কিভাবে জানবেন আপনার কম্পিউটারটি হ্যাক হয়েছে?

Now Reading
কিভাবে জানবেন আপনার কম্পিউটারটি হ্যাক হয়েছে?

তথ্য -প্রযুক্তির এ যুগে প্রায়ই বিভিন্ন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে সাইবার আক্রমণের  শিকার হতে হয়। এর মাধ্যমে চুরি হয়ে যাচ্ছে কম্পিউটারে  থাকা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, পাসওয়ার্ড, ব্যাংক  এর তথ্য সমূহ ইত্যাদি। সবচেয়ে ভয়ঙ্কর বিষয়  হ্যাকাররা এখন কম্পিউটারের তথ্য চুরি করে ব্ল্যাক মেইল ও করে থাকে। সুতরাং সময় এসেছে সাইবার হ্যাক সম্পর্কে সচেতন হাওয়ার।  নিজের কম্পিউটার কে হ্যাক থেকে বাঁচানর জন্য সচেতন থাকতে হবে এবং কম্পিউটারের প্রতিটা পরিবর্তন গুরুত্বের সাথে লক্ষ্য করতে হবে।

সুতরাং আসুন দেখি কিভাবে পরীক্ষা করব আমার কম্পিউটারটি হ্যাক হয়েছে কিনা এবং সেক্ষেত্রে কি করতে হবে তাও জানব-

 

১. যদি আপনার কম্পিউটারের এন্টি -ভাইরাস সফটওয়্যারটি সুইচ অফ হয়ে যায়

আপনি যদি আপনার এন্টি-ভাইরাস সফটওয়্যার টি সুইচ অফ দেখেন, কিন্তু আসলে আপনি নিজে সুইচ অফ করেন নি। সে ক্ষেত্রে খুব সম্ভবত আপনার কম্পিউটার টি হ্যাক করা হয়েছে। কারণ হ্যাকার রা প্রথমেই যে কাজটা করে তা হচ্ছে এন্টি ভাইরাস সফটওয়্যার অফ করে দেয়। এতে তারা সহজেই কম্পিউটারের ফাইল গুলোতে ঢুকতে পারে।

 

২.যদি আপনার পাসওয়ার্ড কাজ না করে-

আপনি পরিবর্তন না করা করা সত্ত্বেও যদি আপনার পাসওয়ার্ড কাজ না করে এবং আপনি যদি আপনার একাউন্টে ঢুকতে না পারেন, তাহলে এখনি সাবধান হয়ে যান। আপনার কম্পিউটারটি খুব সম্ভবত হ্যাক করা হয়েছে।

password change.jpg

 

৩. ফ্রেন্ড লিস্টে ফ্রেন্ড এর সংখ্যা বেড়ে গেলে-
যদি আপনার সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে রহস্যজনক ভাবে এমন সব নতুন বন্ধু দেখেন, যাদেরকে আপনি এড করেন নি। সেই সাথে একাউন্টে ফ্রেন্ডের সংখ্যা বেড়ে গেলে বুঝবেন আপনার কম্পিউটার টি হ্যাক করা হয়েছে এবং আপনার একাউন্ট ব্যবহার করে স্প্যাম ছড়ান হচ্ছে।

৪.যদি দেখেন আপনার ডেশ-বোর্ডে নতুন নতুন আইকন দেখা যাচ্ছে
যদি আপনার ব্রাউজার ওপেন করলেই নতুন কিছু আইকন দেখা যায়, তবে বুঝবেন কিছু ক্ষতিকর কোড ঢুকেছে আপনার কম্পিউটার এ।

৫.যদি মাউস এর কার্সর নিজে নিজেই নড়া-চড়া করতে থাকে
যদি আপনার কম্পিউটারে মাউসের কার্সর নিজে নিজেই নড়া চড়া করতে থাকে, তবে নিশ্চিত হয়ে যান অবশ্যই আপনার কম্পিউটার টি হ্যাক হয়েছে।

৬.যদি প্রিন্টার ঠিক ভাবে কাজ না করে
সাইবার আক্রমণের প্রভাব শুধুমাত্র কম্পিউটারের উপর পরে তাই নয়, প্রিন্টার এর উপর ও প্রভাব পড়ে। যেমন, প্রিন্টারটি হয়ত ঠিক ভাবে প্রিন্ট করতে চাইবে না বা এমন কিছু প্রিন্ট করবে, যা আপনি ইন্সট্রাকশন দেন নি।

৭.যদি আপনার ব্রাউজার নিজে নিজেই নতুন নতুন ওয়েবসাইট ফরওয়ার্ড করতে থাকে
যদি আপনার ব্রাউজার নিজে থেকেই বিভিন্ন অপরিচিত ওয়েবসাইট ওপেন করতে থাকে, যেগুলো আপনি ওপেন করেন নি। অথবা আপনি সার্চ দিয়েছেন একটা ওয়েবসাইট ওপেন হয়েছে আরেকটা, অথবা আপনি যদি প্রায়ই বিভিন্ন পপ-আপ উইন্ড দেখেন, তাহলে বুঝবেন এখনি সময় সাবধান হবার।

৮. রহস্যজনক ভাবে আপনার কম্পিউটারের ফাইল ডিলিট হয়ে গেলে
যদি রহস্যজনক ভাবে আপনার ফাইল এবং বিভিন্ন প্রোগ্রাম গুলো ডিলিট হয়ে যায়, তবে বুঝবেন অবশ্যই আপনার কম্পিউটারটি হ্যাক হয়েছে।

৯.যদি আপনার অনেক ব্যক্তিগত তথ্য ইন্টারনেট এ প্রকাশ পেয়ে যায়

যে কোন সার্চ ইঞ্জিনে আপনার নাম দিয়ে সার্চ দিন, যেমন  kanij sharmin fb । যদি দেখেন ইন্টারনেট এ এমন সব তথ্য আছে যেগুলো আপনি দেন নি।  তাহলে বুঝবেন আপনার কম্পিউটার হ্যাক হয়েছে এবং আপনার ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করা হয়েছে।

১০.যদি সন্দেহজনক এন্টি-ভাইরাস মেসেজ পেয়ে থাকেন
যদি আপনার এন্টি- ভাইরাস এমন কোন মেসেজ দেয় যা স্বাভাবিকের চাইতে ভিন্ন অথবা আপনার কম্পিউটার এ এমন কোন এন্টি- ভাইরাস সফটওয়ার দেখতে পান যা আপনি ইন্সটল করেন নি। তাহলে বুঝবেন এটা হচ্ছে কম্পিউটার হ্যাক এর অন্যতম লক্ষণ।

১১.যদি আপনার ওয়েব ক্যামেরা টি অস্বাভাবিক আচরণ করে
আপনার ওয়েব ক্যামেরাটি পরীক্ষা করুন। যদি দেখুন এটি একা একা ব্লিনক করছে, তবে কম্পিউটার reboot করুন। যদি তারপরও ব্লিনক করতে থাকে তবে বুঝবেন আপনার কম্পিউটারটি হ্যাক করা হয়েছে।

১২. যদি কম্পিউটার খুব ধীরে কাজ করে
কম্পিউটার হ্যাকের অন্যতম একটি লক্ষণ হচ্ছে কম্পিউটার অনেক ধীরে কাজ করবে। যে কোন কাজ করতে স্বাভাবিক এর চাইতে বেশি সময় নিবে। সেই সাথে ইন্টারনেট এর স্পীড ও অনেক কমে যাবে। কারণ হ্যাকাররা আপনার নেটের লাইন ব্যবহার করেই কম্পিউটার হ্যাক করবে। এজন্য স্বাভাবিক ভাবেই নেটের উপর চাপ পরবে, ফলে নেটও স্লো কাজ করবে। যদিও কম্পিউটার স্লো হওয়ার অন্যান্য অনেক কারণ আছে। তবে কম্পিউটার হ্যাক হবার এটি অন্যতম একটি লক্ষণ।

১৩। যদি দেখেন আপনার ব্যাংক একাউন্ট থেকে রহস্যজনক ভাবে টাকা উধাও হয়ে যাচ্ছে
হ্যাকাররা কম্পিউটার হ্যাক করে ব্যাংকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করে টাকা সরিয়ে ফেলতে পারে। সুতরাং এমন কোন লক্ষণ দেখলে এখনই সাবধান হওন।

 

কি করবেন যখন কম্পিউটার হ্যাক হবে?

  • সবার প্রথমে আপনার ইন্টারনেট সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দিন ।
  • আপনার বন্ধু এবং ক্লাইন্ট দের সাবধান করে দিন যাদেরকে আপনি নিয়মিত মেইল পাঠান। তাদেরকে জানান যে আপনার কম্পিউটার হ্যাক হয়ে গিয়েছে। সুতরাং তারা যেন আপনার কাছ থেকে পাঠানো কোন মেইল ওপেন না করে এবং কোন লিংক এ ক্লিক না করে।
  • আপনার ব্যাংক কে সমস্যার কথা জানান।  তাদের পরামর্শ অনুযায়ী দ্রুত ব্যাংক একাউন্ট নিরাপদ করুন।
  •    কম্পিউটারের সকল অপরিচিত এবং অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রামগুলো ডিলিট করে দিন।
  •  ভালো মানের এন্টি  ভাইরাস ইন্সটল করুন এবং পুরো কম্পিউটার স্ক্যান করুন
  • আপনার সকল অ্যাকাউন্ট এর পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলুন।
  • সবচেয়ে ভালো হয় একজন বিশেষজ্ঞের কাছে কম্পিউটার টি নিয়ে যান। কারণ হ্যাকার রা অনেক সময় আপনার বাসা বা কর্মস্থল এর সমগ্র নেটওয়ার্কে ছড়িয়ে পরে,ফলে মডেম বা রাউটার এর পরিবর্তন করতে হতে পারে। যা বিশেষজ্ঞ ছাড়া সমাধান করা কঠিন।

 

সুতরাং ভালো থাকুন, নিরাপদে থাকুন।