২৫০০০ টাকার মধ্যে বেষ্ট ক্যামেরা ফোন এবং বাজেট ফোন

Now Reading
২৫০০০ টাকার মধ্যে বেষ্ট ক্যামেরা ফোন এবং বাজেট ফোন

বর্তমানে মোবাইল বাজার অস্থির একটি অবস্থা। কোন মোবাইল কিনলে ভাল হবে তা বুঝতে বুঝতে অনেকের চোখ লাল হয়ে যায় কিন্তু বুঝতে পারেনা কোন মোবাইল কিনলে ভাল হয়। তবে আপনি যদি আমার মোবাইল রিভিউ পড়েন তাহলে অনেকটা বুঝতে পারবেন কোন মোবাইল আপনার জন্য পারফেক্ট।

অনেকে মনে করেন যে কম টাকায় ভাল মোবাইল আবার অনেকে চান বেষ্ট ক্যামেরা মোবাইল আবার অনেকে চান বেষ্ট ব্যাটারী ব্যাকআপ মোবাইল। আবার অনেকে সব একসাথে চান। তবে সব একসাথে পাওয়া অনেক কঠিন না তবে দাম একটু বেশী।

আমি যে সকল মোবাইল ফোনের নাম নিচে বিস্তারিত উল্লেখ করলাম তা একমাত্র আমার  নিজস্ব মতামত এবং অনেকের মতের সাথে মিলতেও পারে আবার নাও মিলতে পারে।

বেষ্ট ক্যামেরার দিক বিবেচনা করে ভাল মানের অনেক গুলো মোবাইল ফোন আছে যেগুলো পারফরম্যান্সও অসাধারন। তবে আমি বলব শুধু ক্যামেরা না বরং ওভারঅল পারফরমেন্সের দিক দিয়ে যে ফোনগুলো ভাল সেই ফোনগুলোই কেনা উচিৎ।

প্রথমত একটি ভাল ফোন হতে পারে গ্যালাক্সি এ৫ ২০১৭ যাতে রয়েছে ৫.২ ইঞ্চির হাইডেফিনেশন  সুপার এমোলেড ডিসপ্লে  সাথে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল রেয়ার এবং ফ্রন্ট ক্যামেরা যা আপনাকে দিবে অসাধারন সব ছবি এবং ভিডিও ক্যাপচার বা তুলবার সক্ষমতা। যার দাম পড়তে পারে ২৫০০০ টাকা থেকে ২৬০০০ টাকার ভিতরে। এখানে আছে ফাষ্টার চার্জার টেকনোলজী যা ফোনটিকে দ্রুত চার্জ করাতে সাহায্য করবে। এই মোবাইলের বৈশিষ্ট হচ্ছে এটি ওয়াটার প্রুফ যা ১.৫ মিটার পানির গভীরেও  আপনি ছবি তুলতে পারবেন কোন সমস্যা ছাড়াই।

দ্বিতীয়ত এইচটিসির ভাল একটি ফোন হচ্ছে এইচটিসি ডিজায়ার ১০ প্রো যাতে আপনি পাবেন খুব উন্নতমানের ডিজাইন এবং এর পিকচার কোয়ালিটি অনেক ভাল। এতে রয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল মেমরী যা আপনাকে দিবে অসাধারন পারফরম্যান্স। মোবাইলটি সব দিকদিয়েই ভাল কিন্তু দাম একটু বেশী ২৯,১০০ টাকার কাছাকাছি।

শাওমির এমআই৫এস এতে রয়েছে আল্ট্রা পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা থাকাতে এটি ৪ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা হলেও বেশ ভাল মানের এইচডি ছবি তোলা যায়।

বর্তমানে অনেক মোবাইলের মধ্যে এন্ড্রয়েড মোবাইলই সবচেয়ে ভাল এবং জনপ্রিয় একটি মোবাইল হচ্ছে গুগলের পিক্সেল ২আই। গুগলের এই মোবাইলটি দাম বেশি প্রায় ৫০০০০ টাকার মত হলেও খুব ভাল মানের একটি ফোন। এতে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম, ৬৪ বা ১২৮ জিবি ইন্টারনাল মেমরী। এর বাহিরেও এই মোবাইলের মাধ্যমে গুগল ড্রাইভেও যেকোন জিনিস রাখা যায় যা একটি অতিরিক্ত সুবিধা দিয়ে থাকে। মোবাইলের পারফরম্যান্স ছাড়াও ক্যামেরা ফিচার অসাধারণ এবং প্রোসেসরও অনেকে অনেক উন্নত।  তবে যাদের বাজেট ঘাটতি আছে তারা অন্য ব্রান্ডের মোবাইল সিলেক্ট করতে পারেন।

ক্যামেরার দিকে যদি আপনার ঝোঁক থাকে তাহলে স্যামসাং এবং সনি মোবাইলের পারফরমেন্স সবচেয়ে ভাল হবে। এর পাশাপাশি আসুসের জেনফোন সেলফিও, নোকিয়ার নতুন মোবাইল নোকিয়া ৬/নোকিয়া ৮ যা প্রথম  লঞ্চ হয়েছে লন্ডনে এবং এই মোবাইলগুলো খারাপ মোবাইল না। বলতে পারেন বেষ্ট ক্যামেরা মোবাইল ফোন এভার। এন্ড্রয়েড সম্বলিত নকিয়া বা আসুস এর জেনফোন সেলফি মোবাইলের দাম পড়বে প্রায় ২০০০০ টাকা। সেলফি তুলতে যারা আগ্রহি তারা তারা অপ্পো এফ ৫ বা আসুসের জেনফোন সেলফি ফোনটি কিনতে পারেন।  অপ্পো এফ ৫ এর দাম পড়বে ৩০০০০ টাকা অপরদিকে জেনফোন সেলফির দাম পড়বে ২০০০০ টাকার কাছাকাছি।

মোবাইলে র‌্যাম যত বেশী থাকে  পারফরম্যান্স তত বেশী ভাল হয়ে থাকে। বর্তমান বাজারে ৩ জিবি র‌্যাম এর ক্যামেরা মোবাইল কিনলেই ভাল হবে।

বর্তমানে চায়না মোবাইল ফোন ভাল পারফরম্যান্স দেখা যায় এবং যাদের বাজেট কম মোবাইল কেনার ইচ্ছা আছে তারা শাওমি এবং হুয়াওয়ে এবং অপ্পো ব্রান্ডে মোবাইল চয়েজ করতে পারেন। হুয়াওয়ের জিআর ৫ কিনলে অনেককিছু গিফট পাওয়ার সম্ভবনা আছে। ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি সাইজের মেমরীরর এই ক্যামেরা ফোনটিও অনেক ভাল ফোন কারন এতে রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা । হুয়াওয়ের জিআর ৫ এর দাম ১৮,৫৯০ থেকে ২২,০০০ টাকার মধ্যে যা অন্যান্য মোবাইলের তুলনায় কম।

হুয়াওয়ের চার ফোনের মোবাইল যা হুয়াওয়ের নোভা ২  ফোনটি একটি অনেক ভাল মানের ফোন হবে। এতে রয়েছে এন্ড্রয়েড নুগাট যা এন্ড্রয়েডের সর্বশেষ ভার্ষন সংযোজন করা আছে। এতে আছে ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি রম বা ইন্টারনাল মেমরী এবং দাম পড়বে বাংলাদেশী টাকায় ২৬,৯৯০ টাকা মাত্র যা আপনি ঘরে বসেই পিকাবো সাইট থেকে অর্ডার করতে পারবেন। এর ব্যাক বা রিয়ার ক্যামেরা রেজুলেশন দেওয়া আছে ১৬+২ মেগাপিক্সেল এবং ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া আছে ১৩ +২ মেগা পিক্সেল যা দিয়ে অসাধারন ডিএইচএল মানের ছবি তোলা যায়। এই মোবাইলের ডিজাইন অসাধারন এবং এই ফোনটি অনেক স্লিম এবং এটার সাইজ ৫.৯ ইঞ্চি যা অনেক বড় মাপের একটি ফোন।

শাওমির রিদমি ফোর এক্স ৪ জিবি র‌্যাম এর সাথে ইন্টারনাল মেমরী পাবেন ৬৪ জিবি যা যতেষ্ট ভাল পারফরম্যান্স দিবে। কারন অনেকেরই মোবাইলে জায়গা নিয়ে আপত্তি আছে যে মোবাইলগুলো আগে কেনা হয়েছিল তা হয়ত যতেষ্ট স্পেস পাওয়া যায় না যার কারনে স্লো হয়ে যায় কিন্তু এই মোবাইলে সে সম্ভবনা নাই। তাছাড়াও ৪ জিবি র‌্যাম থাকার কারনে পারফরম্যান্স অনেক ভাল হবে। এই মোবাইলের  দামও কম ১৫৫০০ টাকা যা অনেকটা হাতের নাগালে আছে।