Game of thrones (part 2) (আলোচনা: লর্ড ফ্রে,জফ্রি & সারসেই ল্যানিস্টার)

Now Reading
Game of thrones (part 2) (আলোচনা: লর্ড ফ্রে,জফ্রি & সারসেই ল্যানিস্টার)

এর আগে আমি লিখেছিলাম জনপ্রিয় ৩ টি ক্যারেক্টার আরিয়া,জন স্নো এবং খালেসি কে নিয়ে,

আজকে লিখবো অপ্রিয় ৩ টি ক্যারেক্টার নিয়ে..

তারা হলেন, জফরি বারাথিওন,

সারসেই ল্যানিস্টার

& লর্ড ফ্রে..

জফরি বারাথিওন : বারাথিওন টাইটেল পেলেও ইনি সারসেই এবং জেমি ল্যানিস্টার এর ইনসেস্ট। অর্থাৎ এক প্রকার বাস্টার্ড এবং বাজে ধরনের বাস্টার্ড। জেইমি ল্যানিস্টার এবং সারসেই ল্যানিস্টার এই ২ ভাই বোনের ভালোবাসার ফসল হলো এই জফরি। তার আসল বাবা হিসেবে সবাই যাকে চিনে রবার্ট বারাথিওন। রবার্ট বারাথিওন এর মৃত্যুর পর জফ্রি থ্রোনে বসে এবং মারাত্মক ভাবে তার স্টুপিডিটি প্রকাশ পেতে থাকে। সে মানুষ কে পশুর মত হত্যা করে আনন্দ পায়, ইচ্ছে হলেই কাউকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া,তীর দিয়ে কাউকে মেরে ফেলা এগুলাই যেনো তার আনন্দ। একসময় রাজ্যের সবচেয়ে সুন্দরী মার্জারী টাইরেল এর সাথে তার বিয়ে ঠিক হয়, বিয়ের মধ্যেই কে বা কারা জফ্রির ওয়াইন এর মধ্যে বিষ দিয়ে তাকে মেরে ফেলে। এই ক্যারেকটার এর মৃত্যু তে দর্শক যে পরিমান আনন্দ পেয়েছে তা বলার বাইরে।

সারসেই ল্যানিস্টার : একটি কিশোরী মেয়ে বনে জংলের মধ্য দিয়ে হাঠছেন, তার গন্তব্য একটি কুঁড়েঘর। যেখানে একজন গণক থাকে,সে ভবিষ্যৎ বলতে পারে,মেয়েটি তাকে জিজ্ঞাসা করলো তার ভবিষ্যৎ বলতে,..

গণক বলতে চাইলো না.. কিশোরী টি চিতকার করে উঠলো, বলল, তোমাকে বলতেই হবে, আমি প্রিন্সেস সারসেই ল্যানিস্টার আমি যা বলি তা মানতে হয়.. গনক কিছুটা হাসলো,তারপরে বলল.. “Everyone one wants to know their future, until they know it”

সে ভবিষ্যৎ বানী করলো :- সারসেই ল্যানিস্টার এর ৩ টি সন্তান হবে এবং কেউ বেচে থাকবেনা,তাদের মৃত্যু হবে খুব কম বয়সে।

ভবিষ্যৎ বানী টি সত্য হয়েছিলো। সারসেই এর প্রথম সন্তান জফ্রি বিষ প্রয়োগে মারা যায়, দ্বিতীয় সন্তান ও বিষের প্রভাবে মারা যায় এবং তৃতীয় সন্তান আত্মহত্যা করে,কারন তার ভালোবাসার মানুষ টিকে সারসেই ধ্বংস করে।

কিভাবে প্রতিটি ঘটনা ঘটে তা দেখতে হলে দেখতে হবে সিরিজ টি…

লর্ড ফ্রে: লর্ড ফ্রে ছোট খাটো একটি ক্যারেক্টার হলেও দর্শক দের চোখে সবচেয়ে ঘৃনার একটি নাম।

স্টার্ক পরিবার এর সবচেয়ে বড় ছেলে রব স্টার্ক যুদ্ধের মাঝখানে একটি ব্রিজ পাড় হয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয়, ব্রিজ টি ছিলো লর্ড ফ্রে এর দখলে। তার কাছে ব্রিজ পাড় হয়ার অনুমতি চাইলে সে রব স্টার্ক কে শর্ত দেয় তার ২০ জন মেয়ের মধ্যে যেকোনো একটা মেয়েকে বিয়ে করতে হবে, কিন্তু রব আগেই একজন কে ভালোবেসেছিলো,তাই সে শপথ রাখতে পারেনা,সে তার ভালোবাসার মানুষ টিকে বিয়ে করে। এদিকে লর্ড ফ্রে বলে তার কাছে ক্ষমা চেয়ে রব স্টার্ক এর চাচার সাথে যদি তার মেয়েকে বিয়ে দেয় তাহলে সে ব্রিজ পাড় করার অনুমতি দিবে

কথামত সব চুক্তি সম্পন্ন হয়। বিয়ের বাদ্য বাজে অনুষ্ঠান চলছে। হঠাত করে বাদ্যবাজনা বন্ধ হয়ে যায়। বিয়ের অনুষ্ঠান এ স্লটার চলে,..

রব স্টার্ক এর স্ত্রী,রব স্টার্ক সবাইকে ছুরিকাঘাত এর মাধ্যমে হত্যা করে ওয়াল্টার ফ্রে..

রব স্টার্ক এর স্ত্রী ছিলো সন্তান সম্ভবা,তার পেতে ছুরি দিয়ে একবার নয় বারবার স্ট্যাব করতে থাকে তারা..

রব তখনো বেচে আছে, হতভম্ব হয়ে সে তাকিয়ে আছে তার স্ত্রীর দিকে…

রব স্টার্ক এর মা কেটলিন স্টার্ক তখন ওয়াল্টার ফ্রে এর ওয়াইফ কে ধরে ফেলে, বলে কসম লাগে তার ছেলেকে ছেড়ে দিতে নাহয় সে ওয়াল্টার ফ্রে এর ওয়াইফ কে খুন করবে… ওয়াল্টার ফ্রে উত্তর দেয়- “I’ll Find Another!!!”” এবং রব ও তার মা কে গলা কেটে হত্যা করে।

গেম অফ থ্রোন্স এর একটা সিনে একবার ব্র‍্যান্ডন স্টার্ক বলে, গড সবকিছু ক্ষমা করতে পারে, কিন্তু অতিথি কে আপ্যায়ন করে এনে তার ছাদের নিচে খুন করা গড কখনো সহ্য করেনা। তেমনি ভাবে লর্ড ফ্রে এর পরিনতি টা হয় রব স্টার্ক এর ই বোন আরিয়া স্টার্ক এর হাতে। সে ম্যানি ফেসড গড এর প্রশিক্ষণ পূর্ন করে, ভিন্ন চেহারা নিয়ে দাসী সেজে ঘরে ঢুকে। এবং লর্ড ফ্রে এর সন্তান কে সে মেরে কেটে কুচি কুচি করে কাবাব বানিয়ে লর্ড ফ্রে কে খাইয়ে দেয়.. খাওয়ার সময় যখন ফ্রে কাবাব এর মধ্যে একটি আংগুল পায়, তখন আরিয়া তার মুখোশ খুলে ফেলে এবং বলে- ” I am Ariya Stark of winterfell, & I want you to see my face as you die” তারপর লর্ড ফ্রে এর গলা কেটে সে ঘটনার সমাপ্তি করে।

গেম অফ থ্রোন্স এমন একটি সিরিজ যেখানে কোন কিছু প্রেডিক্ট করা যায়না, আজকে যাকে মূল হিরো মনে হচ্ছে,কালকে সে মাটির সাথে মিশে যেতে পারে। ৬ টা সিজন এই পর্যন্ত শেষ হয়েছে, ঘটনা বিস্তৃত হয়েছে অনেক দূর। আরো ২ টা সিজন আসবে। কাহীনি কোন দিকে যে যাচ্ছে কেউ বলতে পারছেনা।

কে থ্রোন এ বসবে?

সারসেই?

খালেসি?

জন স্নো?

নাকি সানসা স্টার্ক: যে ভয়াবহ সব দুর্ঘটনা সারভাইভ করে এসেছে?

নাকি থ্রোন এর কোনো মূল্যই থাকবেনা যখন হোয়াইট ওয়াকার রা ওয়াল পার হয়ে যাবে? যথেষ্ট ভেলেরিয়ান স্টিল এবং ড্রাগন গ্লাস কি তারা যোগার করতে পারবে? হোয়াইট  ওয়াকার দের আগুন দিয়ে থামানো যায়, খালেসির ড্রাগন কি তাহলে ওদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবে? নাকি সমস্ত জীবিত দের ধ্বংস করে দিয়ে থ্রোন এ বসবে একজন হোয়াইট ওয়াকার???

গেম অফ থ্রোন্স নিয়ে আরো অনেক আলোচনা করতে চাই আমি, কিন্তু পাঠক যদি রিকুয়েস্ট করে তাহলে, ঘটনার কোনো অংশে কারো কনফিউশন থাকলে অথবা বিভিন্ন ফ্যান থিওরি নিয়ে আলোচনা করতে চাই ভবিষ্যৎ এ।

IMDB RATING: 9.5/10

আমার রেটিং: 9.8/10

রেটিং ১০ দিবো মূল এন্ডিং দেখার পর।

Game Of thrones (খালেসি,আরিয়া ও জন স্নো)

Now Reading
Game Of thrones (খালেসি,আরিয়া ও জন স্নো)

আলোচনা হবে আজকে প্রিয় গেম অফ থ্রোন্স এর প্রিয় ক্যারেক্টার গুলি নিয়ে।

গেম অফ থ্রোন্স মুলত ৯ টি রাজ্য নিয়ে কাহীনি..

৯ টি রাজ্য একে অপরের সাথে দন্দ্ব কোলাহলে ব্যস্ত।

অত গভীর এ না যাই, স্টোরিটা মুলত মিথিক্যাল। এর মধ্যে বেশীর ভাগ দর্শক এর ই প্রিয় চরিত্র খালেসি ( যে ড্রাগিন নিয়ে লাফালাফি করে) হলেও আমার প্রিয় ক্যারেক্টার টিরিয়ন ল্যানিস্টার এবং আরিয়া স্টার্ক ও জন স্নো। সিরিজ টাতে যে থ্রোন নিয়ে কাড়াকাড়ি তার যোগ্য উত্তরাধিকারী খালেসি হলেও, যোগ্যতার দিক দিয়ে আমি জন স্নো কে বেশী ঠিকঠাক মনে করি।

এখন প্রিয় চরিত্র গুলো নিয়ে কিছুটা বিশ্লেষণ এ আসি।

খালেসি: খালেসির ভাই ছিলো শয়তানের হাড্ডি, থ্রোন পাওয়ার জন্য সে তার বোন কেও বেচে দিতে রাজি ছিলো, তো কর্মের ফল অনুযায়ী বোনের সামনেই জঘন্য ভাবে মৃত্যু হয় তার। খালেসির কাছে ছিলো হাজার বছর পুরানো ৩ টা ড্রাগনের ডিম যা থেকে বাচ্চা বের হয়া প্রায় অসম্ভব ছিলো। কারন ডিম গুলোর কার্যকারিতা শেষ হয়ে গিয়েছিলো,এগুলো পরিনত হয়েছিলো পাথর এ.. কিন্তু মিরাকল ঘটে, ৩ ট ডিম ফুটে বাচ্চা হয় ৩ টি.. খালেসি কে মা ভাবে ড্রাগন গুলো,ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে,খালেসি ছোট ছোট শহর জয় করতে করতে ওয়েস্টেরস ( যেখানে সেই থ্রোন মানে সিংহাসন আছে) এর দিকে এগিয়ে আসতে থাকে, হাজার হাজার আর্মি যোগার করতে থাকে খালেসি ওরফে ডেনেরিস টারগেরিয়ান।

আরিয়া: আরিয়া স্টার্ক থাকে স্টার্ক পরিবার এর একজন সম্মানিত লেডি,কিন্তু লেডি হয়ে কোনো প্রিন্স কে বিয়ে করে বাচ্চা পয়দা করার কোনো শখ তার নেই, সে ফাইট শিখতে চায়। আর্মর পরে সে যুদ্ধ করতে চায়। তার চোখের সামনে যারা তার বাবার গর্দান নিয়েছে তাদের একটি একটি করে খুন করতে চায়। আরিয়া এখানে প্রতিশোধ এর একটি প্রতীক। তার চোখ দিয়ে পানি পরতে দেখা যায়না কখনো, শুধু প্রতিশোধ এর জন্য চোখ জ্বলজ্বল করতে থাকে তার। সে মোটেও অহংকারী না,যখন সে যার সাথে থাকে তাকেই সে মাস্টার মনে করে এবং চলার পথে কিছু না কিছু সে শিখতে থাকে, একসময় সে দেখা পায় “ম্যানি ফেসড গড” এর যে কিনা মুহুর্তে চেহারা বদলাতে পারে, আরিয়া হতে চায় একজন ম্যানি ফেসড গড। প্রশিক্ষন নেয়া শুরু করে সে।

জন স্নো: যে একজন বাস্টার্ড নামে সবার কাছে পরিচিত। কিন্তু আসলেই কি সে বাস্টার্ড নাকি কোনো হাইবর্ন পরিবারে প্রিন্স হয়ে তার জন্ম এ রহস্য অজানা। জন স্নো নাইট ওয়াচ এর একজন ব্রাদার, যারা মানুষ এবং হোয়াইট ওয়াকার দের মাঝে যে ওয়াল আছে তা রক্ষা করে।

সবসময় তারা বলতে থাকে “WINTER IS COMING” ..

কি হবে উইন্টার আসলে? মিথ আছে উইন্টার আসলে হোয়াইট ওয়াকার রা মানুষ দের ওপর আক্রমন করে। তাদের কাছে উচ্চ বংশ নিম্ন বংশ বলতে কিছু নেই, হোয়াইট ওয়াকার দের কাছে মানুষ শুধু ডিনার এবং ফ্লেশ।

হোয়াইট ওয়াকার দের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য অস্ত্র আছে খুব সামান্য, কারন সাধারন তলোয়ার দিয়ে তাদের কিছুই করা যায়না, তাদের মারতে প্রয়োজন হয় ড্রাগনগ্লাস দিয়ে বানানো সোর্ড এবং ভেলেরিয়ান সোর্ড, যা শুধু এসোস মহাদেশে পাওয়া যায়। এবং এসোস মহাদেশে কোন মানুষ বসবাস করে কিনা তারা জানেনা। হোয়াইট ওয়াকার দের প্রথম তৈরী করেছিলো চিল্ড্রেন অব ফরেস্ট। তাদের উদ্দেশ্যে ছিলো মানুষ এর হাত থেকে বাচার জন্য তারা আর্মি তৈরী করবে। মানুষ এর হাত থেকে তো তারা বেচে গেলো, কিন্তু যে পারপোস দিয়ে সেই হোয়াইট ওয়াকার দের তৈরী করা হয়েছিলো, সেই পারপোস তারা পালন করেই যাচ্ছে।

শুধু জন স্নো ই জানে কে তাদের আসল শত্রু.. লড়াই মানুষ এর সাথে মানুষ এর নয়.. লড়াই মৃত এবং জীবিত দের মধ্যে. জন স্নো জীবিত দের জড়ো করছে,যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করছে,

জন স্নো যখন বুঝতে পারে যুদ্ধ তারা নিজেরা করাটা বোকামি হচ্ছে, তখন সে তাদের শত্রু পক্ষের সাথে হাত মিলায় এবং সবাইকে এক করে, হোয়াইট ওয়াকার দের বিরুদ্ধে একসাথে যুদ্ধ করার জন্য। কিন্তু কিছু মানুষ নির্বুদ্ধিতার কারনে জন স্নো কে ভুল বোঝে এবং তাকে কুপিয়ে মেরে ফেলে। এই এপিসোড এর পর দর্শকমহল এ জন স্নো এর জন্য শোক নেমে আসে। এর পর রেড গড নামক এক গড এর অনুসারী বা প্রিস্ট জন স্নো কে মৃত থেকে আবার জীবিত করে। ঘটনা গুলো এভাবে শুনতে অবাক লাগলেও সিরিজ দেখার সময় অন্যরকম থ্রিল পাওয়া যায়..

আরেক দিকে ডেনেরিস টারগেরিয়ান তার আকাশ সমান ৩ টি ড্রাগন নিয়ে রওনা হচ্ছে ওয়েস্টেরস এর দিকে, আরিয়া মেনি ফেসড গড এর প্রশিক্ষন নিচ্ছে.. আর থ্রোনে যারা বসে আছে তারা কি করছে? তারা ল্যানিস্টার। তারা এখনো বিশ্বাস ই করেনা ওয়াল এর ওপারে কি আছে.. তারা একে ভাবছে সামান্য গল্প। কি হবে তাদের পরিনতি? “Battle of Alive vs Dead” কে জিতবে এই লড়াই? গেম অফ থ্রোন্স কে ধরা হয় সর্বকালের সেরা সিরিজ।

এই সব গুলো ঘটনা মিথিক্যাল হলেও, পরিচালক ঐতিহাসিক বিভিন্ন ঘটনা থেকে স্টোরিলাইন সংগ্রহ করে সিরিজ টি তৈরী করেন। এই সিরিজ এর ভক্ত সংখ্যা ছড়িয়ে আছে পুরো বিশ্ব জুড়ে। যারা ইংলিশ মুভি বা সিরিয়াল দেখতে পছন্দ করেন তাদের জন্য এটা ১ নাম্বার পছন্দ।

IMDB রেটিং: ৯.৫/১০

আমার রেটিং: ৯.৮/১০

A must watch Tv series