কম্পিউটার SHUTDOWN হতে এতো সময় নেয় কেন , এর আসলে পেছনে কি কাজ ঘটে থাকে ?

Now Reading
কম্পিউটার SHUTDOWN হতে এতো সময় নেয় কেন , এর আসলে পেছনে কি কাজ ঘটে থাকে ?

আমরা কোনো ইলেক্ট্রনিক্স বন্ধ করার জন্য সাধারনত সুইচ এ চাপি বা প্লাগ খুলে দেই কিংবা পাওয়ার সাপ্লাই অফ করে দেই। নিত্য দিনের এসব ঘটনার মধ্যে একটু ব্যতিক্রম লক্ষ্য করি আমাদের ব্যবহার করা কম্পিউটারের ক্ষেত্রে।

একটি কম্পিউটার বন্ধ করার জন্য আমরা সাধারানত , “START” থেকে “Shut Down” ক্লিক করি অথবা কেসিং এর বাইরে পাওয়ার বাটনে ক্লিক করে দেই। কিন্তু এতো কিছু করার পরও আমাদের এই কম্পিউটার বাবাকে পুরোপুরি বন্ধ হতে মিনিট খানেক সময় লাগে।

এখন আপনি বলতে পারেন ,”কেন? পাওয়ার বাটন কে ৫ সেকেন্ড এর মতো ধরে রেখে অথবা পিসির পিছনে পাওয়ার সাপ্লাই এর সুইচকে ফ্লিপ আপ করেই তো আমি পিসি বন্ধ করতে পারি? হ্যাঁ তা পারেন। “কিন্তু প্রত্যেকবার এই কাজ করা আর নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল চালানোর মধ্যে কোনো পার্থক্য হবে না।”

 

আমরা যখন কোনো কম্পিউটারকে বন্ধ করি তখন দেখা যায় বন্ধের সময় কম্পিউটারটি কিছু ধাপে ধাপে তার কাজ করে যায়। বলা হয়ে থাকে এই প্রসেস এর মাধ্যমে কম্পিউটারটি তার ডাটা গুলোকে save করে রাখে। আসলে কি তাই ? চলুন জানা যাক…..

 

আমরা মনে করে থাকি কম্পিউটার চলাকালীন সময়ে তার ডাটা যেমন স্ক্রীনের করা বিভিন্ন কাজকে save করে। আবার কিছু software এমন কাজ করে যা পারফেক্ট এর থেকেও পারফেক্ট কাজের আউটপুট দিতে প্রয়োজনের চাইতে বেশী ফাইল তৈরি করে সেভ করে রাখে।এছাড়াও অনেক ক্ষেত্রে পিসি বন্ধ করার সময় আমরা অনেকবারই সম্মুখিন হয়েছি কিছু পপ আপ মেনুর  যাতে বলা হয়ে থাকে চলাকালীন ওয়ার্ড ফাইল কিংবা চলাকালীন ফটো এডিটং ফাইল সেভ করা হয়নি। এসব হয়তো আমাদের কাছে খুবই সাভাবিক এবং  জানা বিষয় মনে হতে পারে। কিন্তু ,একটি পিসি বন্ধ করার ক্ষেত্রে এর ভিতরে আরো জটিল কাজ ঘটে।

আমরা জানি, কম্পিউটার চলার জন্য এর মধ্যে একটি অপারেটিং সিস্টেম থাকে। আর এই অপারেটং সিস্টেম যখন পাওয়ার আপ হয় তখন সে তার নিজ থেকেই প্রতিদিন বা বেশি  বার ব্যবহার করা সফটওয়ার গুলকেও চালু করে  দেখে তার ডাটা গুলো সঠিক ভাবে কাজ করছে কিনা  (আর এ কারনেই আপনি অনেক সময় পিসি অন করার পর {file missing/error} এইধরনের মেসেজ পান)।  

zDgzd.png

 

আর ঠিক একইভাবে সেই অপারেটিং সিস্টেম যখন মূল সিস্টেম থেকে বন্ধ হওয়ার জন্য নির্দেশ পায় তখন সে তার ব্যবহার করা অন্যান্য সফটওয়্যার এবং নিজ এলগারিদম (যা প্রোগামিং ভাষা) কে নির্দেশটি পাঠিয়ে দেয় ঠিক যেমনটি একজন মা তার দিনের শেষে রাত হলে ঘুমাতে বলতে থাকেন। আর এই প্রক্রিয়াটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ যখন একটা কম্পিউটার তার হার্ডডিক্সে ডাটা সঠিকভাবে গুছিয়ে রাখে। এছাড়াও এই প্রক্রিয়াটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ যখন কোণ সফটওয়্যার আপডেট হচ্ছে বা কোনো ফাইল ডাউনলোড হয়েছে কিংবা সেই সিস্টেমের regestry key modifey হয়।

 

যদি এই প্রসেস গুলো সম্পন্ন না হত তাহলে আমাদের একটা বড়ধরনের ডাটা curruption এর সম্মুখিন হতে হতো। যদি আপনি আপনার কম্পিটারকে বন্ধ করতে হলে শুধু মাত্র মেইন সুইচকে খুলে দিয়ে বন্ধ করে দেন তাহলে জিনিসটা অনেকটা এমন হয়ে দাঁড়াবে যেমন ,”আপনি একটি কেক বেক হওয়ার মাঝেই তা সম্পূর্ণ হল কিনা তা না জেনেই বের করে নিলেন। কিন্তু এখন এই কেক কেউই খেতে চাইবে না কারন তার মাঝের অংশগুলো খাওয়ার যোগ্য না।”  ঠিক এমনটাই হয়ে থাকে আপনার কম্পিউটারের সাথে যখন সে এই করাপ্টেড ডাটাগুলোকে প্রসেস করতে যায়।

আর এই সমস্যাটি শুধু অই মুহূর্তের ডাটা গুলোকেই নয় এমন কি আপনার হার্ডডিক্সে থাকা সকল ডাটাকেই নষ্ট করে দিতে পারে। কিন্ত্য ভাগ্যক্রমে বর্তমান যুগে প্রায় সকল ফাইল সিস্টেম  NTFS ফরম্যাট রাখা হয়। যেখানে একটি সিস্টেম আছে যাকে বলা হয়  “JOURNALING” এটি যেকোনো ফাইল তৈরি করার পাশাপাশি একটি লিস্ট তৈরি করে নেয় যেন এই ডাটা হারানোর সমস্যাকে অনেক হারেই কমানো যায়।

 

কিন্তু তারপরও এই সমস্যাটি হতে পারে যদি না আপনি সঠিকভাবে কম্পিউটারটি বন্ধ করে থাকেন।

এছাড়াও যদি আমরা সারাসরি  কম্পিউটারকে প্লাগ অফ করে দেই অথবা আচমকা বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় সারাসরি বন্ধ হয়ে যায় তাহলে অনেক সময় আমারা পিসি bootup করার সময়  “DiskCheck Message/DiskBootFailure” পেয়ে থাকি.।

 

কিন্তু আমরা অনেক সময় সিস্টেম আপডেট এর জন্য তাতক্ষনিক ভাবে কম্পিউটার রিস্ট্রাট দিয়ে থাকি এটা হয়তো সাভাবিক জিনিস।

new-upgrade-UI.png

আবার যখন আমরা সে আপডেট দিতে থাকি স্ক্রীনে আমারা এমন একটি মেসেজ দেখে থাকি “Please do not power off or unplug your machine. Installing update of 11 of 124…” । কিন্তু যখন একটি আপডেট চলতে থাকে তখন পাওয়ার লস একটা বড় কারন  হয়ে উঠতে পারে।এতে করে আপনার সিস্টেমের boot up সমস্যা দেখা দিতে পারে যেমনঃ

  • corrupted
  • half written registry data
  • system error

তাই আমি আপনাদের রিকমেন্ড করব যেন আপনার ডেক্সটপ কম্পিউটার এর সাথে একটি ups ব্যবহার করুন, আপডেট দেওয়ার আগে বা আপডেট চলাকালীন সময়ে আপনার ল্যাপ্টপকে charger সাথে কানেক্ট করে নিন।

 

MORAL OF THE STORY: আপনি যদি মনে করেন আপনার পিসি-তে কোনো গুরুত্বপূর্ণ ডাটা আছে,তাহলে একটু সময় নিয়ে আপনার সিস্টেমকে সঠিক-ভাবে বন্ধ করুন। বিশ্বাস করুন আর নাই করুন,বন্ধ হতে দেওয়ার জন্য কিছু সময় ব্যয় করা,আপনার সিস্টেম কে আবার steup দেওয়া থেকে অনেকটা সহজ।