খেলাধূলা
Now Reading
সাকিব আল হাসান
105 11 1

সাকিব আল হাসান

by Mohammad Abubakker MollahNovember 10, 2017
What's your reaction?
লাইক ইট!
0%
FUNNY
0%
Sad
0%
Boring
0%

সাকিব আল হাসান এক প্রতিভার নাম।

বাংলাদেশ এম্নিতেই বেশীর ভাগ বড় বড় দলীয় বা ব্যক্তিগত খেলা ধুলায় খুব বেশী পিছিয়ে। এর মধ্যে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা ফুটবল,বাংলাদেশে যদিও অতি জনপ্রিয়,তথাপিও আমরা এই খেলা থেকে খুবই পিছিয়ে। অতি সম্প্রতি আমরা ফুটবলের তথা ফিফার সর্বনিম্ন রেংকিং এর খুব কাছাকাছি চলে গিয়েছি। এইটা জাতি হিসেবে আমাদের জন্য খুবই লজ্জাজনক। আমরা নিজেরা খেলতে না পারলে কি হবে?ব্রাজিল আর আর্জেটিনার সাপোর্টার হিসেবে। বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় কথা কাটাকাটি এবং মারামারি করে, দুধের স্বাদ ঘোলে মিটিয়ে দিন পাড় করি।এতো বড় ফ্লাগ উড়াই, প্রয়োজনে জায়গা জমিন বিক্রি করে হলেও বড় একটা ফ্লাগ বানিয়ে ফেলি। এদেশে ফুটবল এতো জনপ্রিয় হওয়ার পরেও কেন, আমরা এই খেলায় উন্নতি করতে সক্ষম হচ্ছি না।সেইটা ভাবলে খুবই কস্ট লাগে মনে। ফুটবল প্রসংগে কথা বলার এই মুহূর্তে ইচ্ছে আমার নেই।

তবে দলীয় খেলার বড় আসর হিসেবে ক্রিকেট পৃথিবীর কয়েকটি দেশে খুবই জনপ্রিয়।ক্রিকেট খেলা যদিও ইংল্যান্ডে জন্ম কিন্তু আমাদের উপমহাদেশই এখন এর মূল কেন্দ্র বিন্দু। এর মোট দর্শকের প্রায় ৭৫ শতাংশ দর্শকই এই উপমহাদেশে!সুতরাং এই খেলার প্রতি এতদ অন্চলের মানুষের দুর্নিবার একটা আকর্ষণ রয়েছে।যার ফলোশ্রুতিতে বিশ্ব ক্রিকেটে অপেক্ষাকৃত নবীন সদস্য হিসেবে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশ্বে একটা অবস্থান জানান দিচ্ছে। যদিও এখনো আমাদের অনেক দূর যেতে হবে। আমাদের ক্রিকেট বিশ্বকাপ ঘরে তুলতে হবে। বিদেশের মাটিতে সব কয়টি টেস্ট দেশের বিপক্ষে, টেস্ট সিরিজ ও ওয়ান ডে সিরিজ জয় করতে হবে। এসব করতে পারলেই কেবল। ক্রিকেট বিশ্বে পরাশক্তি হিসাবে স্বীকৃতি মিলবে। সমীহ করে কথা বলবে সব দল। আমাদের বর্তমান ক্রিকেট দলে বেশ কয়েক জন প্রতিভাবান ক্রিকেটার আছেন। তাদের সমন্বয়ে ক্রিকেট দলটি মোটামুটি একটা মান সম্মত খেলা খেলে আসছে। আমাদের দলে যদিও খুব বেশী তারকা প্লেয়ার নেই। তারপরেও সাকিব আল হাসান একজন খেলোয়ার আছেন, যে কিনা? তার প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে চলেছেন নিয়মিত। দশটি টেস্ট প্লেইং দেশের অসংখ্য প্রতিভাবান খেলোয়ারদের মাঝে। নিজেকে সবার চেয়ে উপরে রাখা এতো সহজ কাজ না। কিন্তু আমাদের সাকিব আল হাসান অসাধারণ এক প্রতিভা, যে কিনা এই শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছেন দীর্ঘদিন ধরে। তিনি শুধু ওডিআই নয়, টেস্ট ও টি টুয়েন্টি তিন ফর্মেটেই সমান ভাবে আইসিসি অলরাউন্ডার তালিকায় প্রথম।

তার ব্যক্তিগত কিছু অর্জন আছে, যেগুলো তাকে স্মরণীয় করে রাখবে সব সময়ই।
এর একটি হলো, টেস্ট প্লেইং সব কটি দেশের টেস্ট দলের বিপক্ষে তার পাঁচ উইকেট করে পাওয়া।এই তালিকায় তার সাথে মাত্র আরোও তিনজন রয়েছে।
এছাড়া তিনি দুই বার ডাবল অর্জন করেছেন। অথ্যাৎ একই টেস্টে বোলিং করে পাঁচ উইকেট নিয়েছেন এবং ব্যাটিং এ সেন্চুরী হাকিয়েছেন।

সাকিব আল হাসান সমসাময়িক কালের অত্যন্ত মেধাবী একজন প্লেয়ার। ক্রিকেট ইতিহাসে অলরাউন্ডার দের মাঝে খুব কমই দেখা যায়। ব্যাটিং আর বোলিং সমানভাবে পারদর্শী। আমাদের সাকিব আল হাসানের ক্ষেত্রে আপনি দেখবেন। সে দুই ক্ষেত্রেই মোটামুটি সমান। আপনি কখনোই আলাদা করে বলতে পারবেন না। সে বোলিং এ বেশী ভালো। ব্যাটিং এর চেঁযে। যেমন দীর্ঘদিন অলরাউন্ডার তালিকায় শীর্ষে থাকা জ্যাক ক্যালিস কে আমরা দেখি।ব্যাটিং এ একটু বেশী পারদর্শী ছিলেন। আমরা শুনেছি স্যার গ্যরিফিল্ড সোবার্স ছিলেন অসাধারণ এক অলরাউন্ডার। যা সব ক্রিকেটারেরই স্বপ্ন থাকে তার মতো অলরাউন্ড পার্ফমেন্স করার। সেই পর্যায়ে আমাদের সাকিব আল হাসান যদি পৌচ্ছাতে পারে। তাহলে, নিশ্চয় আমরা জাতি হিসেবে তাকে নিয়ে গর্ব করতে পারবো সবসময়। তার বর্তমান ওডিআই আর টেস্ট ব্যাটিং এভারেজ যথাক্রমে, 34.84 এবং 40.38 যেটা বাংলাদেশের অনেক ব্যাটস ম্যানেরই স্বপ্ন। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে আরোও প্রতিভার বিকাশ ঘটুক সেই প্রত্যাশায় থাকলাম।

About The Author
Mohammad Abubakker Mollah
Mohammad Abubakker Mollah

আসসালামু আলাইকুম । আশা করি সবাই ভালো আছেন।

1 Comments

You must log in to post a comment