা নয় , এইখানেও কাজ করে কিন্তু নিচের দিকে প্রচুর বাতাস থাকার কারণে পানি অর্ধেক নিচে নেমে আবার উপরে উঠে যায় , বিশেষ করে বর্ষা এর সময় খুব বেশি বাতাস থাকে তখন ঝর্ণার পানি অর্ধেক পড়ার আগে সম্পূর্ণটা আবার আগের জায়গায় ফিরে আসে .

কিভাবে যাবেন?

প্রথমে আপনাকে ইন্ডিয়ার ভিসা করতে হবে , ইন্ডিয়ান হাইকমিশন থেকে ভিসা করে নিবেন , একটু মাথায় রাখবেন যেন আপনার ভিসা বেনাপোল বর্ডার দিয়ে হয় . তাহলে আপনার জন্য কলকাতা যাওয়া সহজ হবে . যাওয়ার সময় ডলার করে নিয়ে যেতে পারেন . একটা অনুরোধ ডলার কখনোই বর্ডার এর কাছে ভাঙাবেন না , রেট কম পাবেন তাহলে . বর্ডার ক্রস করে আপনি সরাসরি কলকাতার বাসে উঠে পড়তে পারেন . সেখান থেকে আপনি নেমে পড়ুন কলকাতার নিউ মার্কেটে . তারপর একটা ট্যাক্সি করে চলে আসুন হাওড়া রেল স্টেশনে . একটা কথা মাথায় রাখবেন , যদি সম্ভব হয় কিছু দিন আগে থেকে কলকাতা টু পুনে এর টিকেট কেটে রাখবেন , কারণ ইন্ডিয়ার জনসংখ্যা বেশি হবার দরুন প্রতিদিনের টিকেট প্রতিদিন পাওয়া যায় না , আর যদি তা সম্ভব না হয় তাহলে বিদেশী কোটায় টিকেট কেটে নিতে পারেন ,

কলকাতা টু পুনে ৩৬ ঘন্টা জার্নি . মানে প্রায় দুই রাত একদিন আপনাকে ট্রেনে কাটাতে হবে ,প্রথম দিকে আপনার খুব ভালো লাগলেও পরবর্তীতে এই লম্বা জার্নির জন্য আপনি একদম বোরিং হয়ে যাবেন . কিন্তু আপনি জানালা দিয়ে তাকিয়ে তখনি মজা পাবেন যখন দেখবেন ট্রেন এক একটা প্রদেশ পার হয়ে যাচ্ছে আর আপনি প্রকৃতির এক এক রূপ দেখতে পাচ্ছেন , ইন্ডিয়ার প্রদেশের পরিবর্তনের সাথে সাথে আবহাওয়া ও প্রকৃতি বেশ পরিবর্তন হয়ে থাকে . আপনি ট্রেনে ঘুমাতে পারবেন , আপনি যখন ট্রেনের টিকেট কাটবেন তখন তারা টিকেট এর সাথে খাবার এর মূল্য রেখে দেয় , আপনি সময় মতো খাবার ও পানি পেয়ে যাবেন . বিশাল ৩৬ ঘন্টা জার্নি করে আপনি পৌঁছে যাবেন পুনে রেলওয়ে স্টেশনে .

আসে পাশে আপনি অনেক হোটেল পাবেন , আপনি স্টেশন থেকে একটু এগিয়ে গেলে কম দামে খুব ভালোমানের হোটেল পাবেন . পুনের প্রথম দিন হোটেল চেকইন করে রেস্ট নিতে পারেন . আর সন্ধ্যায় আসে পাশের এলাকা গুলো দেখে নিতে পারেন .আর হ্যা যারা কেনা কাটা পছন্দ করেন তারা পুনে থেকে ভালো জিনিস কিনতে পারবেন , সেখানে তুলনা মূলক ভাবে জিনিস পত্রের দাম কিছুটা কম . রাতেই একটি ট্যাক্সি ঠিক করে নিবেন. যাতে আপনাকে খুব ভোরে নিয়ে যেতে পারে . ট্যাক্সি ড্রাইভার কে প্রথমে বলবেন সে যেন আপনাকে সিন্হাগাড় নিয়ে যায় . আর আপনি সেখানেই দেখতে পাবেন রিভার্স ওয়াটারফল .ট্যাক্সি কিছুটা আগে নামিয়ে দিবে . আপনি নেমে গাইড ভাড়া করে নিতে পারেন .সে আপনাকে রিভার্স ওয়াটারফল ঘুরে দেখাবে . যখনি আপনি ওয়াটারফল এর কাছে নিয়ে যাবে তখন আপনি মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে দেখবেন আর অবাক হবেন কি ভাবে উপর থেকে পরে যাওয়া পানি আবার উপরেই ফেরত আসছে .আসলে পাহাড়ে উপরে আপনি যত না বাতাস অনুভব করবেন তার থেকে পাহাড়ের নিচের দিকে অনেক বাতাস .আর এই বাতাসের পরিমান বর্ষা আসলে বেড়ে যায় . যার কারণে পানি অর্ধেক পথ থেকে আবার ফিরে আসে ,.আপনি প্রকৃতির অদ্ভুত খেলা দেখে অবাক না হয়ে পারবেন না,

সেখান থেকে গাইড আপনাকে আরেকটু সামনে নিয়ে যাবে .সেই জায়গার নাম sandhan ভ্যালি . সেখান আপনি দেখতে পাবেন জায়ান্ট সুয়িং . যা আপনাকে আরো রোমাঞ্চিত করে তুলবে . জায়ান্ট সুয়িং হলো ট্র্যাকিং হিল . যেখানে আপনার এডভেঞ্চার কে আরো রোমাঞ্চিত করে তুলতে পারেন .

ঢাকা থেকে বেনাপোল এর ভাড়া পড়বে ৭০০ টাকা
বেনাপোল থেকে কলকাতা ভাড়া পড়বে ১২০০ টাকা
কলকাতা থেকে হাওড়া ভাড়া পড়বে ১০০ টাকা
ট্রেনে করে পুনে বিদেশী কোটায় ভাড়া পড়বে ৩০০০ টাকা
আর পুনে থেকে সিন্হাগাড় ভাড়া পড়বে ৫০০০ টাকা সারা দিন ঘুরাবে
১০০০০ হাজার টাকায় আপনি ৫ দিন এর বেশি পুনে ঘুরতে পারবেন