ফেসবুকের সেরা ৫টি পেইজ

Now Reading
ফেসবুকের সেরা ৫টি পেইজ

আমরা আমাদের দিনের বিশাল একটা অংশ অতিবাহিত করি ফেসবুকে। সারাদিন চ্যাটিং, পোস্ট শেয়ার করা, ছবি আপলোড দেয়া, কোনো খবর পড়া, ভিডিও দেখা, বিভিন্ন ধরনের তথ্য সংগ্রহ করা থেকে অনেক ধরনের কাজই করে থাকি এখানে। এসব বিভিন্ন কাজে আমাদেরকে সাহায্য করছে ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপ কিংবা পেইজ। এই ফেসবুকে এসব তথ্য জানানোর জন্য যেমন রয়েছে কিছু ভালো মানের পেইজ তেমনি রয়েছে অশ্লীল পর্ণোগ্রাফি কিছু পেইজ, রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ধর্ম নিয়ে উস্কানিদাতা পেইজ এবং জঙ্গীবাদে মদদ দেয়ার পেইজও। কিন্তু আজ আমরা ফেসবুকের এমন কিছু সেরা পেইজ নিয়ে আলোচনা করবো যারা আসলেই ভূয়সী প্রশংসা পাওয়ার অধিকার রাখে। তারা অনেক কষ্টকরে আমাদের বিভিন্ন তথ্য জানানোর অক্লান্ত পরিশ্রম করেন। দেখা যাক সেইরকম কিছু ফেসবুক পেইজ-

১। বাংলাদেশীজম ( Bangladeshism) :
বাংলাদেশীজম এমন একটি ফেসবুক পেইজ যাদের মতো অন্যরা কখনো চিন্তা করেনি। বাংলাদেশীজম এর সাথে যারা যুক্ত রয়েছে তাদের দেশপ্রেম এর কথা সাধারণ ভাবে ভাবা যায় না। আমরা যখন Google এ বাংলাদেশ ( Bangladesh) নামে খুঁজি তখন হঠাৎ করে পর্দার সামনে ভেসে আসে কিছু মারামারি দাঙ্গার ছবি, বন্যা দূর্গতদের ছবি যেনো মনে হয় বাংলাদেশ একটি দাঙ্গা প্রবণ দেশ, এইদেশে চরম দারিদ্র্যতা ঝেকে বসেছে। এই দৃশ্য দেখার পর আমাদের কতো জনের মনে ইচ্ছা হয়েছে একে বদলে বাংলাদেশের সুন্দর দিক গুলো এইখানে তুলে ধরতে। বাংলাদেশীজম এই পেইজটি এমন একটি পদক্ষেপ গ্রহন করছে যেনো বাংলাদেশ নামে যখন কেউ গুগল সার্চ বক্সে ক্লিক করবে তখন বাংলাদেশের পজিটিভ দিক গুলো চলে আসে। বাংলাদেশের অসাধারণ প্রাকৃতিক দৃশ্য গুলো পর্দার সামনে ভেসে উঠবে যেনো যে কেউ দেখার সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশকে দেখার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠবে। তারা সামাজিক সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মকান্ডের জন্য উৎকণ্ঠা প্রকাশ করে, সমসাময়িক সমস্যা গুলো তুলে ধরে তা থেকে নিস্তার পাওয়ার উপায় গুলো আলোচনা করে এবং নৈতিক মূল্যবোধের অবক্ষয় নিয়ে তাদের কাজ গুলোকে আরও প্রসারিত করছে। এমনকি তারা বাংলাদেশী লেখকদের জন্য এমন একটি অনলাইন ফ্রীল্যান্সিং ব্যাবস্থা তৈরি করেছে যেখানে যে কেই বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে সুন্দর একটি জায়গায় নিয়ে যেতে পারে সেই সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের বিভিন্ন পজিটিভ দিক গুলো খুব সহজেই মানুষের চোখে পরবে। তারা বাংলাদেশের ফ্রীল্যান্সিং সাইট গুলোর মধ্যে প্রথম যারা এইভাবে দেশের জন্য চিন্তা করছে। এজন্য নি:সন্দেহে তাদেরকে বাংলাদেশের ফেসবুক পেইজের সেরা পেইজ বলে গণ্য করা যায়।

২। রোর বাংলা ( Roar Bangla) :
Roar Bangla ফেসবুক পেইজটি বাংলাদেশের অনন্যতম একটি পেইজ যা ইতিহাসের অনেক অজানা ঘটনা গুলোকে খুব সুন্দর ভাবে তাদের শৈল্পিক কর্মদক্ষতায় তুলে ধরছে। এই পেইজটি অতীতে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ধরনের ভয়াবহ ঘটনা, হত্যাযজ্ঞ, সিরিয়াল কিলিং মিশন, কবি সাহিত্যিকদের জীবন, বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতি, দেশ পরিচালক, ফুটবল, ক্রিকেট সহ নানা ধরনের খেলাধুলা বিষয়ক জনপ্রিয় কিংবা না জানা ঘটনাগুলোকে নানা আঙ্গিকে তুলে ধরে। তাদের ঘটনাগুলোর যে সত্যতা রয়েছে আর তাদের একনিষ্ঠ যে শ্রম দিয়ে এসব তুলে ধরছে তার কারণে তারা সবার কাছে ভালো গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। তারা দিন দিন বাংলাদেশের অন্যান্য প্রথম সারির দৈনিক গুলোর সমতুল্য মর্যাদা লাভ করছে।

৩। মুরাদ টাকলা:
ভাষা বিকৃতি কারীদের জন্য একটি দুর্বিষহ নাম মুরাদ টাকলা। যারা বর্তমান সময়ে বাংলা ভাষাকে ফেসবুক কিংবা ম্যাসেজ করার সময় রোমান হরফে বাংলাকে লেখার চেষ্টা করে বাংলাভাষার যে বিকৃত অবস্থার সৃষ্টি করে তাদের প্রতি এক প্রকার যুদ্ধ ঘোষণা করেছে ফেসবুকের এই মুরাদ টাকলা পেইজটি। মুরাদ টাকলা কথাটি মূলত এসেছে ” মুরোদ থাকলে” কথা থেকে। অর্থাৎ তোমার যদি সামর্থ্য থাকে তাহলে বাংলায় লেখে দেখাও। যে বা যারা এইসব বাংলিশ লেখছে তাদেরকে সবার সামনে তুলে এনে তাদেরকে হেয় করা হচ্ছে যেনো তারা বাংলায় ভালো ভাবে লেখার চেষ্টা করে। মুরাদ টাকলা বাংলা ভাষাকে যথাযথ সন্মান দেখানোর জন্য ভাষা বিকৃতি কারীদের প্রতি এক ধরনের ভার্চুয়াল শাস্তি প্রদান করছে। যার কারণে এই পেইজটি সবার কাছেই খুব সুপরিচিতি লাভ করছে

৪। বিজ্ঞান প্রযুক্তি ( Biggan Projukti) :
বাংলায় বিজ্ঞান চর্চা করার জন্য অন্যতম একটি সেরা পেইজ বিজ্ঞান প্রযুক্তি। প্রযুক্তিগত দিক থেকে আমরা অনেক দেশের পিছিয়ে পড়ে রয়েছি। এই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে আমরা যেনো পিছিয়ে না পড়ি সেই উদ্দেশ্যে গড়ে উঠেছে এই পেইজটি। সর্বসাধারণের জন্যে বিজ্ঞানের নতুন কোনো আবিষ্কার কিংবা নতুন কোনো প্রযুক্তিকে আমাদের মাতৃভাষায় খুব সহজে যেনো সকলকে বুঝাতে পারে সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে এই বিজ্ঞান প্রযুক্তি পেইজটি।

৫। সাইবার ৭১- We Hack To Protect Bangladesh :
বাংলাদেশের অন্যতম একটি সাইবার নিরাপত্তা প্রদানকারী ফেসবুক পেইজ। বর্তমানে আমাদের বিশাল তথ্য বিচরণ করছে Online কিছু সামাজিক মাধ্যমে যা যে কেউ ইচ্ছা করলে হ্যাকিং এর মাধ্যমে জানতে পারবে। আমাদের দেশ ও দেশের মানুষের এসব গোপন তথ্য সুরক্ষা ও ফিরে পেতে বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করে এই পেইজের কিছু হ্যাকাররা। এসব হ্যাকার “White Hat Hacker” গোত্রের যারা মানুষের সাহায্য করে। বাংলাদেশের সাথে অন্যান্য কোনো দেশের সাথে দন্দ হলে তারা তাদের সাথে ভার্চুয়াল যুদ্ধ ঘোষনা করে জানিয়ে দেয় আমরা অন্যায় এর প্রতিবাদ করতে জানি। তাছাড়া আপনার ফেসবুক কিংবা নিজস্ব ডোমেইনের কোনো সমস্যা থাকলে সেটা তাদেরকে জানালে তারা বিনামূল্য তার নিরাপত্তা ব্যাবস্থা ঠিক করে দেয়। এজন্য একে বাংলাদেশের মানুষের তথ্য নিরাপত্তা প্রদানের সেরা পেইজ হিসেবে বিবেচনা করা যায়

ফেসবুক শুধু সময়য় নষ্ট করার কোনো মাধ্যম নয়। এইখানে হাজারো মানুষ রয়েছে যারা একে অন্যের সাথে তাদের তথ্যগুলো শেয়ার করতে চায়। একজন আরেকজনের বিপদে পাশে থাকতে চায়। কেননা এটি একটি সামাজিক মাধ্যম যেখানে সমাজের মানুষরাই একে অন্যের সাথে কানেক্ট থাকে।